Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০ , ১১ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (20 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৪-০৪-২০১৪

বিদেশী পতাকা বহনে নিষেধাজ্ঞা: দর্শকরা কী বলেন?

বিদেশী পতাকা বহনে নিষেধাজ্ঞা: দর্শকরা কী বলেন?

ঢাকা, ০৪ এপ্রিল- বাংলাদেশের ক্রিকেট দর্শকরা নিজের দেশের পরেই সবচেয়ে বেশি সমর্থন করেন ভারত ও পাকিস্তান। ফলে দেখা যায়, এ দুটি দেশের খেলা যখন চলে, তখন বাংলাদেশের বহু দর্শক ভারত-পাকিস্তানের পতাকা নিয়ে মাঠে যান।কিন্তু সরকার সম্প্রতি একটি নির্দেশনা জারি করেছে যে, বাংলাদেশী কোনো নাগরিক বিদেশী পতাকা নিয়ে মাঠে যেতে পারবেন না। তবে অন্য দেশের নাগরিকরা তাদের নিজেদের দেশের পতাকা নিয়ে ঢুকতে পারবেন।

এরকম একটি সিদ্ধান্তকে কীভাবে দেখছেন খেলা দেখতে আসা দর্শকরা?

তারা বলছেন, সরকারের এই সিদ্ধান্তটি ভালো। কারণ আগে নিজের দেশ, তারপর অন্য দেশ। তারা মনে করেন, বাংলাদেশের জাতীয় পতাকার মর্যাদা রক্ষায় এটি একটি ভালো উদ্যোগ।

স্টেডিয়ামের সামনে একজন পতাকা বিক্রেতা অবশ্য বললেন, সরকারের এই সিদ্ধান্ত তাদের মতো পতাকা বিক্রেতাদের জন্য কিছুটা অসুবিধার সৃষ্টি করেছে। কারণ এখন তাদের বিদেশী পতাকা বিক্রি কমে যাবে।

অবশ্য সরকারের এই সিদ্ধান্তে বেশ ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়াও জানিয়েছেন কেউ কেউ। তারা মনে করেন, ক্রিকেটের মূল দিকটি হচ্ছে খেলোয়াড়ি চেতনা। ফলে এর সঙ্গে রাজনীতি বা আইন-কানুনের বিষয় জড়িত থাকলেও অনেক সময় খেলার উচ্ছ্বাসই সেখানে প্রাধান্য পায়।

একজন বললেন, “আমি শহীদ আফ্রিদিকে ভালোবাসি, আমি পাকিস্তানের পতাকা নিয়ে যেতেই পারি। আমি বিরাট কোহলিকে ভালোবাসি, ভারতের পতাকা নিয়ে আমি যেতেই পারি। এখানে রাজনীতির কী আছে?”

সম্প্রতি বাংলাদেশী কিছু ক্রিকেটভক্ত পাকিস্তানি দলের সমর্থনে সেদেশের পতাকা প্রদর্শন করার পর তা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যেমন ফেসবুকে বেশ বিতর্কের জন্ম দেয়। মূলত এ ঘটনার পরই সরকারের তরফে এরকম নির্দেশনা এলো বলে মনে করা হচ্ছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড-বিসিবির নিরাপত্তা কমিটির চেয়ারম্যান মনজুর কাদেরও সেরকমটিই মনে করেন।

তিনি বলেন, “সত্যি বলতে কী, আমাদের দেশের মানুষের পাকিস্তানের প্রতি একটা বিদ্বেষ আছে। আমার নিজেরও আছে। কারণ আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা। ফলে আমরা যখন দেখি বাংলাদেশের কোনো মেয়ে গালে পাকিস্তানের পতাকা একে গ্যালারিতে উচ্ছ্বাস করে, সেটা খুবই লজ্জাজনক।”

বাংলাদেশে জাতীয পতাকা ব্যবহার নিয়ে যে আইন রয়েছে, সেখানে পতাকা ব্যবহারের নিয়ম কানুন সম্পর্কে বিস্তারিত উল্লেখ আছে। এমনকি কেউ যদি জাতীয় পতাকা ঠিকমতো ব্যবহার না করে, সেক্ষেত্রে শাস্তিরও বিধান রয়েছে।

কিন্তু বিদেশী পতাকার ব্যবহার নিয়ে ওই আইনে কিছু উল্লেখ নেই।

আইন-কানুন নিয়ে গণমাধ্যমে নিয়মিত লেখালেখি এবং আলোচনা করেন বাংলাদেশের একজন আইনজীবী ব্যারিস্টার তানজীব উল-ইসলাম।

তিনি বলছেন, “বিদেশী পতাকা নিয়ে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করা যাবে না বলে বিসিবি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, সেটির সঙ্গে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা আইনের কোনো সম্পর্ক নেই। কারণ এই সিদ্ধান্তটি তারা নিয়েছে তাদের নিজস্ব এখতিয়ারে।”

তিনি বলেন, “স্টেডিয়ামটির মালিক বিসিবি। তারা এখানে যেকোনো শর্ত দিতে পারে। যেমন টিকেটের পেছনে লেখা আছে গ্যালারিতে ধূমপান করা যাবে না। এরকমই একটা শর্ত যে, বাংলাদেশী নাগরিকরা বিদেশী পতাকা বহন করতে পারবেন না। এই শর্ত আরোপের ক্ষমতা বা এখতিয়ার বিসিবির আছে।”

কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হতে যাচ্ছে ফুটবল বিশ্বকাপ। অতীতে বিশ্বকাপ ফুটবলের সময় দেখা গেছে, তখন আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলের পতাকায় সারা বাংলাদেশ ছেয়ে যায়।

কিন্তু স্টেডিয়ামে বিদেশী পতাকা নিয়ে ঢোকা যাবে না বলে যে নির্দেশনা সরকার দিয়েছে, তার ফলে ফুটবল বিশ্বকাপ শুরুর পরে বাড়ির ছাদে বিদেশী পতাকা ওড়ানো যাবে কি না-এখন সেই প্রশ্নও তুলেছেন কেউ কেউ।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে