Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ১৭ জুলাই, ২০১৯ , ২ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.6/5 (34 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১১-২০১২

পদ্মা সেতু: বুধবার অবস্থান জানাবে বিশ্ব ব্যাংক

পদ্মা সেতু: বুধবার অবস্থান জানাবে বিশ্ব ব্যাংক
পদ্মা সেতু প্রকল্পে অর্থায়ন নিয়ে বিশ্ব ব্যাংকের সর্বশেষ অবস্থান বুধবার জানা যাবে।
পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন নিয়ে ওয়াশিংটনে বিশ্ব ব্যাংকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকায় ফিরেছেন সংস্থাটির আবাসিক প্রতিনিধি এলেন গোল্ডস্টেইন।
বুধবার সকালে তিনি সচিবালয়ে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সঙ্গে বৈঠক করবেন। বৈঠকে গোল্ডস্টেইন পদ্মা সেতুতে বিশ্ব ব্যাংকের অর্থায়নের ব্যাপারে সংস্থাটির সদরদপ্তরের সর্বশেষ অবস্থান ব্যাখ্যা করবেন বলে অর্থ মন্ত্রণালয় ও বিশ্ব ব্যাংকের ঢাকা কার্যালয় সূত্র জানায়।

বিশ্ব ব্যাংকের ঢাকা কার্যালয়ের মুখপাত্র মেহরিন এ মাহবুব মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ওয়াশিংটনে সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন নিয়ে বৈঠক এবং বড় দিনের ছুটি কাটানোর পর মঙ্গলবার দুপুরে এলেন গোল্ডস্টেইন ঢাকায় ফিরেছেন। বুধবার অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে তার একটি বৈঠক হওয়ার কথা আছে।”

পদ্মা সেতুতে অর্থায়ন বিষয়ে বিশ্ব ব্যাংকের সর্বশেষ অবস্থান কী- এ প্রশ্নের উত্তরে মেহরিন বলেন, “ঢাকায় ফিরে আবাসিক প্রতিনিধি বিশ্রামে রয়েছেন। আমার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কোনো কথা হয়নি।”

এর আগে গত ৪ জানুয়ারি এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) আবাসিক প্রতিনিধি থেভাকুমার কান্দিয়াহ জানিয়েছিলেন, “বিশ্ব ব্যাংকের আবাসিক প্রতিনিধি এলেন গোল্ডস্টেইন ওয়াশিংটনে বিশ্ব ব্যাংকের সদর দপ্তরে পদ্মা সেতু নিয়ে আলোচনা করছেন। তিনি ফিরলে আমরা সবাই একসঙ্গে বসে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছাব।”

২৯০ কোটি ডলারের পদ্মা সেতু প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংক ১২০ কোটি ডলার দেওয়ার জন্য সরকারের সঙ্গে চুক্তি করলেও পরে দুর্নীতির অভিযোগ তুলে অর্থায়ন স্থগিত করে।

সরকার এ প্রকল্পে কোনো দুর্নীতি হয়নি বলে দাবি করলেও যোগাযোগমন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেনকে অন্য মন্ত্রণালয়ে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। ওই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয় ওবায়দুল কাদেরকে। এরপর পদ্মা সেতু প্রকল্পের অর্থায়ন নিয়ে ঋণদাতা সংস্থাগুলোর মধ্যে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়।

অবশ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রয়োজনে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে এ সেতু নির্মাণ করা হবে।

৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু প্রকল্পে বিশ্ব ব্যাংকের পাশাপাশি এডিবি ৬১ কোটি, জাইকা ৪০ কোটি এবং ইসলামী উন্নয়ন ব্যাংক ১৪ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে। বাকি অর্থের যোগান দেবে সরকার।

বর্তমান সরকার ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসর পর পদ্মা সেতু নির্মাণকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আসছে। এরই মধ্যে মূল সেতু, নদীশাসন ও সংযোগ সড়কের নকশা চূড়ান্ত করা হয়েছে।

সরকারের দাবি, এ সেতু নির্মাণ হলে জিডিপি ১ দশমিক ২ শতাংশ বাড়বে। দরিদ্র্য কমবে দশমিক ৮৪ শতাংশ।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে