Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (32 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৪-১৭-২০১৪

বরিশালে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে র‌্যাব-পুলিশের সংঘর্ষ, আহত ২০

বরিশালে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে র‌্যাব-পুলিশের সংঘর্ষ, আহত ২০

বরিশাল, ১৭ এপ্রিল- বাসশ্রমিকদের হামলায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী আহত হন। এর প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা ঢাকা-বরিশাল মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ করেন। ছাত্র-পুলিশ সংঘর্ষে আহত এক ছাত্রকে হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। ছবি: ফোকাস বাংলাবরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে বাসশ্রমিকেরা এক শিক্ষার্থীকে লাঞ্ছিত করার ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় পুলিশ ও র‌্যাবের সঙ্গে কয়েক দফায় শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে পুলিশসহ ২০ জন আহত হন।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ক্যাম্পাস কর্ণকাঠি এলাকায় ঢাকা-বরিশাল-কুয়াকাটা মহাসড়কে এ ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষে আহত পাঁচজন শিক্ষার্থীকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাস থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটে নামানোর সময় আইন বিভাগের শিক্ষার্থী মো. সাখাওয়াত হোসেনের সঙ্গে বাসশ্রমিকের কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে বাসশ্রমিক ওই শিক্ষার্থীকে ধাক্কা মেরে বাস থেকে ফেলে দেন। এ সংবাদ বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা বরিশাল-ঢাকা-কুয়াকাটা সড়কে ইট দিয়ে অবরোধ করেন। এ সময় সড়কের দুই পাশে গাড়ির জট লেগে যায়। শিক্ষার্থীরা গাড়ি ভাঙচুরের চেষ্টা চালান। এ সময় র‌্যাব ও পুলিশ তাঁদের প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলে দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ গুলি ও কাঁদানে গ্যাসের শেল ছোড়ে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের উপপুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) গোলাম রউফ প্রতিবেদককে বলেন, বাসশ্রমিকদের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের বচসা হয়। ওই ঘটনার জের ধরে তাঁরা সড়ক অবরোধ করেন। এ সময় পুলিশ অবরোধ তুলে দিতে চাইলে শিক্ষার্থীরা র‌্যাব ও পুলিশের ওপর চড়াও হন। এ সময় শিক্ষার্থীদের ছোড়া ইটে র্যাবের একজন সদস্য মাথায় আঘাত পান ও পুলিশের একজন সদস্যের হাতের আঙুল থেঁতলে যায়। এ ছাড়া পুলিশের আরও ছয়জন সদস্য আহত হয়েছেন। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ৩৭টি শটগানের গুলি এবং সাত রাউন্ড কাঁদানে গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের শিক্ষক মো. শফিউল আলম প্রতিবেদককে বলেন, গতকাল বুধবার পরিবহন শ্রমিকেরা রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে লাঞ্ছিত করেন। এ ঘটনার পর বাস মালিক-শ্রমিক এবং পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠক করে সমঝোতা হয়। সেখানে পরিবহনগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অর্ধেক ভাড়া নেবে এবং  শিক্ষার্থীদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল গেটে নামিয়ে দেবে বলে সমঝোতা হয়। আজ একটি বাস বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের এক শিক্ষার্থীকে মূল গেটে না নামিয়ে অনেক দূরে নিয়ে যায়। পরে তাকে ধাক্কা দিয়ে গাড়ি থেকে ফেলে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় শিক্ষার্থীরা উত্তেজিত হয়ে সড়ক অবরোধ করে। পরে র‌্যাব-পুলিশ ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষক তানভীর কায়সার প্রতিবেদককে বলেন, বাসশ্রমিকেরা শিক্ষার্থী এবং শিক্ষকদের সঙ্গেও খারাপ আচরণ করছে। এ ব্যাপারে বৈঠক করেও কোনো ফল হয়নি।

ক্যাম্পাসে দুপুর সাড়ে ১২টার মধ্যে পরিস্থিতি শান্ত হয়েছে। একটার দিকে ক্যাম্পাসে  বাস মালিক ও বাসশ্রমিকদের বৈঠক হয়েছে।

 

বরিশাল

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে