Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 4.0/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৪-১৯-২০১৪

নদীর মালিকানা ভারতের একার নয়

নদীর মালিকানা ভারতের একার নয়

বগুড়া, ১৯ এপ্রিল- বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পাটির (সিপিবি) সভাপতি কমরেড মঞ্জুরুল আহসান খান বলেছেন, বাংলাদেশকে বরাবরই পানির হিস্যা থেকে বঞ্চিত করছে ভারত।

আর তা সম্ভব হচ্ছে সরকারের নতজানু নীতির কারণে। যে কারণে স্বাধীনতার ৪৩ বছর পরও নদীর পানির ন্যয্য হিস্যা বাংলাদেশ পায়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, ভারতের কাছ থেকে অধিকার আদায় করতে নতজানু পররাষ্ট্র নীতি পরিহার করতে হবে। যেহেতু নদী বাংলাদেশের প্রাণ, সেহেতু সরকারকে সাহস নিয়ে ভারতের সঙ্গে কথা বলতে হবে। প্রয়োজনে আন্তর্জাতিক সহযোগিতা নিতে হবে।

শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে শহরের সাতমাথায় শুরু হওয়া ১৭-১৯ এপ্রিল তিস্তা মার্চ সফল করার লক্ষ্যে আয়োজিত সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।  

একই সমাবেশে বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান বলেন, আন্তর্জাতিক নদীর মালিকানা ভারতের একার নয়। কোনোভাবেই ভারত এক তরফাভাবে নদীর পানি প্রত্যাহার করতে পারেনা, করার অধিকার রাখে না। ভারতের এক তরফাভাবে পানি প্রত্যাহার এবং ফারাক্কা ও টিপাইমুখ প্রকল্প, আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্প নদী সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থি ও সম্পূরণ মানবতা বিরোধী। ভারত বন্ধুত্ব চায়না, চায় এক তরফা তিস্তা নদীর পানি, তাই তারা এমন আচরণ করছে। কিন্তু নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা বাদ দিয়ে ভারতের সঙ্গে কোনো রকম বন্ধুত্ব নয় বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সিপিবির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর তার বলেন, তিস্তা বাংলাদেশের চতুর্থ বৃহত্তম নদী। ৩১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই নদীর ১১৫ কিলোমিটার বাংলাদেশের ভেতর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে। শুস্ক মৌসুমে যেখানে ১৪ হাজার কিউসেক পানি প্রবাহিত হতো এই নদীতে, আজ সেখানে মাত্র ৫০০ কিউসেক পানিও প্রবাহিত হচ্ছে না। এতে নদী শুকিয়ে ধুধু মরুভূমিতে পরিণত হচ্ছে এটি। তাই দেশের স্বার্থে তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যা দাবি জানাচ্ছি।

সিপিবি ও বাসদ বগুড়া জেলা শাখার যৌথ উদ্দোগে আয়োজিত এবং সিপিবি-বাসদ ঐক্যের নেতা বগুড়া জেলা বাসদের সভাপতি অ্যাডভোকেট সাইফুল ইসলাম পল্টুর সভাপতিত্বে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড বজলুর রশিদ ফিরোজ, রাজেক্কুজ্জামান রতন, সিপিবি নেতা কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্স, জলী তালূকদার, বগুড়া জেলা সিপিবির সভাপতি জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, সাধারণ সম্পাদক দুলাল কুণ্ডুসহ অনেকে উপিস্থত ছিলেন।

সমাবেশ শুরুর আগে দলীয় পতাকা ও ফেস্টুন নিয়ে উভয়দলের একটি মিছিল শহর প্রদক্ষিণ করে।              

 

বগুড়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে