Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ৩ এপ্রিল, ২০২০ , ১৯ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-০৬-২০১৪

ভগৎ সিং নির্দোষ ছিলেন

ভগৎ সিং নির্দোষ ছিলেন

লাহোর, ০৬ মে- ভারতবর্ষে দুর্বার হয়ে ওঠা ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে জড়িত যে কয়জনের নাম ইতিহাসে বহুল উচ্চারিত, তাদের একজন ২৩ বছরের তরুণ ভগত সিং। লাহোর পুলিশের তৎকালিন সহকারী পুলিশ সুপারিন্টেডেন্ট জন পি. সন্ডারস হত্যাকাণ্ডের দায়ে অভিযুক্ত ও অভিযোগ ‘প্রমাণিত’ হওয়ায়, ১৯৩১ সালের ২৩ মার্চ তার ফাঁসি কার্যকর হয়েছিল। সে ঘটনার প্রায় ৮০ বছর পর প্রমাণিত হতে চলেছে, ভগৎ সিং সন্ডারসের হত্যাকারী ছিলেন না।  
 
সম্প্রতি পাকিস্তানের ভগৎ সিং মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের সভাপতি ইমতিয়াজ রশিদ কোরেশি ভগত সিংসহ সুখদেব ও রাজগুরুকে আসামী করে উপস্থাপিত ব্রিটিশ পুলিশের তথ্য ও প্রতিবেদনের কাগজপত্র চেয়ে, লাহোর আদালতে আবেদন করেন।
 
সে আবেদনের ভিত্তিতে, প্রায় ৮০ বছর পর লাহোর আদালত আনারকলি পুলিশ স্টেশনকে ঐ প্রতিবেদনটির একটি সত্যায়িত কপি আদালতে উপস্থাপনের নির্দেশ দেয়।  
 
তৎকালীন ব্রিটিশ সরকার নিয়ন্ত্রণাধীন আনারকলি পুলিশ স্টেশন ১৯২৮ সালের ১৭ ডিসেম্বর ‘ফার্স্ট ইনফরমেশন রিপোর্ট’ শিরোনামে ঐ বিষয়ে একটি প্রতিবেদন আদালতের কাছে ‍উপস্থাপন করেছিল, যার ভিত্তিতে পরবর্তীতে ভগৎ সিংএর ফাঁসি কার্যকর হয়।
 
আদালতে ৮০ বছরের পুরনো সে প্রতিবেদন উপস্থাপিত হলে, তাতে দেখা যায়, মাত্র ১জন প্রত্যক্ষদর্শীর স্বাক্ষীর ভিত্তিতে আদালত সন্ডারস হত্যাকাণ্ডের অভিযোগে ভগৎ সিংএর ফাঁসির আদেশ দেয়।
 
জানা যায়, ভগত সিংএর পক্ষের সাড়ে ৪০০ স্বাক্ষীর একজনকেও ঘটনা বর্ণনা করার সুযোগ দেয়া হয়নি এবং ভগৎ সিংএর উকিলকেও অভিযোগকারীকে কোন প্রকার প্রশ্ন করার সুযোগ দেয়া হয়নি।
 
প্রত্যক্ষদর্শীর বর্ণনামতে হত্যাকারী দেখতে ‘হিন্দুর’ মত ছিল, তার মাথায় ছিল ‘খ্রিস্টানদের’ মত টুপি। নাকের নিচে ছোট করে ছাঁটা গোঁফও ছিল, যেসবের বর্ণনা ভগৎ সিংএর চেহারার সঙ্গে মিলে যায় বটে, কিন্তু হত্যাকারী যে ভগৎ সিং স্বয়ং, তা দ্ব্যর্থহীনভাবে প্রমাণিত হয় না।
   
পরবর্তীতে ভগৎ সিংএর পক্ষ থেকে প্রাণভিক্ষা চেয়ে আবেদনও আদালতে অনুমোদিত হয়নি।
 
এ সমস্ত তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে কোরেশি প্রমাণ করতে সচেষ্ট হন, ভগৎ সিং নির্দোষ ছিলেন।
 
তৎকালে মোহনদাস করমচাঁদ গান্ধি ভগৎ সিংএর এরূপ ‘সন্ত্রাসী’ কর্মকাণ্ডের নিন্দা জানালেও জওহরলাল নেহেরু তার পক্ষে এক প্রশংসাসূচক বিবৃতি দিয়েছিলেন।
 
লাহোরের উচ্চ আদালত মামলাটি নিষ্পত্তির জন্যে প্রধান বিচারপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে।

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে