Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২৫ মে, ২০১৯ , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.2/5 (12 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৩-১৮-২০১৪

আরো ৪টি নৌ-বন্দর স্থাপনের পরিকল্পনা

আরো ৪টি নৌ-বন্দর স্থাপনের পরিকল্পনা

ঢাকা, ১৮ মার্চ- দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যর প্রসার ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষ্যে দেশের ভেতরে নতুন আরো ৪টি নৌ-বন্দর স্থাপনের পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে বলে জানিয়েছেন নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।

মঙ্গলবার দশম জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশনে সংসদ সদস্য মো. তাজুল ইসলামের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী বলেন, ‘কক্সবাজার জেলার টেকনাফ, নরসিংদী জেলার ঘোড়াশাল, কিশোরগঞ্জের চাচড়া এবং ফরিদপুরের সিএন্ডবিতে এ নৌ-বন্দর স্থাপন করা হবে।’

উল্লেখ্য, বিআইডব্লিউটিএ’র নিয়ন্ত্রেণে সারাদেশে ২২টি নৌ-বন্দর রয়েছে। তার মধ্যে ২০০৪ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত ১০টি নদী বন্দর পুরাতন আর ২০১০ সাল থেকে ২০১১ সালে ১২টি নদী বন্দর প্রতিষ্ঠা করা হয়।

আরেক সংসদ সদস্য এনামুল হকের প্রশ্নের জবাবে শাজাহান খান বলেন, ‘নদীপথের ড্রেজিং ব্যবস্থাকে উন্নত করার জন্য নৌ-পরিবহন মন্ত্রাণালয়ের অধীনে বিআইডব্লিউটিএ বেশকিছু কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে মাদারীপুর-চরমুগুরিয়া-টেকেরহাট-গোপালগঞ্জ নৌ পথ খনন প্রকল্প; ১২টি গুরুত্বপূর্ণ নৌ পথ খনন; অভ্যন্তরীণ নৌ পথের ৫৩টি রুটে ক্যাপিটাল ড্রেজিং (প্রথম পর্যায়ে ২৪টি নৌ পথ) প্রকল্প; অভ্যন্তরীণ নৌ পথের নাব্যতা রক্ষার্থে ড্রেজার, ক্রেনবোট, ক্রু–হাউজবোট টাগবোটসহ আনুষঙ্গিক সংগ্রহ প্রকল্প।’

মন্ত্রী বলেন, ‘এছাড়া নৌ পথের দুর্ঘটনা রোধে বেশকিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। যেমন- ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন করলে ওই নৌযানকে বন্দর ত্যাগ করতে দেয়া হয় না। প্রতিটি লঞ্চ বন্দর ত্যাগের আগে ভয়েজ ডিক্লারেশন বাধ্যতামূলক প্রদান করা হয়েছে। ক্রটিপূর্ণ লঞ্চ বা স্টিমার সনাক্তকরণে কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে এবং ক্রটিপূর্ণ লঞ্চ স্ত্র্যাপ করে দেয়াসহ বেশকিছু পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।’

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে