Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০ , ১০ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (88 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-০৪-২০১২

মালয়েশিয়ায় হাইকমিশন থেকে বাংলাদেশের ১০ হাজার পাসপোর্ট গায়েব

মালয়েশিয়ায় হাইকমিশন থেকে বাংলাদেশের ১০ হাজার পাসপোর্ট গায়েব
মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে অভিনব কৌশলে প্রায় ১০ হাজার পাসপোর্ট গায়েব হয়ে গেছে। দুই সপ্তাহ আগে ঘটনাটি ঘটলেও এত দিন তা গোপন রাখা হয়েছিল। কিন্তু গত সপ্তাহে জানাজানি হলে হাইকমিশনে হৈ চৈ পড়ে যায়।
ঘটনার সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করা এবং গায়েব হওয়া পাসপোর্ট উদ্ধার করতে হাইকমিশন থেকে ইতোমধ্যে মালয় পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। হাইকমিশন থেকে শুধু পাসপোর্ট গায়েব হয়ে যাচ্ছে তা কিন্তু নয়, জালিয়াতচক্রের সদস্যরা এখন মালয়েশিয়ায় বসেই তৈরি করছে বাংলাদেশী জাল পাসপোর্ট, ভিসা ও নবায়ন সিল। ৩রা ফেব্রুয়ারি শুক্রবার মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার এ কে এম আতিকুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, হাইকমিশনের দুই কর্মকর্তার দফতর থেকে বেশ কিছু পাসপোর্ট চুরি হয়েছে। তবে এই সংখ্যা কত তা আগামী সপ্তাহে বলা যাবে।
মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশন সূত্রে জানা গেছে, অবৈধভাবে অবসান করা বিদেশী শ্রমিকদের বৈধতা দেয়ার কার্যক্রম শুরু হওয়ার আগেই হাতে লেখা প্রায় আড়াই লাখ পাসপোর্ট পাঠানো হয় মালয়েশিয়া হাইকমিশনে। মালয়েশিয়া সরকারের নির্ধারিত সময়ের আগেই বৈধ হওয়ার আবেদনকারী শ্রমিকদের কাছে সোয়া দুই লাখেরও বেশি পাসপোর্ট দেয়া হয়। এখনো ১৫-২০ হাজার শ্রমিক আবেদন করেও পাসপোর্ট পাননি।
এ অবস্থায় হাইকমিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি হালিমুদ্দিন (পাসপোর্ট) ও ফার্স্ট সেক্রেটারি (লেবার) মাসুদুল হাসানের দফতর থেকে দুই সপ্তাহ আগে বিপুলসংখ্যক পাসপোর্ট গায়েব হয়ে যায়। দফতরে বিষয়টি ধরা পড়লে এ নিয়ে হাইকমিশনার সব কর্মকর্তা নিয়ে বৈঠক করেন। সিদ্ধান্ত মোতাবেক হাইকমিশনারের নির্দেশে কুয়ালালামপুরের আমপাং এমআরটির পাশে বালাই থানায় পাসপোর্ট চুরি হওয়ার বিষয়টি জানানো হয়। ওই অভিযোগে এ ঘটনার সাথে কারা জড়িত তা উদঘাটনের জন্য পুলিশকে অনুরোধ করা হয়।
এ দিকে বৈধ তালিকায় নাম লেখানোর পরও যেসব বাংলাদেশী পাসপোর্টের আবেদন করেও পাননি তারা প্রতিদিন হাইকমিশনে গিয়ে ভিড় করছেন।  শ্রমিকেরা সময়মতো হাজির হওয়ার পরও পাসপোর্ট হাতে পাচ্ছেন না।
৩রা ফেব্রুয়ারি মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে এক বাংলাদেশী টেলিফোনে এ প্রতিবেদককে জানান, হাইকমিশন থেকে দুই সপ্তাহ আগে ৮-১০ হাজার পাসপোর্ট গায়েব হয়ে গেছে। ঘটনাটি জানাজানি হয় গত পাঁচ দিন আগে। এর পরই পুরো হাইকমিশনে হইচই পড়ে যায়। কারা এই পাসপোর্ট চুরির সাথে জড়িত থাকতে পারে জানতে চাইলে ওই ব্যক্তি নাম না বলার শর্তে বলেন, কিছু দিন আগে হাইকমিশনে স্থানীয় কিছু বাংলাদেশীকে সিকিউরিটি হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়। তারা ছাড়াও ১০-১২ সদস্যর একটি জালিয়াত সিন্ডিকেট জড়িত থাকতে পারে।
এই চক্রের সাথে হান্নান নামে এক ব্যক্তির নামসহ মোট ১২ জনের একটি নামের তালিকা হাইকমিশন থেকে পুলিশকে দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে হান্নানের বাসা থেকে গায়েব হওয়া ২৪টি পাসপোর্ট উদ্ধার হয়েছে। তিনি বলেন, হাইকমিশন থেকে পুলিশের কাছে যে অভিযোগ দেয়া হয়েছে তাতে চার হাজার পাসপোর্ট চুরি হওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তবে চুরি হয়েছে ৮-১০ হাজার পাসপোর্ট। কিন' হাইকমিশন থেকে এ প্রসঙ্গে কেউ কোনো কথা বলছেন না।

মালয়েশিয়ার বাংলাদেশ হাইকমিশন থেকে ১০ হাজার পাসপোর্ট গায়েব হয়ে গেছে- এমন প্রশ্নের উত্তরে হাইকমিশনার আতিকুর রহমান বলেন, কী বলেন? এটা কে বলে। এরপর তিনি বলেন, আসলে কত পাসপোর্ট চুরি হয়েছে সেই হিসাব বের করার জন্য ফরমের হিসাব ও পাসপোর্টের নাম্বার মিলিয়ে দেখা হচ্ছে। পুরো হিসাবের তালিকা পেতে হলে আগামী সপ্তাহ লেগে যেতে পারে। এখন পর্যন্ত হাজারের বেশি বেহাত হয়েছে বলে নিশ্চিত হতে পেরেছি। কারা এই দুঃসাহসিক চুরিতে জড়িত জানতে চাইলে তিনি অনেকটা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, কী আর বলব।
যতটুকু জানতে পেরেছি এই ঘটনার সাথে আমাদের বাংলাদেশীরাই জড়িত রয়েছে। তবে কারা এসব করতে পারে তাদের ব্যাপারে পুলিশকে বলা হয়েছে। তারাই তদন্ত করে বের করবে বলে আমাকে আশ্বস্ত করেছে। হাইকমিশনার বলেন, আমাদের বাংলাদেশী পোলাপানরা হাইকমিশন থেকে শুধু পাসপোর্ট গায়েব করে দিচ্ছে না, তারা এখন মালয়েশিয়ায় বসে জাল পাসপোর্ট তৈরি করে ইমিগ্রেশনেও জমা দিচ্ছে। এই চক্রকে ধরতে গিয়ে বাংলাদেশী একটি জালিয়াতচক্রের কাছ থেকে পাসপোর্ট নবায়ন করার সিল, ভিসার জাল সিল উদ্ধার হয়েছে।
এমনকি ২০ বছর আগে হাইকমিশনে যেসব কর্মকর্তা দায়িত্বে ছিলেন তাদের নামেরও জাল সিল স্বাক্ষর তারা তৈরি করে ইমিগ্রেশনে জমা দিয়েছে। এই চক্রের সদস্য কারা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এখন কারো নাম বলব না। পুলিশকে বলেছি। আর কিছু বাংলাদেশী জাল পাসপোর্ট সিলসহ ধরা পড়েছে। তাদের দিয়ে গায়েব হওয়া পাসপোর্ট উদ্ধারে পুলিশ কাজ করছে। পাসপোর্ট গায়েব করার কারণ জানতে চাইলে হাইকমিশনার এ প্রতিবেদককে বলেন, ট্যুরিস্ট ভিসায় শ্রমিক নামধারী যেসব লোক মালয়েশিয়ায় আসছে তারাতো আর বৈধ হতে পারবে না।
ওই সব নামধারী শ্রমিককে বৈধ করার জন্য পুরনো কোম্পানির নাম ব্যবহার করে নতুন এসব পাসপোর্ট তারা ব্যবহারের চেষ্টা করছে। এ দিকে কুয়ালালামপুরের বাংলাদেশ হাইকমিশনের গেটের বাইরে শত শত বাংলাদেশী শ্রমিক পাসপোর্ট পাওয়ার জন্য ভিড় করলেও বেশির ভাগ শ্রমিক পাসপোর্ট ছাড়াই ফিরে গেছেন বলে ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে জানা গেছে।
পেনাং থেকে পাসপোর্ট নিতে আসা জয়নাল টেলিফোনে এ প্রতিবেদককে জানান, ফিংগারিং শেষ করে পাসপোর্ট পাওয়ার জন্য হাইকমিশনে আবেদন করেছি। ৩ ফেব্রুয়ারি পাসপোর্ট দেয়ার জন্য আমাকে স্লিপ দেয়া হয়েছে। কিন' এখন বলছে, ৫ ফেব্রুয়ারি আসার জন্য। পাসপোর্ট না পাওয়ার কারণে তিনি উদ্বিগ্ন। জয়নাল বলেন, আমাদের পেনাং থেকে হাইকমিশনে আসা ও থাকা-খাওয়া বাবদ ৩০০-৪০০ রিংগিট খরচ হয়ে যায়। হাইকমিশন থেকে যদি স্লিপের তারিখ মোতাবেক পাসপোর্ট দেয়া হতো তাহলে আমাদের ভোগান্তি হতো না। জয়নাল বলেন, শুধু আমি নই, আমার মতো শত শত শ্রমিক এসে প্রতিদিন ভিড় করছেন। আমরা এই ভোগান্তির অবসান চাই।
এ প্রসঙ্গে হাইকমিশনার এ কে এম আতিকুর রহমান বলেন, মালয়েশিয়া সরকারের বৈধতা দেয়ার সময় শেষ হয়ে গেছে। আমরা হাইকমিশন থেকে দুই লাখ ৪০ হাজার পাসপোর্ট শ্রমিকদের হাতে দিয়েছি। তবে ইদানীং জাল ফিংগার প্রিন্টের সংখ্যা বেশি আসতে থাকায় যাচাই বাছাই করে দেয়া হচ্ছে। আশা করি এই সমস্যাও থাকবে না। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, জালিয়াতচক্রের সদস্যদের বিরুদ্ধে আমি অবস্থান নেয়ায় তারা আমাকে হত্যার হুমকি দিয়েছিল। তার পরও আমি থামিনি। তাই পাসপোর্ট গায়েব করার সাথে যারাই জড়িত থাকবে তাদের ছাড় দেয়া হবে না। তিনি বলেন, পাসপোর্ট গায়েব হওয়ার বিষয়টি এখনো মন্ত্রণালয়কে জানানো হয়নি।
৩রা ফেব্রুয়ারি শুক্রবার রাতে প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. জাফর আহমেদ খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, পাসপোর্ট গায়েব হওয়ার খবর আমি শুনেছি। তবে হাইকমিশন থেকে আমাদের এখনো দাফতরিকভাবে জানানো হয়নি। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ঘটনার সাথে কারা জড়িত এমন সুনির্দিষ্ট তথ্য থাকলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থ গ্রহণ করব।

মালয়েশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে