Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.3/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২০-২০১৪

রাজধানীতে ৩ পাকিস্তানি জঙ্গি সদস্য আটক

রাজধানীতে ৩ পাকিস্তানি জঙ্গি সদস্য আটক

ঢাকা, ২০জানুয়ারি- পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন তেহরিক-ই-তালিবান অব পাকিস্তানের (টিটিপি) সদস্য সন্দেহে ৩ পাকিস্তানিকে আটক করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমির গেট থেকে তাদের আটক করা হয়। এরা হলেন- মেহমুদ (২৬), ওসমান (২৩) ও ফখরুল হাসান (৫০)। সবাই পাকিস্তানের কৌরাঙ্গি ও মালির বাসিন্দা।

তাদের কাছ থেকে বোমা তৈরির ম্যানুয়াল ও বিভিন্ন সামরিক প্রশিক্ষণ সংক্রান্ত তথ্যসহ একটি ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়। ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারের সহকারী পুলিশ কমিশনার আবু ইউসুফ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, মেহমুদ ও ওসমানের কাছ থেকে কোনো ভিসা পাওয়া যায়নি। ফখরুল হাসানের কাছ থেকে পাসপোর্ট উদ্ধার করা হলেও তা মেয়াদ উত্তীর্ণ। তারা টেকনাফ যাওয়ার জন্য কাকরাইল অবস্থান করছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে।

ঢাকা গয়েন্দা বিভাগের পক্ষ থকে সংবাদ সন্মেলনে জানানো হয়, দেশের জিমিয়ে থাকা জঙ্গি সংগঠন গুলোকে পুনরায় সচল করার জন্যই তারা বাংলাদেশে এসেছে। আটক জঙ্গি সদস্যরা কেমিক্যাল মিশিয়ে উচ্চ মাত্রার শক্তিশালী বোমা তৈরি করতে পারদর্শী।

সংবাদ সন্মেলনে আরও জানানো হয়, আটকরা জঙ্গি সংগঠন তেহরিক-ই-তালিবান অব পাকিস্তানের সদস্য বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। রিমান্ডে নেওয়ার পর বিস্তারিত তথ্য জানা যাবে।

গ্রেপ্তারের পর তিন পাকিস্তানি ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে

বোমা তৈরির নির্দেশিকাসহ তিন পাকিস্তানি ‘জঙ্গিকে’ গ্রেপ্তারের পর তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১৩ দিন করে পুলিশ হেফাজতে পাঠিয়েছে আদালত।

রোববার রাত সাড়ে ১০টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকায় শিল্পকলা একাডেমির সামনে থেকে ওই তিন জনকে গ্রেপ্তার করে গোয়েন্দা পুলিশ।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন- মেহমুদ (২৬), উসমান (২৩) ও ফখরুল (৫০)। এদের মধ্যে মেহমুদ ও উসমানের পাসপোর্ট-ভিসা ছিল না। ফখরুলের সঙ্গে পাকিস্তানি পাসপোর্ট থাকলেও ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে বলে মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন জানান।

“ওই তিন পাকিস্তানির কাছে একটি ল্যাপটপ ও বোমা তৈরির ‘ম্যানুয়াল’ পাওয়া যায়। তারা তেহেরিক-ই-তালিবান অব পাকিস্তানের সদস্য বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে।”

সোমবার দুপুরে মহানগর পুলিশের মিডিয়া সেন্টারে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন গোয়েন্দা পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, “বাংলাদেশে ঝিমিয়ে পড়া জঙ্গিদের সক্রিয় করে সহিংসতা তৈরির পরিকল্পনা ছিল তাদের।”

পরে রমনা থানায় এই তিন পাকিস্তানির বিরুদ্ধে ‘সন্ত্রাসবিরোধী’ ও ‘পাসপোর্ট’ আইনে দুটি মামলা করা হয় এবং তাদের এসব মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে প্রত্যেককে ২০ দিন করে রিমান্ডে নেয়ার জন্য আদালতে আবেদন করেন মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (দক্ষিণ) পরিদর্শক আশরাফুল ইসলাম।

শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম শাহরিয়ার মাহমুদ আদনান সন্ত্রাস বিরোধী আইনের মামলায় ৮ ও পাসপোর্ট আইনের মামলায় ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপপরিদর্শক মাহমুদুর রহমান জানান, শুনানিতে আসামিদের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না।

এর আগে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গ্রেপ্তার মেহমুদ ও উসমানকে পুলিশের একটি বিশেষ সংস্থা আগেও গ্রেপ্তার করেছিল। সে সময় তারা বলেছিল জামিন নিয়ে পাকিস্তানে ফিরে যাবে।

তারা দুজনেই অত্যাধুনিক অস্ত্র চালনা ও গাড়িবোমাসহ প্রায় ১২ ধরনের বোমা তৈরিতে অভিজ্ঞ বলেও পুলিশের সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, “প্রাথমিকভাবে ধারণা করছি, তাদের এ দেশে নিয়ে আসায় স্থানীয় কারো ভূমিকা রয়েছে। তাদের কারো কাছে গ্রেপ্তারদের পাসপোর্ট জমা থাকতে পারে।”

এই তিন পাকিস্তানিকে গ্রেপ্তারের ব্যাপারে পাকিস্তান দূতাবাসকে অবহিত করা হবে বলেও জানান তিনি।

গোয়েন্দা পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, বাংলাদেশে সহিংসতা চালাতে ‘ব্যর্থ হয়ে’ মিয়ানমারের আরাকানিদের সহায়তায় ‘তথাকথিত জিহাদে’ অংশ নেয়ার পরিকল্পনা করেছিল বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ওই তিনজন জানিয়েছে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে