Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২৬ জুন, ২০১৯ , ১২ আষাঢ় ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.4/5 (13 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২৮-২০১২

বাংলাদেশের রাজনীতিতে ‘অশান্ত আবাস’ -- দ্য ইকোনমিস্ট

বাংলাদেশের রাজনীতিতে ‘অশান্ত আবাস’ -- দ্য ইকোনমিস্ট
শেখ হাসিনার সরকারকে উত্খাতের একটি চেষ্টা সেনাবাহিনী কর্তৃক ব্যর্থ করে দেওয়ার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের রাজনীতিকে ‘অশান্ত আবাস’ বলে আখ্যায়িত করেছে দ্য ইকোনমিস্ট। ‘বাংলাদেশের রাজনীতি: অশান্ত আবাস’ নামে আজ শনিবার ইকোনমিস্টের এক প্রতিবেদনে এ মন্তব্য করা হয়েছে।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সেনাবাহিনী কর্তৃক ব্যর্থ করে দেওয়া অভ্যুত্থান প্রসঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ উপদেষ্টা গওহর রিজভী বলেছেন, ‘এটা অঙ্কুরেই বিনষ্ট করা হয়েছে।’ এই পরিকল্পনায় ১৬ জন জড়িত। কর্মরত মধ্যম পর্যায়ের হতাশাগ্রস্ত কর্মকর্তা ও অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে কেউ কেউ পলাতক ও অন্যরা বিদেশে অবস্থান করছেন। গওহর রিজভী দাবি করেছেন, ষড়যন্ত্রকারীদের হত্যা পরিকল্পনায় গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের একটি তালিকা ও ষড়যন্ত্রকারীদের ‘সম্ভাব্য সহযোগী’ হিসেবে ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্তা ব্যক্তিদের অপর একটি তালিকা পেয়েছে।
বাংলাদেশ গত ৪০ বছরে কয়েক ডজন ব্যর্থ বা সফল অভ্যুত্থান প্রত্যক্ষ করেছে। তবে ১৯ জানুয়ারি এ বিষয়ে সেনা মুখপাত্রের বিস্তারিত বিবরণ ছিল প্রথাবিরোধী। মুখপাত্র ষড়যন্ত্রকারীদের নাম উল্লেখ করে তাদের অন্যদের সঙ্গে বিদ্রোহের জন্য দোষারোপ করেছেন। তিনি বলেছেন, ষড়যন্ত্রকারীরা উগ্র ধর্মীয় বিশ্বাস ধারণ করছেন।
সেনাবাহিনীর এই কর্মকর্তারা শেখ হাসিনা ওয়াজেদের নির্বাচিত সরকারকে এখনই উত্খাত করতে চায়। তাঁদের মধ্যে ইসলামপন্থীরা আছেন, যাঁদের অনেককেই ২০০০ সালের শুরুর দিকে সেনাবাহিনীতে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে এবং যাঁরা চলমান যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের বিরোধিতা করছেন।
সরকারের কর্তৃত্ব নিশ্চিত করে রিজভী দাবি করেছেন, ঢাকার পরিস্থিতি পুরোপুরি শান্ত। তিনি বলেছেন, সেনাবাহিনীর শৃঙ্খলা প্রশংসনীয়। গত কয়েক বছর আগের তুলনায় উর্দিধারীরা এখন আর রাজনীতিতে আগ্রহী নন।
তবে এই প্রশান্তি সবার মধ্যে নেই। অনেক সাধারণ বাংলাদেশি বিশ্লেষক কথা বলতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। ফোনে আড়িপাতা হচ্ছে বলে তাঁদের মধ্যে একটি অনুমান কাজ করছে।
এদিকে বিদেশে অবস্থানরত ইশরাক আহমেদ স্বীকার করেছেন, গ্রেপ্তারকৃতরা তাঁর বন্ধু। তবে ধর্মীয় উগ্রবাদের বিষয়টি তিনি অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেছেন, সরকার এই ষড়যন্ত্র প্রমাণে কোনো সামরিক তত্পরতা, অস্ত্রের ব্যবহার বা অন্যকিছু দেখাতে পারবে না।
ইশরাক একটি উদারমনা পরিবারের উচ্চপদস্থ সাবেক কর্মকর্তা। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সময় এক মহান দায়িত্ব নিয়ে লড়াই করেছেন। এখন তিনি ও অন্য জাতীয়তাবাদীরা কেবল শেখ হাসিনার ষড়যন্ত্রের বিরোধিতা করছেন। শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে ইশরাক অভিযোগ করেন, ভারত দ্বারা পরিচালিত হয়ে তিনি বাংলাদেশকে বানতুস্তান বানাচ্ছেন।
ইশরাক আরও অনেক বিষয়ে অভিযোগ করেছেন। এর মধ্যে সুনির্দিষ্ট হলো, ভারতের গোয়েন্দা সংস্থা ‘র’ দেশ পরিচালনা করছে। তিনি দাবি করেছেন, ঢাকায় বাংলাদেশের গোয়েন্দা সদর দপ্তরের ভেতরে দুই বছর ধরে ‘র’ একটি অফিস পরিচালনা করছে। আর ভারতের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের জন্য সাবমেরিন কেবল স্থাপন করা হয়েছে।
ইশরাক দাবি করেছেন, ভারত এ দেশে ইলেকট্রনিক পদ্ধতিতে সবকিছু পর্যবেক্ষণ করছে এবং বাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্য থেকে সন্দেহভাজনদের অপহরণ করছে। তিনি দাবি করেন, যেকোনো দাড়িওয়ালা ও মুসলিম ধর্ম পালনকারীকে তালেবান হিসেবে চিহ্নিত করে দমন করতে সরকারকে উত্সাহ দিচ্ছে ভারত।
তবে রিজভী এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশে কোনো ভারতীয়ের উপস্থিতির বিষয়ে তিনি পুরোপুরি অজ্ঞাত। তবে তিনি বলেছেন, শেখ হাসিনার আমলে ভারতের সঙ্গে সম্পর্ককে অনেকেই সহজভাবে নেয় না। জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র উত্পাটনে বাংলাদেশ ভারতের দাবি পূরণ করেছে। তিনি স্বীকার করেন, বাংলাদেশি নয় এমন কিছু ব্যক্তিকে বিচারের জন্য সীমান্ত দিয়ে নিয়ে গেছে ভারত।
২০১৩ সালের সাধারণ নির্বাচনকে সমানে রেখে বিভেদ আরও বাড়বে। ৮ জানুয়ারি ডেইলি স্টারে প্রকাশিত এক জনমত জরিপ অনুসারে, তিন বছর আগে ক্ষমতায় এসে শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তায় এখন ৮১ শতাংশ থেকে কমে ৩৯ শতাংশ হয়েছে। এতে আরও বলা হয়েছে, ৭৪ শতাংশ এই সংশোধনীর বিরোধিতা করে, যা নির্বাচনি প্রক্রিয়া বদলে দিয়েছে। এটা স্থিতিশীলতা বিনষ্টের কারণ হয়ে উঠতে পারে।
ইকোনমিস্ট লিখেছে, প্রায় চার শতক আগে মুঘল সম্রাটরা এ অঞ্চলকে ‘অশান্ত আবাস’ বলে আখ্যায়িত করেছিলেন। এত দিন পরেও পরিস্থিতির খুব কমই পরিবর্তন হয়েছে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে