Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০ , ৭ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.9/5 (17 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২২-২০১২

যড়যন্ত্র, সাবধান থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

যড়যন্ত্র, সাবধান থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী
জয়পুরহাট, জানুয়ারি ২২ - দেশে অস্থিরতা সৃষ্টির পাঁয়তারার চলছে জানিয়ে সে বিষয়ে জনগণকে সতর্ক থাকতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  সেনা অভ্যুত্থানের একটি চেষ্টা নস্যাতের পর রোববার জয়পুরহাটে এক জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “বর্তমান সরকার যখন দুর্নীতিবিরোধী ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করেছে, তখন খালেদা জিয়া তাদের বাঁচাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন যড়যন্ত্রের জাল বিস্তার করেছে। জনগণকে এ যড়যন্ত্র সম্পর্কে সজাগ থাকতে হবে।”

শেখ হাসিনা সরকার উৎখাতে ধর্মান্ধ একদল সৈন্যের চেষ্টা নস্যাতের খবর বৃহস্পতিবার প্রকাশ করে সেনাবাহিনী।

এরপর প্রধানমন্ত্রী সরাসরি না বললেও ইঙ্গিত দেন, এই ষড়যন্ত্রের সঙ্গে বিরোধী দল জড়িত রয়েছে। তবে বিএনপি এরসঙ্গে কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতার খবর নাকচ করে এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত এবং তা প্রকাশের দাবি জানিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে বিগত চারদলীয় জোট সরকারের সমালোচনা করে বলেন, “তারা ক্ষমতায় থেকে দেশে জঙ্গিবাদের জন্ম দিয়েছিল। লুটপাট, সন্ত্রাস রাহাজানি ছিল তাদের সরকারের সাফল্য।”

বিরোধীদলীয় নেতার দুই ছেলের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, “তার দুই সন্তান দুর্নীতি করে এখন তার বিচারের সম্মুখীন। তাই লুটপাট আর দুর্নীতিই হলো বিএনপির সরকার।”

বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন পদক্ষেপ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা ক্ষমতায় এসে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়ন করেছি। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মূল্য স্থিতিশীল রেখেছি।”

“দেশের জনগণ ভালো থাকলে উনার (খালেদা জিয়া) ভালো লাগে না। দেশের মানুষ শান্তিতে থাকলে তার অশান্তি বাড়ে । তিনি সাজগোজ নিয়েই ব্যস্ত,” বিএনপি চেয়ারপারসনকে উদ্দেশ্য করে বলেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সামসুল আলম দুদুর সভাপতিত্বে জনসভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, কেন্দ্রীয় নেতা মোহাম্মদ নাসিম, আব্দুল জলিল, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনসহ স্থানীয় নেতারা।

সার্কিট হাউজ মাঠে জনসভার আগে প্রধানমন্ত্রী জয়পুরহাটে কয়েকটি প্রকল্প উদ্বোধন করেন। এর মধ্যে রয়েছে দেশের প্রথম খনি, খনিজ ও ধাতব বিষয়ক গবেষণা প্রতিষ্ঠান ‘ইনস্টিটিউট অব মাইনিং মিনারেলজি অ্যান্ড মেটালার্জি (আইএমএমএম)’ উদ্বোধন।

এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “দেশে অনেক খনিজ সম্পদ লুকিয়ে রয়েছে। বিএনপি জোট সরকার এ সবের কোন পদক্ষেপ নেয়নি। বর্তমান সরকার দেশেকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।”

“শুধু খনিজ সম্পদ উত্তোলন করলেই হবে না তা যথাযথকাজে লাগানোর জন্য কলকারখানা তৈরি করতে হবে। খনিজ সম্পদ আহরণের সময় লক্ষ্য রাখতে হবে যাতে করে জনগণের কোনো ক্ষতি না হয়,” বলেন শেখ হাসিনা।

এরপর প্রধানমন্ত্রী জয়পুরহাট বিচার বিভাগীয় হাকিম আদালত ভবন, জয়পুরহাট যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স এবং কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ভিত্তি স্থাপন করেন।

জেলার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়ও করেন তিনি।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে