Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০২০ , ১১ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.8/5 (17 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১২-২০১২

গোলাম আযমের শারীরিক সমস্যা নেই: চিকিৎসক (ভিডিও সংযুক্ত)

গোলাম আযমের শারীরিক সমস্যা নেই: চিকিৎসক (ভিডিও সংযুক্ত)
ট্রাইব্যুনালের আদেশের পর দুপুর ১২টার দিকে প্রিজন ভ্যানে করে জামায়াতে ইসলামীর সাবেক আমির গোলাম আযমকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। এ সময় আইনজীবীরা তাঁর সঙ্গে একটি বড় সুটকেসও দিয়ে দেন। এ সময় দুই পাশে পুলিশ ও রয়াবের কড়া পাহারা ছিল।
বিকেলে কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে গোলাম আযমকে নেওয়া হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে। কেন্দ্রীয় কারাগারের একটি নিজস্ব অ্যাম্বুলেন্স তাঁকে নিয়ে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে বিএসএমএমইউর দিকে রওনা হয়। বিকেল তিনটা ৫০ মিনিটে অ্যাম্বুলেন্সটি বিএসএমএমইউর প্রিজন সেলের সামনে পৌঁছায়। অ্যাম্বুলেন্সটি প্রিজন সেলের কাছে পৌঁছার পর আলোকচিত্রীরা ছবি তুলতে গেলে পুলিশ বাধা দেয়। এতে পুলিশ ও সাংবাদিকদের মধ্যে কিছুটা ধ্বস্তাধ্বস্তি হয়। এ সময় কয়েক মিনিট অ্যাম্বুলেন্সেই রাখা হয় গোলাম আযমকে। অবশেষে সাংবাদিকদের দূরে সরিয়ে গোলাম আযমকে প্রিজন সেলে নেওয়ার চেষ্টা চালানো হলেও তা ভেস্তে যায়।
হাসপাতাল সূত্র জানায়, সাংবাদিকদের সঙ্গে ধ্বস্তাধ্বস্তির কারণে গোলাম আযমকে সরাসরি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রিজন সেলে নেওয়া সম্ভব হয়নি। অ্যাম্বুলেন্স থেকে নামিয়ে তাঁকে জরুরি কার্ডিয়াক বিভাগের ১০২ নম্বর কক্ষে রাখা হয়। কারাগারের অ্যাম্বুলেন্সটি এ সময় বাইরে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়।
কারাগারের উপমহাপরিদর্শক গোলাম হায়দার জানান, ‘কারাগারে আনার পর চিকিৎসকেরা তাঁর স্বাস্থ্যপরীক্ষা করে হাসপাতালে পাঠানোর পরামর্শ দেন। এ কারণেই একটি অ্যাম্বুলেন্সে করে তাঁকে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার চিকিৎসকেরা তাঁর স্বাস্থ্যপরীক্ষা করছেন। তাঁদের পরামর্শ অনুসারে তাঁকে রাখা হবে।’
ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুবুল ইসলাম বলেন, আইনজীবীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গোলাম আযমকে হাসপাতালের কারা হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাঁকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তেমন কোনো শারীরিক সমস্যা নেই গোলাম আযমের: বিএসএমএমইউ কার্ডিওলজি বিভাগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জি এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘আমরা লিখে দিয়েছি যে তাঁর হাসপাতালে থাকার দরকার নেই। আমরা জিজ্ঞেস করেছিলাম, তাঁর কোনো শারীরিক সমস্যা আছে কি না। তিনি বলেছেন, তেমন কোনো সমস্যা নেই। এই সময়ে মধ্যে পরীক্ষা করে দেখা গেছে, তাঁর হূদযন্ত্র ও ব্লাড সুগারের কোনো সমস্যা নেই। কিডনিও ভালো আছে। তবে রক্তচাপ ও প্রোস্টেটে সামান্য সমস্যা আছে। আমরা তাঁর রক্তচাপের ওষুধগুলো পুনর্নির্ধারণ করে দিয়েছি।’
তাহলে গোলাম আযমকে কারাগারে না পাঠিয়ে প্রিজন সেলে পাঠানো হলো কেন—এই প্রশ্নের জবাবে সজল কৃষ্ণ বলেন, এটা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে