Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০১৯ , ৫ আষাঢ় ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.3/5 (21 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২৮-২০১৪

‘সতর্ক’ মুদ্রানীতি ঘোষণা

‘সতর্ক’ মুদ্রানীতি ঘোষণা

ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি- চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধের জন্য (জানুয়ারি-জুন) মুদ্রানীতি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক, যাকে বিনিয়োগবান্ধব সতর্ক মুদ্রানীতি বলে দাবি করেছেন গভর্নর আতিউর রহমান।

সোমবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সম্মেলন কক্ষে গভর্নর এই মুদ্রানীতি ঘোষণা করেন। আগের মুদ্রানীতির সঙ্গে এর আর্থিক সূচকগুলোতে বিশেষ কোনো পরিবর্তন দেখা যায়নি।

বেসরকারি খাতের ঋণ প্রবৃদ্ধি আগের মতো ১৬ দশমিক ৫ শতাংশ ও ব্যাপক মুদ্রা ১৭ শতাংশ অপরিবর্তিত রাখা হয়েছে। এছাড়া ব্যাপক মুদ্রা সরবরাহে প্রবৃদ্ধি অপরিবর্তিত ১৭ শতাংশ রাখা হয়েছে।

তবে সরকারি খাতের ঋণ প্রবৃদ্ধি ১৯ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ২২ দশমিক ৯ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে এবার।

কিন্তু গভর্নর বলেছেন, “এখন পর্যন্ত সরকারের ঋণ নেওয়ার মাত্রা বেশ পরিমিত। আশা করছি শেষ পর্যন্ত এই ধারা অব্যাহত থাকবে।”

বিষয়ে প্রধান অর্থনীতিবিদ হাসান জামান বলেন, সরকারের ঋণ গ্রহণের প্রবৃদ্ধি বাড়ানো হলেও মোট টাকার পরিমাণ বাড়েনি। চলতি অর্থবছরে সরকার ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে যে ২৬০ বিলিয়ন টাকা নেওয়ার পরিকল্পনা করেছে তা-ই আছে।”

মুদ্রানীতিতে নীট বৈদেশিক সম্পদের প্রবৃদ্ধি বাড়িয়ে ১০ শতাংশ প্রক্ষেপণ করা হয়েছে, যা আগে ছিলো ৮ দশমিক ৪ শতাংশ। তবে নীট অভ্যন্তরীণ সম্পদের প্রবৃদ্ধি কমানো হয়েছে।

আশা করা হচ্ছে, জুন শেষে নীট অভ্যন্তরীণ সম্পদে প্রবৃদ্ধি হবে ১৮ দশমিক ৬ শতাংশ, যা আগের মুদ্রানীতিতে ধরা হয়েছিলো ১৯ শতাংশ।

আতিউর রহমান বলেন, চলতি অর্থবছরের বাকি মাসগুলোতে নতুন কোনো বড় বিপর্যয় না ঘটলে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৬ শতাংশের আশে-পাশেই থাকবে।

যদিও এর আগে ত্রৈমাসিক অর্থনৈতিক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ ব্যাংক-ই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৭ শতাংশ হবে বলে পূর্বাভাস দিয়েছিল।

গভর্নর বলেন, “সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়েই আমরা জিডিপির প্রক্ষেপণ করেছি। আমরা রপ্তানি বাণিজ্য, এসএমই খাতসহ সামগ্রিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড উৎসাহিত করতে ইতিমধ্যে কিছু উদ্যোগ নিয়েছি। আরো কিছু উদ্যোগ নেওয়া হবে।

“অর্থবছরের প্রথমার্ধে দেশের অর্থনীতির ওপরে বহিঃখাতের প্রভাব সার্বিকভাবে স্থিতিশীল ছিল। কিন্তু জাতীয় নির্বাচন সংক্রান্ত রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যে শেষের দিকে অভ্যন্তরীণ খাতের পরিস্থিতি বিশেষ উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এ কারণে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড এবং স্বাভাবিক জীবন-যাপনে ব্যাপক প্রভাব পড়ে।”

মুদ্রানীতিতে আগামী জুনের মধ্যে মূল্যস্ফীতির হার ৭ শতাংশের মধ্যে রাখার চেষ্টা করা হয়েছে।

মুদ্রানীতি সম্বন্ধে গভর্নর সাংবাদিকদের বলেন, “আগের মুদ্রানীতির সঙ্গে বর্তমানের বিশেষ কোনো পার্থক্য নেই, শুধু গুরুত্ব বেড়েছে।

“আমরা চাচ্ছি টার্গেটগুলো বাস্তবায়ন করতে। তবে প্রবৃদ্ধি যদি আরো বেশিও হয়, সেজন্য সরকারি ও বেসরকারি খাতে ঋণের যে চাহিদা তৈরি হবে, তা জোগান দেয়ার সামর্থ্য আমাদের আছে।”

তিনি বলেন, রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে অর্থবছরের প্রথমভাগে যে ক্ষতি হয়েছে তা দ্বিতীয় ভাগে কাঠিয়ে ওঠা দুরূহ হবে না।

মুদ্রানীতির ঘোষণাপত্রে বলা হয়েছে, অর্থবছরের প্রথমভাগে অভ্যন্তরীণ ঋণের প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য অর্জন না হলেও ধারণা করা যাবে না যে কাঙ্খিত বিনিয়োগ হয়নি। কারণ সরকারি ও বেসরকারি খাতে বিদেশ থেকে ব্যাপক পরিমাণে বাণিজ্যিক ও প্রকল্প ঋণ এসেছে।এছাড়া এফডিআই ও পোর্টফলিও বিনোয়োগও বাড়ছে।

আগামীতে দেশের কর্পোরেট ও কংগ্লোমারেট গ্রুপগুলো যাতে অর্থ যোগানোর জন্য ব্যাংকগুলোর চেয়ে পুঁজিবাজারে ইক্যুইটি ও ডিবেঞ্চার ইস্যুর দিকে বেশি ঝোঁকে সে বিষয়ে উ

দ্যোগ নেওয়া হবে বলে মুদ্রানীতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। ছোট ও মাঝারি উদ্যোক্তাদের ব্যাংক ঋণ পাওয়ার বিষয়টি সহজ করতে এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। 

এবিষয়ে ব্যাংকগুলোকে ইতিমধ্যে ইঙ্গিতও দেওয়া হয়েছে বলে এক প্রশ্নের উত্তরে জানিয়েছেন ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী।

প্রবাসী আয় প্রবাহে নেতিবাচক প্রবৃদ্ধিকে মুদ্রানীতিতে ঝুঁকি হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে।

এবিষয়ে বলা হয়েছে, “রেমিটেন্স প্রবাহে সাম্প্রতিক মন্দার দিকটি নতুন মুদ্রানীতিতে অর্থনীতির বহিঃখাত সামর্থের জন্য সম্ভাব্য ঝুঁকি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।এই মন্দা অবস্থাটি প্রধানত জনশক্তি রপ্তানি কমে যাওয়ার কারণে হচ্ছে। কিন্তু জনশক্তি রপ্তানি বাড়ানোর কাজ সরকারের সংশ্লিস্ট বিভাগগুলোর। আশা করছি সরকারের ওইসব বিভাগ এদিকটা খেয়াল রাখবে।”

মুদ্রানীতি বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেছেন গভর্নর।

মুদ্রানীতি ঘোষণার অনুষ্ঠানে ডেপুটি গভর্নর আবু হেনা মোহাম্মদ রাজীব হাসান, এস কে সুর চৌধুরী,  নাজনীন সুলতানা, চেঞ্জ ম্যানেজমেন্ট অ্যাডভাইজার আল্লাহ মালিক কাজেমী, অর্থনেতিক উপদেষ্টা হাসান জামান উপস্থিত ছিলেন।

 

ব্যবসা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে