Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ৭ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১৩-২০১২

ত্রিপুরার চোখে শেখ হাসিনা

ত্রিপুরার চোখে শেখ হাসিনা
উপমহাদেশের অন্যতম প্রাচীন, জনঘনিষ্ঠ ও সাংগঠনিকভাবে আ-তৃণমূল বিস্তৃত রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। নানামুখী বাধা আর প্রতিকূল পরিবেশে দীর্ঘ ৩০ বছর যাবৎ এ দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তিনি।
 
এভাবেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করা হয়েছে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের প্রভাবশালী ‘দৈনিক সংবাদ’-এ। প্রধানমান্ত্রী  রাজ্যটিতে দুদিনের সফর শেষ করে দেশে ফিরেছেন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায়।
 
দৈনিকটির বৃহস্পতিবারের একটি প্রতিবেদনে আরো লেখা হয়েছে:
 
গত ২৮ সেপ্টেম্বর ছিল তার ৬৪তম জন্মজয়ন্তী। বর্তমানে বাংলাদেশের দ্বিতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতাসীন মহাজোট সরকারকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন।
 
শেখ হাসিনার বাবা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক শাসন-শোষণ থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্ত করতে ২২ বছর ধারাবাহিক সংগ্রাম করেছেন। বঙ্গবন্ধুর হাতে সুসংহত সংগঠন আওয়ামী লীগকে স্বাধীন বাংলাদেশের পুনর্বারক্ষমতাসীন ও বাংলাদেশে সংসদীয় গণতন্ত্রের অনুশীলন সম্ভবপর করতে ২১ বছর সংগ্রাম করতে হয়েছে শেখ হাসিনাকে।
 
শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয় তথ্য প্রযুক্তি খাতকে অগ্রাধিকারে বিবেচনার গুরুত্ব উপলব্ধিতে নেপথ্য ভূমিকা রেখেছেন। তার অপর সন্তান সায়মা হোসেন পুতুল অটিস্টিক শিশুদের পরিচর্যা ও মানসিক বিকাশের কৌশল নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করেছেন।
 
তীক্ষ্ণ মানবিকবোধসম্পন্ন মানুষ শেখ হাসিনা। দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের জন্য তার গভীর সহানুভূতি। অতি সাধারণ মানুষও তার নৈকট্য পায়, তিনি তাদের আলিঙ্গ করেন গভীর মমতায়। প্রতিবন্ধী, বয়স্ক, রুগ্নি এবং পঙ্গু অসহায়দের প্রতি তিনি অত্যন্ত অনুভূতিশীল।
 
মানুষকে আদর-আপায়্যনে ও সম্মান প্রদর্শনে অতিশয় আন্তরিক তিনি। অভ্যাগত মুরুব্বিদের হাতে ধরে দরজা পর্যন্ত বিদায় জানানো তার সহজাত সৌজন্য। বয়স্কদের রাষ্ট্রীয় বা জাতীয় সম্মাননা পরিয়ে দিতে নিজেই ছুটে যান পদকপ্রাপ্ত সুধীদের আসনের কাছে। দেশ ও দল পরিচালনার বাইরে বড়  কাজটি তিনি যত্নের সঙ্গে করে চলেছেন তা হলো, জাতির জনকের স্মৃতি সংরক্ষণ এবং সেই আদর্শে মানুষকে উদ্বুদ্ধকরণ। ছোট বোন শেখ রেহানাও তার এ কাজের সারথী।
 
নিজের অবসরে তিনি বই পড়েন, লেখালেখি করেন। গাছ, ফুল পাখি ভালোবাসেন। এদের পরিচর্যার পেছনেও সময় ব্যয় করেন। এমনকি রাম বুটান, ড্রাগন ফল, টাংফল, মিষ্টি তেতুলের মতো বিদেশী ফলের গাছ নিজের হাতে উঠানে লাগিয়ে ফলবতী করেছেন।
 
জীবনানন্দের মতো তার মধ্যে যেমন প্রকৃতিপ্রিয়তা লক্ষ্য করা যায়, তেমনি তার রসবোধও অনবদ্য, যা তার কাছে আগত মানুষকে আরো সহজ করে।
 
জীবন যাত্রায় বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা একেবারেই সাধারণ , পোশাক ও সজ্জায় আতিশায্যবহুল নয়। তিনি বাংলাদেশী তাঁতের শাড়ি পরিধান করেন। প্রধানত, জামদানি ও টাঙ্গাইল শাড়ি পড়ে থাকেন।উপলক্ষমাফিক বেনারসি, কাতান ও সিল্ক শাড়িও তাকে পরতে দেখা যায়। মনিপুরি, পাবনাই ও সুতির শাড়িও তার পরিধেয় হিসেবে দেখা যায়। তবে শাড়ি যা-ই হোক না কেন, আওয়ামী লীগের প্রতীক নৌকাসদৃশ পিন শেখ হাসিনার শৌখিনতা। এ সবকিছুই শেখ হাসিনাকে বাঙালির জীবনঘনিষ্ঠ, জনবান্ধব, আটপৌরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বিভাসিত করেছে।
 
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাসভবনে ও সংসদ অধিবেশন চলাকালে প্রতিদিনই বহু সাধারণ দর্শনার্থী তাদের সুবিধা-অসুবিধা নিয়ে আসেন। তাদের কাছে শেখ হাসিনা পড়শি বাড়ির অনেক দিনের চেনা মানুষ যেন। প্রধানমন্ত্রী অভ্যাগত সবাইকেই সাক্ষাত দেন।
 
বর্তমানে বিশ্বের প্রতিটি দেশের মতোই বাংলাদেশেও চলছে নানার ধরনে প্রতিকূল অবস্থা। কিন্তু নানা প্রতিকূলতা সত্ত্বেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তার সরকার দেশের উন্নয়ন-সমৃদ্ধির জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশের উন্নয়নকামী মানুষ শেখ হাসিনার এই নেতৃত্বের ধারাবাহিকতা চায়। অনুপম গুণাবলিতে সমৃদ্ধ, জীবনের প্রতিঘাতময় বাস্তবতায় উত্তীর্ণ, আপন লক্ষ্যে অবিচল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মানুষের সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি নিশ্চিত হবে।
 
আজ ১২ জানুয়ারি। ভারতবর্ষের স্বনামধন্য ত্রিপুরা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক বাংলাদেশের নেত্রীকে সম্মানসূচক ডি-লিট সম্মাননা দেয়ায় দুই দেশের, বিশেষ করে বাংরাদেশ ও ত্রিপুরার মানুষের মৈত্রীর বন্ধন আরো সুদৃঢ় হলো। চিরঞ্জীবী হোক বাংলাদেশ ও ভারতের বন্ধুত্ব।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে