Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (11 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-৩০-২০১২

ফোবিয়া: ভয় নয়, আতঙ্ক বাড়ছে

ফোবিয়া: ভয় নয়, আতঙ্ক বাড়ছে
ডাক্তারখানা থেকে ফেরার পথে ঝুমির মনটা বেশ খারাপ হয়ে গেল| নিজের অজান্তেই ঘনঘন নিঃশ্বাস নিচ্ছিল সে রাস্তা পার করার সময় | কেন এমনটা হলো তার| মনে মনে বিড়বিড় করছিল সে, “ভীতু মেয়ে তো নই আমি...রামভদ্র...তাহলে কেন উনি এসব বললেন? ধুর ডাক্তারটাই বাজে...না বুঝে, না জেনে বলে গেল! যত্ত সব আজে বাজে কথা...ধুর!”

 

ঝুমি ছোটো থেকেই খুব দামাল...নানারকমের অ্যাডভেন্চার-বদমাইশি করতে মন্দ লাগে না তার| দুষ্টুমি একটু বাড়লেই মা ওকে ভূতের ভয় দেখাতো| ফলে শৈশবে ভূত ব্যাপারটায় বেজায় শিহরণ ও ভয় হতো তার| ভয় বলতে ওটুকুই ছিল...তারপর কবে সে সব পেরিয়ে এসেছে| মহাখালীতে বহুতলে তার নতুন অফিস শুরু হয়েছে মাস ছ’য়েক| তা নিয়ে বেশ খুশি সে...তবে এই মাস ছ’য়েক একটা আতঙ্ক তৈরি হচ্ছে ওর মধ্যে| ২৫ তলার ওপরের ছোট্টো কিউবিকল’এ ওঠা-নামা’ করতেই আতঙ্ক হচ্ছে, হচ্ছে মানে বাড়ছে| দিনে দিনে সেটা বাড়ছেই| লিফ্টে ওঠার-নামার সময় ভুলক্রমেও যদি সে লিফ্টের কাঁচের বাইরের দিকটায় তাকায়...সাংঘাতিক ভয় করে ওর| কেবল যেন মনে হয় এই পড়ে যাবে! এই বুঝি ভেঙে পড়ল লিফ্টটা...এমন আরো অনেক কিছু| ডাক্তার বলেছেন, ঝুমির অ্যাক্রোফোবিয়া (উচ্চতায় আতঙ্ক) হয়েছে, কিছু মেডিকেশন আর রেগুলার কাউনসেলিং করলে সেরে যেতে পারে। এটা একটা ফোবিয়া কেস হিস্ট্রি মাত্র। এই শহর শুধু নয়, দুনিয়াজুড়েই দিন দিন বাড়ছে এই রোগ!
 
আসলে, ফোবিয়া ব্যাপারটা বেশ আতঙ্কজনক| কোনও জিনিষ নিয়ে সামান্য ভয় পাওয়া এক কথা, আর অনর্থক চিন্তা বা প্যানিক করা, ভয়ের জিনিষ এড়িয়ে চলার প্রবণতা নিয়ে অকারণ কোনও আতঙ্ক ভুগতে থাকা আলাদা- একেই ফোবিয়া বলে| ব্যাপারটা এখন বেশ কমন, চারপাশের ব্যস্ত জীবনে যেমন আছে অনেক সুবিধা, তেমনই সেই সুবিধাগুলো নিয়েই হররোজ জন্ম নিচ্ছে হাজার রকমের ফোবিয়া| তবে এছাড়াও জেনেটিক ইনহেরিটেন্সের কারণেও বংশগতভাবে বয়ে আসে ফোবিয়া| চারপাশে চোখ ফেরালে কিছু সাধারণ ফোবিয়া নজরে পড়ে| আসুন চোখ বুলিয়ে জেনে নিন, আপনার চেনা কেউ এরমধ্যে কোনওটার শিকার কিনা:

 

জেনোফোবিয়া-আগন্তুকের সঙ্গে কথা বলার ভীতি
হাইড্রোফোবিয়া-জল -ভীতি
অ্যাক্রোফোবিয়া-উচ্চতায় ভয়
লাইগোফোবিয়া-পোকামাকড়ের ভয়
সেরানোফোবিয়া-ঝড়-বজ্রপাত-বিদ্যুৎ’এ ভয়
ক্লস্ট্রোফোবিয়া-দমবন্ধ পরিস্থিতিতে আটকে পড়ার ভয়
এ্যাটিচিফোবিয়া-ব্যার্থতার প্রতি ভীতি
অ্যাম্যাক্সোফোবিয়া-যান বাহনে চলার ভয়
হামার্টোফোবিয়া-পাপ করার ভয়
স্নেকোফোবিয়া-সাপ’এর ভয়

 

ডাক্তারি মতে, সোশ্যাল ফোবিয়া, স্পেসিফিক ফোবিয়া আর প্যানিক ডিসঅর্ডার-এই তিন ধরনের ফোবিয়া সাধারণভাবে দেখা যায়| ঠিকমত খেয়াল না করলে এমন ফোবিয়া পরে বড়সড় আকার নেয়| ছোটোবেলার কোনও খারাপ ঘটনা, অত্যাচারিত হওয়া কিম্বা মানসিক চাপের ফল হিসাবে সোশ্যাল ফোবিয়া হয়ে থাকে| সমাজে বাসের অযোগ্য মনে হতে থাকা এবং সকলেই তার আচার-আচরণ লক্ষ্য করছে সবসময়, সোশ্যাল ফোবিয়ায় এমনটাই মনে হয় মানুষের| অন্যদিকে কোনও কিছু নিয়ে অকারণ প্যানিক বা চাপা ত্রাস থকে তৈরি হয় প্যানিক ডিসঅর্ডার| এই রোগে ভুগতে থাকা মানুষ সবসময়ই ত্রাসের পরিস্থিতিকে এড়িয়ে চলতে চান| নিজের চেনা ভয়টির মাঝে আচমকা আটকে পড়লে কি হবে সেই চিন্তাতেই সর্বক্ষণই তারা ত্রস্ত থাকেন| আর ফোবিয়া জগতে সাধারণ সাপ ব্যাঙ, রক্ত, আঘাত, পোকামাকড়, জল,আগুন এসবে ভয় পাওয়াকে স্পেসিফিক ফোবিয়া বলে| মানুষের কমপ্লেক্স জীবনের পরতে পরতে জমা থেকে যাওয়া নানান ভীতি-কষ্টের আশঙ্কা-ক্ষোভ বা না-পাওয়ার মাঝেই জন্ম নিতে থাকে ফোবিয়া| ডাক্তারি চিকিৎসার পাশাপাশিই সহজ মনে হাল্কা দীর্ঘ একটা নিশ্বাস নিয়ে ভরসা ফেরান নিজেতে...এক নিমেষে কাটিয়ে ফেলুন সকল ভয়| দেখবেন, ফোবিয়া উধাও!

শরীর চর্চা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে