Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ৯ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (9 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২৩-২০১২

সামরিক বাহিনীর প্রতি আস্থাশীল আওয়ামী লীগ

সামরিক বাহিনীর প্রতি আস্থাশীল আওয়ামী লীগ
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে ক্যু করে ক্ষমতায় যাওয়ার আর সুযোগ নেই। সমপ্রতি সামরিক বাহিনীর ক্যু চেষ্টার রেশ এখনও কেটে যায়নি। এ ঘটনার তদন্ত চলছে, অভিযান চলছে। তদন্ত শেষে সামরিক বাহিনীর যারা জড়িত তাদের বিচার হবে সামরিক আদালতে আর বেসামরিক কেউ জড়িত হলে সাধারণ আইনে তাদের বিচার হবে। বিচার না হওয়া পর্যন্ত এই ক্যু চেষ্টার রেশ থেকে যাবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সামরিক বাহিনীর প্রতি আস্থাশীল। এ নিয়ে সামরিক বাহিনীর যে কোন উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। এ বিষয়ে বিরোধী দলের বক্তব্য জাতিকে বিভক্ত করছে বলেও দাবি করেন তিনি। গতকাল এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রোববার ব্যর্থ সেনা ক্যু নিয়ে সরকারি দলের বক্তব্যের জবাবে বিরোধী দলের আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানোর পর গতকাল ক্ষমতাসীন দল এই সংবাদ সম্মেলন করে। আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ আশরাফ বর্তমান প্রেক্ষাপটে সামরিক জান্তাদের ভাত নেই। ক্যু করে কেউ ক্ষমতা দখল করলে আন্তর্জাতিকভাবে তা কেউ মেনে নেবে না। দেশের মানুষও তা মানবে না। ইরাক, লিবিয়া, মিশর ও সিরিয়ার উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, এসব দেশে সেনা অভ্যুত্থান বা সামরিক কায়দায় ক্ষমতা দখলকারীদের পরিণতি বিশ্ব দেখেছে। গণতন্ত্র রক্ষায় আওয়ামী লীগ জাতীয় ঐক্য চেয়েছিল দাবি করে আশরাফ বলেন, ক্যু চেষ্টা নিয়ে সরকার ও বিরোধী দল প্রতিক্রিয়া জানানোর পরও বিএনপি’র আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন এর মানে হলো জাতিকে বিভক্ত করা। দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, গণতন্ত্রের এই ক্রান্তিলগ্নে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকা প্রয়োজন। সেনাবাহিনীর সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সৈয়দ আশরাফ বলেন, ব্যর্থ সেনা ক্যু চেষ্টার ঘটনা জনসমক্ষে নিয়ে আসে সেনাবাহিনী। তারাই এ ঘটনার তদন্ত করছে। বাইরের কেউ জড়িত থাকলে তা-ও তারা খুঁজে বের করবে। তদন্ত কাজ স্বল্প দিনেও শেষ হতে পারে, আবার ছয় মাসও লাগতে পারে। এ বিষয়ে সামরিক বাহিনীর যে কোন উদ্যোগকে আমরা স্বাগত জানাই। আমরা সামরিক বাহিনীর প্রতি আস্থাশীল। তারা সত্য উদঘাটন করতে পারবে। সংবাদ সম্মেলনে সৈয়দ আশরাফ আরও বলেন, বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর কিছু উদ্ভট, অনভিপ্রেত, ভিত্তিহীন, কল্পকাহিনী প্রচার করেছেন; যা সম্পূর্ণরূপে সত্যের অপলাপ মাত্র।  জনগণের সঙ্গে আমাদেরও আকাঙ্ক্ষা ছিল দেশের নিরাপত্তা, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব, সংহতি এবং সংবিধানের সুরক্ষায় নিয়োজিত সশস্ত্র বাহিনীতে সংঘটিত সামপ্রতিক ঘটনা নিয়ে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি দায়িত্বশীল আচরণ করবে। ক্ষতিকর, অনাকাঙ্ক্ষিত রাজনৈতিক বিতর্ক থেকে বিরত থাকবে। আমরা আশা করেছিলাম, সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন, তাদের গৃহীত পদক্ষেপ এবং সরকারি ও বিরোধী দলের প্রাথমিক প্রতিক্রিয়া প্রকাশের পর এ নিয়ে আর কোন সংবাদ সম্মেলন আমাদের করতে হবে না। অথচ জনগণের আকাঙ্ক্ষার প্রতি ন্যূনতম সম্মান প্রদর্শন না করে ‘আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া’ দেয়ার নামে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে মিথ্যাচার ও হীন উদ্দেশ্যমূলক বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা করেছেন, তা মূলত সত্যকে চাপা দেয়ার ব্যর্থ প্রচেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয়।
লিখিত বক্তব্যে সৈয়দ আশরাফ বলেন, সেনাবাহিনী আমাদের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্রের উজ্জ্বল প্রতীক হিসেবে দেদীপ্যমান। আমরা আশা করি, দেশবাসীর আকাঙ্ক্ষা অনুযায়ী জাতির বৃহত্তম স্বার্থে তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথ নিষ্ঠার সঙ্গে তারা পালন করবেন। একইসঙ্গে দেশের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকা, টেলিভিশন চ্যানেল, অন্যান্য সংবাদ মাধ্যম, রাজনৈতিক দল, প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি, সংগঠন, সুশীল সমাজসহ সবার প্রতি দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনে আমাদের আন্তরিক আহ্বান থাকবে।
সংবাদ সম্মেলনে দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, ডা. দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, এডভোকেট মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ, বিএম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, দপ্তর সম্পাদক এডভোকেট আবদুল মান্নান খান, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হবিবুর রহমান সিরাজ, উপ দপ্তর সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
টকশোতে অনেকে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিচ্ছেন: সরকার উৎখাতের চেষ্টার ঘটনা নিয়ে বিভিন্ন টিভি টকশোতে আলোচকরা উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে জাতিকে বিভক্ত করছেন বলে অভিযোগ করে সৈয়দ আশরাফ বলেন, ঘটনার পর আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে ঐক্যের আহ্বান জানানো হলেও অনেকে ঐক্যে সাড়া দেয়নি। বিভিন্ন টিভি টকশোতে আলোচকরা এ বিষয়ে কল্প-কাহিনী প্রচার করে উস্কানিমূলক বক্তব্য দিয়ে পরিস্থিতিকে আরও জটিল করছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনার বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশের আগ পর্যন্ত এ বিষয়ে বক্তব্য দেয়ার বিষয়ে সতর্ক থাকা উচিত।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে