Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২০ জানুয়ারি, ২০২০ , ৭ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.5/5 (25 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৪-১১-২০১৪

দুবাই তাজমহল উদ্বোধন ২০১৫ সালে

দুবাই তাজমহল উদ্বোধন ২০১৫ সালে

দুবাই, ১১ এপ্রিল- নির্ধারিত সময়ের চেয়ে এক বছরেরও বেশি সময় পিছিয়ে দেয়া হয়েছে দুবাইয়ে তাজমহলের প্রতিরূপ তাজ অ্যারাবিয়ার উদ্বোধন। ২০১৪ সালের শেষার্ধে এটি উদ্বোধনের পরিকল্পনা ছিল উদ্যোক্তাদের।

কয়েকজন সাব-ডেভেলপার কাজ সমাপ্ত করতে না পারায় তাজ অ্যারাবিয়া উদ্বোধন করতে কমপক্ষে ২০১৫ সালের শেষ নাগাদ অপেক্ষা করতে হবে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। খবর অ্যারাবিয়ান বিজনেসের।

আগ্রার মূল তাজমহলের তুলনায় নতুন তাজমহলটি চার গুণ বড় করে তৈরির পরিকল্পনা করেছে দুবাই। বিশ্বের বিভিন্ন আশ্চর্য স্থাপনার প্রতিরূপ-সংবলিত একটি দর্শনীয় পর্যটনপল্লী ফ্যালকন সিটি অব ওয়ান্ডার্স নির্মাণের কাজ চলছে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইয়ে। প্যারিসের আইফেল টাওয়ার, ব্যাবিলনের ঝুলন্ত উদ্যান কিংবা মিসরের পিরামিডের মতো দর্শনীয় স্থাপনাগুলোর প্রতিরূপ এতে স্থান পাবে।

সেই সঙ্গে এখানে থাকবে তাজ অ্যারাবিয়ার একটি পাঁচ তারকা হোটেল। এটিতে চার শতাধিক কক্ষ থাকবে। ভারতভিত্তিক হোটেল, রিসোর্ট ব্যবসায়ী গ্রুপ লীলা প্যালেসেস থাকবে এর ব্যবস্থাপনায়।

মূল সংস্থা ফ্যালকন সিটির অধীনে তাজের এ প্রকল্পটি সাব-ডেভেলপার প্রতিষ্ঠান হিসেবে বাস্তবায়ন করছে লিংক গ্লোবাল। ব্যাপক পরিসরে এ কাজ চলার কথা থাকলেও কিছু কারণে এটি নির্ধারিত সময়ের তুলনায় পিছিয়ে রয়েছে।

গত বুধবার ফ্যালকন সিটি কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানায়, ২০১৫ সালের শুরু থেকে পর্যায়ক্রমে উদ্বোধন করা হবে তাদের স্থাপনাগুলো। কিছু কিছু সাব-ডেভেলপার কাজ শেষ করতে না পারায় প্রকল্পের মেয়াদ বাড়াতে হচ্ছে তাদের। অবশ্য কাজ দ্রুত এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা চলছে। দুবাইয়ে তাজমহলের প্রতিরূপ তৈরির উদ্যোগটি অবশ্য এর আগেও বিভিন্ন সমস্যায় পড়েছিল।

ভারতীয় সংস্কৃতি কর্মকর্তারা এর আগে অভিযোগ করেছিলেন, বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পাওয়া মূল তাজমহলের বিকৃত উপস্থাপনা হবে ফ্যালকন সিটির পরিকল্পিত তাজে। আর এটি কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এতে মূল তাজমহল থেকে মানুষের দৃষ্টি সরে যেতে পারে।

আগ্রার সাবেক জনপ্রতিনিধি সতীশ চন্দ্র গুপ্ত ভারতের আইএএনএস বার্তা সংস্থাকে দেয়া সাক্ষাত্কারে বলেন, “পেটেন্টের দৃষ্টিকোন থেকে দেখলে তাজের এ প্রতিরূপটি করা ঠিক হবে না। এভাবে ঐতিহাসিক স্থাপনাগুলোকে বিকৃতভাবে নকল করার কোনো মানে হয় না। ২০০৫ সালে নির্মাণকাজ শুরু হয় চার কোটি বর্গফুটের ফ্যালকন সিটি অব ওয়ান্ডার্সের। পর্যায়ক্রমে বিশ্বের সপ্তাশ্চর্যসহ আকর্ষণীয় আরো অনেক স্থাপনার নকল বসানোর পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেন এর উদ্যোক্তারা।”

তিনি বলেন, “পাশাপাশি থিম পার্ক ও খুচরো বিপণিবিতানের পরিকল্পনা যুক্ত হয় বিশালায়তন এ পর্যটনপল্লীতে। এখন পর্যন্ত ৩০০’র মতো ভিলা, বিদ্যুৎ সাবস্টেশন ও পয়োনিষ্কাশন প্লান্ট স্থাপনের কাজ সম্পন্ন হয়েছে।”

পুরো পরিকল্পনাটি বাস্তবায়নে আরো সাত থেকে ১০ বছর সময় লেগে যাবে বলে জানিয়েছে উদ্যোক্তা প্রতিষ্ঠানটি।

মধ্যপ্রাচ্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে