Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (101 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-২১-২০১৪

আপনার প্রিয় কোমল পানীয়টি কী কী ক্ষতি করছে জানেন কি?

রোজকার ব্যস্ত জীবনে সকলকেই ছুটতে হয় জীবন ও জীবিকার প্রয়োজনে। সারাদিনের দৌড়ঝাঁপে ক্লান্তি আসেই। আর বিশেষ করে এই গরমের দিনে বাড়ির বাইরে বেরোলেই শরীর ক্লান্ত হয়ে পড়ে। আর ঠিক তখনই চোখ যায় কোমল পানীয়ের দিকে। এছাড়া একটু গুরুপাক খাবার কিংবা ফাস্টফুডের সাথে কোমল পানীয় খাওয়া তো আজকাল যেন নিয়মে পরিণত হয়েছে। ছেলে-বুড়ো সকলেই চুটিয়ে পান করছে নানান রকম কোমল পানীয়। অনেক বাড়িতেই সারাক্ষণ ফ্রিজে থাকে এই বস্তু, অতিথি আপ্যায়নেও শরবতের স্থান দখল করে নিয়েছে এই কোমল পানীয়ই।

আপনার প্রিয় কোমল পানীয়টি কী কী ক্ষতি করছে জানেন কি?

প্রচন্ড গরমে কোমল পানীয় পানে খানিকটা সময়ে শান্তি মেলে ঠিকই, মনে হয় চট করে বুঝি একটু এনার্জি পেলেন শরীরে। কিন্তু আপনি জানেন কি এটি মানবদেহে কি মারাত্মক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে? বাড়তি চিনি ও ক্যালোরি ইত্যাদির সমস্যা তো আছেই, সাথে আছে ক্যান্সারের ঝুঁকি!

চিকিৎসকদের মতে, কোমল পানীয় হজমে বাধা সৃষ্টি করে এবং শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ হ্রাস করে। এ সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যানসার বিশেষজ্ঞ ডাঃ ফ্রান্সিসকো কন্টারাইজ জানান, ক্যানসার একটি বৃক্ষের মতো এবং অক্সিজেনবিহীন ট্যিসু কোষ হল এর পৃষ্ঠপোষক। অত্যধিক কোমল পানীয় সেবনের ফলে শরীরে অক্সিজেনের পরিমাণ কমে আসে, যা মানব দেহের জন্যে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায়!

সাধারণত কোমলপানীয় ভর্তি ৫০০ গ্রামের একটি বোতলে কার্বন, ১৭০ ক্যালোরি সোডা এবং ১৫ চামচ চিনি ব্যবহার করা হয়। এইসবই মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। খিদে না পাওয়া, অবসাদ, ডায়াবেটিস, হার্ট অ্যাটাক, দাঁতের ক্ষয়, বন্ধ্যাত্বের মতো রোগের ঝুঁকিও কোমল পানীয় থেকে ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পায়।

তাহলে কী করবেন?

প্রথমত ছোট শিশুদের মোটেও পান করতে দেবেন না কোমল পানীয়। একদিন খেলে কিছু হবে না এই ভাবনা ত্যাগ করুন। নিজের সন্তানের ভালো চাইলে কোনমতেই কোমল পানীয় স্পর্শ করতে দেবেন না তাঁদের।

আপনি নিজেও কোমল পানীয় ত্যাগ করুন। যদি একবারে ত্যাগ করতে না পারেন, তাহলে আস্তে আস্তে রঙ বিহীন পানীয় পানের অভ্যাস করুন। এভাবে ধীরে ধীরে ছেড়ে দিন।

কোমল পানীয়ের বদলে আবার এনার্জি ড্রিঙ্ক বেছে নিতে যাবেন না যেন। এগুলো আরও বেশি ক্ষতিকর।

বদলে পান করুন লেবুর শরবত, বিভিন্ন ফলের রস। একঘেয়ে লাগলে কয়েক রকমের ফলের রস মিশিয়ে ফ্রুট পাঞ্চ তৈরি করে নিন।

এছাড়াও প্রাকৃতিক কোমল পানীয়, যেমন ডাবের পানি পান করতে পারেন প্রতিদিন। এতে মোটা হয়ে যাওয়ার ভয় তো নেই-ই, বরং ভীষণ স্বাস্থ্যকর।

গুরুপাক খাবার খেলে কোমল পানীয় পান করতে হবে? তাতে হজমে সুবিধা হয়? এই ভুল ধারণা বাদ দিয়ে? গুরুপাক খাবার খেলে হালকা গরম পানিতে একটি লেবু চিপে মধু মিশিয়ে পান করুন,হজমে সহায়ক হবে। কোমল পানীয় মোটেও হজমে সহায়ক নয়।

ফাস্টফুডের সাথে বাচ্চা কোমল পানীয় খোঁজে? সাথে পরিবেশন করুন ঘরে তৈরি লেমনেড। মিশিয়ে দিতে পারেন এক ফোঁটা খাবার রঙ। দেখবেন আর কোক-পেপসি চাইবে না!

 

সচেতনতা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে