Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০ , ১১ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.3/5 (27 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)


আপডেট : ০২-২৬-২০১৪

বিশ্বকাপ: ভাসমান মানুষের তালিকা হচ্ছে চট্টগ্রামে

বিশ্বকাপ: ভাসমান মানুষের তালিকা হচ্ছে চট্টগ্রামে

চট্টগ্রাম, ২৫ ফেব্রুয়ারী- আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে চট্টগ্রামে ভাসমান মানুষ ও ফুটপাতের হকারদের তালিকা তৈরি করছে নগর পুলিশ।

রোববার নগরীর দেওয়ানহাট এলাকায় রেললাইনের দুই পাশে বসবাসকারী ভাসমান মানুষদের তথ্য সংগ্রহের মধ্যে দিয়ে এ তালিকা তৈরির কাজ শুরু হয়েছে। এসব তথ্য পরে পুলিশের তথ্যভাণ্ডারে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের (সিএমপি) অতিরিক্ত কমিশনার (অপরাধ ও অভিযান) বনজ কুমার মজুমদার জানান।

গত ৭ ডিসেম্বর রাতে আগ্রাবাদ হোটেলের পাশে হাতবোমা বিস্ফোরণের পর নিরাপত্তাজনিত কারণে বাংলাদেশে খেলতে আসা ওয়েস্ট ইন্ডিজ যুব ক্রিকেট দল দেশে ফিরে যায়। এরপর বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন নিয়ে শঙ্কা তেরি হয়।

তাছাড়া ৫ জানুয়ারির ভোটের আগে নগরীর বিভিন্ন স্থানে ভাসমান লোকজনকে ব্যবহার করে নাশকতা ঘটানো হয় বলেও পুলিশ কর্মকর্তারা জানান।

আগামী ১৬ মার্চ ঢাকায় উদ্বোধন হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। ওইদিনই চট্টগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে হবে নেপাল-হংকং ম্যাচ। এবার চট্টগ্রামে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ১৫টি ম্যাচ হওয়ার কথা রয়েছে।
বনজ কুমার মজুমদার বলেন, খেলা শুরুর কয়েকদিন আগেই দলগুলো চট্টগ্রামে আসতে শুরু করবে।

“এর আগে বা খেলা চলাকালে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা যাতে না ঘটে সেজন্যই তালিকা তৈরি করা হচ্ছে।”

তালিকায় ভাসমান লোকজনের ছবির পাশাপাশি তাদের স্থায়ী ঠিকানা, জীবন বৃত্তান্ত এবং আঙুলের ছাপ এবং স্বাক্ষর নেয়া হবে বলে এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (পশ্চিম) তানভীর আরাফাত বলেন, প্রতিটি থানায় পুলিশের দুটি করে দল অস্থায়ী স্থাপনা, অটোরিকশা স্ট্যান্ড ও বিভিন্ন বস্তিতে বসবাসকারীদের তালিকা তৈরি করছে।

“পাশাপাশি জহুর আহমেদ স্টেডিয়াম, আগ্রাবাদ হোটেলের পাশে গড়ে উঠা বিভিন্ন বস্তির লোকজনকেও এই তালিকায় আনা হবে।”

বিশ্বকাপ খেলতে আসা দলগুলো চট্টগ্রামে উঠবে হোটেল আগ্রাবাদ ও পেনিনসুলায়। তাই শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আগ্রাবাদ, জিইসি ও সাগরিকা এলাকা এবং খেলোয়াড়দের যাতায়াতের সম্ভাব্য পথে ভাসমান লোকজনের পাশাপাশি ফুটপাতের ব্যবসায়ীদেরও তালিকা করা হচ্ছে।

তানভীর বলেন, তালিকায় যাদের নাম আসবে, তাদের স্থায়ী ঠিকানায় পুলিশ পাঠিয়ে ‘রেকর্ড’ যাচাই করা হবে। কারো বিরুদ্ধে কোনো ‘নেতিবাচক’ তথ্য পাওয়া গেলে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চট্টগ্রাম

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে