Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২৬ জুন, ২০১৯ , ১২ আষাঢ় ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.5/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১৫-২০১২

আজ আখেরি মোনাজাত, দ্বিতীয় পর্ব শুরু ২০ জানুয়ারি

আজ আখেরি মোনাজাত, দ্বিতীয় পর্ব শুরু ২০ জানুয়ারি
আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হচ্ছে আজ। মাঝে চার দিন বিরতি দিয়ে ২০ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে দ্বিতীয় পর্ব। আখেরি মোনাজাতে ধনী-গরিবের স্রোত এক হয়ে মিশেছে ইজতেমা মাঠে।
টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার ময়দানের দিকে গতকাল শনিবার রাত থেকেই শুরু হয় মানুষের স্রোত। আজ রোববার ভোর থেকেই লাখ লাখ মুসল্লি হেঁটে ইজতেমা মাঠের দিকে আসতে থাকায় মানুষ বাড়ছে আরও কয়েকগুণ।
ইজতেমা মাঠ পেরিয়ে মানুষের ভিড় আশপাশের সড়ক, অলিগলিসহ আশপাশের বাসা বাড়ির ছাদে ছড়িয়ে পড়েছে। মুসলমানদের কাছে ইজতেমার আখেরি মোনাজাতের গুরুত্ব অপরিসীম। সবার একটাই উদ্দেশ্য আখেরী মোনাজাতে শরিক হওয়া।
মোনাজাতে অংশ নিতে এসেছেন নারী-পুরুষ, বৃদ্ধ-যুবক, কিশোর-শিশু। সবার লক্ষ একটাই, গুনাহ থেকে মুক্তি, স্বজনদের জন্য শান্তি, সর্বোপরি সারা বিশ্বের মানুষের শান্তি-সমৃদ্ধি কামনা করে সৃষ্টিকর্তার কাছে দোয়া করা।

মোনাজাতে অংশ নেবেন রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেত্রী: দোয়া মঞ্চের পাশে রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান ও সাবেক রাষ্ট্রপতি হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, টঙ্গীর বাটা সু ফ্যাক্টরির ছাদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং হোন্ডা (এটলাস) কারখানার ছাদে বিশেষভাবে তৈরি মঞ্চে বসে বিরোধীদলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আখেরি মোনাজাতে অংশ নেওয়ার কথা। গাজীপুরের পুলিশ সুপার আব্দুল বাতেন এ কথা জানিয়েছেন। তবে মুসল্লীদের ভিড় বেশি হলে প্রধানমন্ত্রী তুরাগ নদীর অপর পাড়ে উত্তরা এলাকায় পলওয়েল কারনেশন ভবনে অবস্থান নিয়ে মোনাজাতে অংশ নিতে পারেন।

কোন কোন সড়ক বন্ধ থাকবে: পুলিশ সদরদপ্তর থেকে জানা গেছে, আজ ভোর রাত থেকে ধৌর ব্রীজ থেকে আব্দুল্লাহপুর হয়ে প্রগতি সরণী এবং টঙ্গী ব্রীজ থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত (বিমানযাত্রী, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া) সকল যানবাহন বন্ধ থাকবে। ঘোড়াশাল থেকে পুবাইল-কালীগঞ্জ হয়ে আগত যানবাহন টঙ্গী রেলওয়ে ষ্টেশনের পূর্বে মরকুন (কে-২) পর্যন্ত চলাচল করতে পারবে। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক থেকে ঘোড়াশাল হয়ে ঢাকাগামী যানবাহন কাঁচপুর/যাত্রাবাড়ি সড়ক ব্যবহার করবেন।
ইজতেমায় গমনেচ্ছুক মুসল্লি, উত্তরার অধিবাসী, বিমানযাত্রী, ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্স ছাড়া অন্য সকল যানবাহনের চালকদের বিমান বন্দর সড়কের পরিবর্তে মিরপুর-সাভার সড়ক ব্যবহার করতে বলা হয়েছে।
ঢাকা মহনগরের যে সকল মুসল্লি পায়ে হেঁটে ইজতেমাস্থলে যাবেন তাদের শাহজালাল বিমানবন্দর গোলচত্বর আজমপুর-আব্দুল্লাহপুর হয়ে টঙ্গী ব্রীজ পরিহার করে তুরাগ নদীর উপর নির্মিত বেইলী ব্রীজ অথবা কামারপাড়া ব্রীজ ব্যবহার করতে হবে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে