Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৭ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০৩-১৪-২০১৪

হাইকমান্ডকে বোকা বানালেন খোকা

খালিদ হোসেন


হাইকমান্ডকে বোকা বানালেন খোকা

ঢাকা, ১৪ মার্চ- দলের কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকা প্রকাশ্যে নগর দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেয়ায় অস্বস্তিতে ভুগছেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা।

বুধবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে গণমাধ্যমকর্মীদের সামনে বিব্রতকর পরস্থিতিতে পড়েছিলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

খোকার বক্তব্য প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি আমার জায়গা থেকে দায়িত্ব জ্ঞানহীন কাজ করতে পারি না। আমি তার বক্তব্য এখনো শুনিনি। বক্তব্য শোনার পর ফোরামে আলোচনা করে প্রতিক্রিয়া জানাবো।’

সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরাম জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য লে. জে. (অব.) মাহাবুবুর রহমান বলেছেন, ‘ তিনি অভিমান করেছেন। তার এই ঘোষণায় আমি অবাক হয়েছি। তিনি বিষয়টি নিয়ে চেয়ারপারসনের সঙ্গে কথা বলতে পারতেন।’

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘দলীয় ফোরামের বাইরে গিয়ে প্রকাশে গণমাধ্যমে পদ থেকে অব্যহতি নেয়ার বিষয়টি আমার বোধগম্য নয়।’

তবে বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা যায়,  বহিষ্কার পরিণতি আঁচ করতে পেরেই সাদেক হোসেন খোকা এই ঘোষণা দিয়েছে।

মহানগরের একজন নেতা বলেছেন, ‘কমিটি গঠনের পর একবার আর অব্যহতি নেয়ার মাধ্যমে সাদেক হোসেন খোকা মাত্র দুইবার নগর কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তার রাজনীতিতে নাটকীয়তা রয়েছে। এর আগে  দা-কুড়াল তত্ত্ব দিয়ে তিনি গা ঢাকা দিয়েছিলেন।’
 
অন্য একটি সূত্র জানায়, ঢাকা মহানগরের নেতৃত্ব নিয়ে কেন্দ্রের প্রভাবশালী নেতারা যারা সাদেক হোসেন খোকা ও আব্দুস সালামের নেতৃত্ব নিয়ে সমালোচনা করেছেন। পদ থেকে অব্যহতি নেয়ার ঘোষণা এটা হলো তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ।

প্রায় দেড় যুগ ধরে ঢাকা মহানগর কমিটির নেতৃত্বে থাকা সাদেক হোসেন খোকা অবশ্য তার সংবাদ সম্মেলনে জানান,  খালেদা জিয়াকে তিনি আগে থেকেই এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আন্দোলনের পরিণতি নিয়ে দলের ভেতর নানারকম দোষারোপ পাল্টা দোষারোপ চলছে। এ কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস এবং সাদেক হোসেন খোকা এই দুই জনের আধিপত্য রয়েছে ঢাকা মহানগর কমিটিতে। সে ক্ষেত্রে দুজনের পারস্পারিক সম্পর্ক দ্বি-মুখী। সার্বিক কারণে ঢাকা মহানগর কমিটি পূর্ণাঙ্গতা পায়নি।

গত ৯ তারিখে স্থায়ী কমিটির বৈঠকে ঢাকা মহানগর কমিটি পুনর্গঠনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়। খালেদা জিয়া নগর কমিটি গোছানোর দায়িত্ব আ স ম হান্নান শাহকে  নিতে বলেছেন। কিন্তু হান্নান শাহ এ ব্যাপারে গড়িমসি করছেন।

স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন গ্রেপ্তার হওয়ার কিছু সময় আগে বলেছিলেন, ‘মহানগর কমিটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।’

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে