Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ১ পৌষ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.6/5 (49 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২৫-২০১৪

সবচেয়ে বড় হ্যাকিং চক্রের খোঁজ, পুনেতে ধৃত যুবক

সবচেয়ে বড় হ্যাকিং চক্রের খোঁজ, পুনেতে ধৃত যুবক

নয়াদিল্লি, ২৫ জানুয়ারি- সিবিআইয়ের জালে ধরা পড়ল বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে থাকা হ্যাকিং চক্রের অন্যতম মূল পাণ্ডা অমিত বিক্রম তিওয়ারি৷ বিভিন্ন কর্পোরেট সংস্থা ও কোম্পানি তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থা বা ব্যক্তির ই-মেল, ওয়েবসাইট হ্যাকিং করার কাজ দিত এই চক্রকে৷ আন্তর্জাতিক স্তরে হ্যাকিং কেলেঙ্কারির মধ্যে এই চক্রই সবচেয়ে বড় বলে মনে করা হচ্ছে৷ একইসঙ্গে ফের বিতর্কে জড়াল আইপিএল৷ এই ক্রিকেট লিগের সঙ্গে জড়িত কয়েকজনের অ্যাকাউণ্ট হ্যাক করার প্রস্তাব পেয়েছিল অমিত৷ কিন্তু শেষপর্যন্ত টাকাপয়সা নিয়ে মতভেদ হওয়ায় অজ্ঞাতপরিচয়ের সেই ব্যক্তিদের সঙ্গে কাজ করেনি৷ আইপিএলকে ঘিরে হ্যাকিং নিয়ে ইতিমধ্যেই তদন্ত শুরু করেছে সিবিআই৷ তবে আইপিএল-এর সময় ক্রিকেট টুর্নামেণ্টের সঙ্গে যুক্ত যে ব্যক্তিরা অমিতের সঙ্গে দেখা করেছিল তাদের নাম প্রকাশ করেনি সিবিআই৷ সম্প্রতি ভারতে এই চক্রের সঙ্গে জড়িতদের খোঁজে মুম্বই, পুনে ও গাজিয়াবাদে অভিযান চালান সিবিআই কর্তারা৷ এরপরেই পুনে থেকে গ্রেফতার করা হয় প্রাক্তন সেনা কর্নেলের পুত্র অমিতকে৷ ৩১ বছরের এই যুবকই আন্তর্জাতিক স্তরে চক্রের প্রধানদের সঙ্গে কথা বলত বলে অনুমান সিবিআই কর্তাদের৷ অমিতের বিরু‌দ্ধে অপরাধের ষড়যন্ত্র, তথ্য চুরি ও তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৬৬ ধারায় অভিযোগ দায়ের করেছে সিবিআই৷

এই হ্যাকিং চক্রের বিষয়টি প্রথম নজরে আসে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইয়ের৷ মার্কিন সরকার ও কয়েকটি বড় কর্পোরেট সংস্থার হ্যাক হওয়ার পরেই তদন্তে নেমে এফবিআই দেখে ভারত, চিন রোমানিয়া ও আরও কয়েকটি দেশ থেকে হ্যাকিং করা হয়েছে৷ এরপরেই তারা এই দেশগুলির গোয়েন্দা সংস্থাকে এই বিষয়ে তদন্তের নির্দেশ দেয়৷ ২০১১-২০১৩ সালের ফেব্রূয়ারি পর্যন্ত প্রায় ৯০০ ই-মেল অ্যাকাউণ্ট হ্যাক করেছে চক্রটি৷ আন্তর্জাতিক মহলের ‘মাস্টার হ্যাকারদের' থেকে নির্দেশ পেয়েই অমিত তার সঙ্গীদের নিয়ে দুটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে হ্যাকিং করত৷ তবে বিদেশিরাই তাদের হ্যাকিংয়ের কাজ বেশি দিত৷ জাতীয় নিরাপত্তা, কর্পোরেট হ্যাকিং, অর্থনৈতিক জালিয়াতি ছাড়াও কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও তথ্য ও গোপন ইউনিটের তথ্য হ্যাক করা হয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখছে সিবিআই৷ সিবিআইয়ের অধিকর্তা রঞ্জিত সিনহা জানিয়েছেন, "এটি একটি আন্তর্জাতিক পুলিশি অভিযান৷ এফবিআই, সিবিআই, রোমানিয়ার অপরাধ দমন শাখা ও চিনের জননিরাপত্তা মন্ত্রক এই চক্রটিকে ধরতে অভিযান করছে৷"

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে