Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২১ জানুয়ারি, ২০২০ , ৭ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (50 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৫-০৪-২০১৪

গণহত্যার প্রতিবাদে উত্তাল আসাম মুখ্যমন্ত্রী না আসলে দাফন নয়

গণহত্যার প্রতিবাদে উত্তাল আসাম মুখ্যমন্ত্রী না আসলে দাফন নয়

গৌহাটি, ০৪ মে- উগ্র বোড়ো সন্ত্রাসীদের গুলিতে ৩৫ জন মুসলমান নিহত হওয়ার প্রতিবাদে উত্তাল হয়ে উঠেছে আসাম। রোববার সারা আসামে প্রতিবাদ বিক্ষোভ, রেল অবরোধ, বেশ কয়েকটি জেলায় হরতাল ও কালো দিবস পালিত হচ্ছে। এসব কর্মসূচিতে পোড়ানো হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী তরুন গগৈ ও বড়ো নেতা হাগ্রামা ও বিপিএফ নেত্রী প্রমীলারানি ব্রক্ষ্মের কুশপুতুল পোড়ানো হয়েছে।

এদিকে বাকসা জেলায় রোববার বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয়রা। তারা সন্ত্রাস কবলিত এলাকায় মুখ্যমন্ত্রী তরুণ গগৈকে সফর করার অনুরোধ জানিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী না আসা পর্যন্ত নিহতদের দাফন করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে তারা।

বৃহস্পতিবার রাতে শুরু হওয়া সাম্প্রদায়িক হামলায় এ পর্য়ন্ত ৩৫ জন সংখ্যালঘু মুসলিম নিহত হয়েছে। এখনো ২২ জন মুসলমান নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে।

পরিস্থিতি সামাল দিতে বাকসা, কোকরাঝাড়, চিরাং জেলা ও ধুবড়ি-বরপেটা-উদালগুড়ি জেলার কিছু অংশেজুড়ে অনির্দিষ্টকালের জন্য কারফিউ জারি করা হয়েছে। চলছে সেনাবাহিনীর টহল। বাকসায় সন্ত্রাসীদের দেখামাত্র গুলি করার নির্দেশ জারি করা হয়েছে।   

বোড়োভূমির হত্যার কারণ খুঁজতে জাতীয় তদন্ত সংস্থাকে (এনআইএ) দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। কিন্তু রাজ্যের মানুষকে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থতার অভিযোগ উঠেছে তরুণ গগৈ সরকারের দিকে। গগৈর পদত্যাগের দাবিও উঠেছে। তবে, আসামের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিয়েছেন, তিনি পদত্যাগ করবেন না। কারণ দায়িত্ব ছেড়ে পালাতে তিনি রাজি নন।

আসাম রাজ্য সরকারের দাবি, বোড়োভূমিতে হত্যার পেছনে রয়েছে বোড়ো জঙ্গি সংগঠন এনডিএফবি (সংবিজিত)। কিন্তু এনডিএফবি গোষ্ঠীর প্রচার সম্পাদক এন ইসারা এক বিবৃতিতে বলেছেন, বোড়োভূমির হত্যায় তারা জড়িত নয়। তাদের অভিযোগ, শাসক জোটের প্ররোচনাতেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে।
তবে, কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী কপিল সিবালের অভিযোগ, নির্বাচনে ফায়দা তুলতে বিজেপি গোটা দেশে সাম্প্রদায়িকতার বিষ বুনেছে। তারই ফলশ্রুতি এই ধরনের সংঘর্ষ। তার অভিযোগ, “বিজেপি নেতারা আসামে উত্তেজনা ছড়াচ্ছেন। এ জন্য জাল ছবি ব্যবহার করা হচ্ছে।”
 
এদিকে, আসামে সহিংসতার জন্য নরেন্দ্র মোদীকে দায়ী করেছেন জম্মু ও কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ। মোদীর উস্কানিমূলক মন্তব্য এই পরিস্থিতির জন্য দায়ী বলে অভিযোগ করেন তিনি।

মোদী নিজে কিছু দিন আগে পশ্চিমবঙ্গে গিয়ে বাংলাদেশি অনুপ্রবেশকারী ফেরত পাঠানোর বিষয়ে কড়া মন্তব্য করেছিলেন। সে দিকেও আঙুল তুলছেন কংগ্রেস নেতৃত্ব। পাল্টা প্রশ্ন তুলছেন বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপি নেতা রবিশঙ্কর প্রসাদ শনিবার দিল্লিতে সংবাদ সম্মেলন করে প্রশ্ন তুলেছেন, আসামের সংসদ সদস্য হয়ে প্রধানমন্ত্রী কী করছেন?

প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের দপ্তর এক বিবৃতিতে এ হত্যাকাণ্ডের নিন্দা করেছে। আসামের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার আহ্বানও জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তা সত্ত্বেও কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব ও আসাম সরকার বোড়োভূমির হত্যা নিয়ে অস্বস্তি এড়াতে পারছে না।

আসাম

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে