Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (8 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১৮-২০১৪

বোমায় আন্দোলন বন্ধ হবে না

সুলাইমান নিলয়


বোমায় আন্দোলন বন্ধ হবে না

ঢাকা, ১৮ জানুয়ারি- স্বাধীনতাবিরোধী দল জামায়াতে ইসলামী বোমা মেরে গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনে বাধা তৈরি করতে পারবে না বলে জানিয়েছেন মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার।

সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস রুখতে ঠাকুরগাঁও অভিমুখী রোডমার্চের পথে সিরাজগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক সমাবেশে তিনি একথা বলেন।

বিকালে এই সমাবেশ শুরু হওয়ার কিছু সময় আগে বগুড়ায় জাগরণ মঞ্চের সমাবেশস্থলের কাছে হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।

ইমরান এইচ সরকার বলেন, “জামায়াত-শিবির হাতবোমার মাধ্যমে গণজাগরণ মঞ্চের আন্দোলনে বাধা সৃষ্টি করতে পারবে না। সকল বাধা উপেক্ষা করে গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা তাদের আন্দোলন অব্যাহত রাখবে। বগুড়ায় সমাবেশের মাধ্যমে আমাদের আজকের কর্মসূচি শেষ হবে।”

তিনি বলেন, সিরাজগঞ্জের সর্বস্তরের মানুষ সাম্প্রদায়িক শক্তির বিপক্ষে অবস্থান ব্যক্ত করে রোডমার্চ কর্মসূচিতে সংহতি জানিয়েছেন।

“দেশের প্রতি ইঞ্চি জায়গা প্রদক্ষিণ করে আমরা আমাদের কাঙ্ক্ষিত বাংলাদেশ গড়ে তুলবো। সকল যুদ্ধাপরাধীর বিচার ও জামায়াত-শিবিরের রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবিসহ আমাদের মূল আন্দোলনের ৬ দফা এবং সাম্প্রদায়িক সহিংসতাবিরোধী ৩ দফা আদায় না হওয়া পর‌্যন্ত আমরা কেউ ঘরে ফিরে যাবো না।”

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র বলেন, রোডমার্চের পথে পথে একাত্তরের রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধারা এগিয়ে এসে সংহতি জানিয়েছেন। তারাও তরুণ প্রজন্মের সঙ্গে রাস্তায় নেমে এসেছেন।

সব শ্রেণি-পেশা ও ধর্মের মানুষকে সাথে নিয়ে মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ইমরান।

তিনি বলেন, “জামায়াত একাত্তরের মতো আজো সাম্প্রদায়িক সহিংসতা চালাচ্ছে। এই দলটিকে নিষিদ্ধ না করলে মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশের স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে।

“যুদ্ধাপরাধীদের বাঁচাতে দেশের আনাচে কানাচে জামায়াত সাম্প্রদায়িক সহিংসতা চালাচ্ছে। তারা মানুষের রুটি-রুজির উপকরণ জাল থেকে শুরু করে রান্না করা খাবার পর্যন্ত তছনছ করেছে। কারণ এরা জামায়াত-শিবিরের বাধা উপেক্ষা করে ভোট দিয়েছিল।”

মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী দল জামায়াতে ইসলামী ও তাদের সহযোগী সংগঠন ইসলামী ছাত্র শিবিরের সঙ্গ ত্যাগ করার জন্য সব রাজনৈতিক দলের প্রতি আহ্বান জানান ইমরান এইচ সরকার।

তিনি বলেন, “গণজাগরণ মঞ্চ যতোদিন মাঠে থাকবে, ততোদিন কোনো রাজনৈতিক শক্তি জামায়াত, শিবির ও হেফাজতের পৃষ্ঠপোষকতা দিতে পারবে না। জামায়াতকে বাঁচাতে গিয়ে একটি রাজনৈতিক দল ইতিমধ্যে শেষ হয়ে গেছে। অন্য রাজনৈতিক শক্তিগুলোকে জামায়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে অবস্থান নিতে আহ্বান জানাবো। অন্যথ্যায় তাদেরও একই পরিণতি বরণ করতে হবে।”

সিরাজগঞ্জ গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র সাইফুল্লাহ সাদির সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে  সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সিরাজগঞ্জ শাখার সভাপতি আসাদ উদ্দিন পবলু, জেলা বাসদের সমন্বয়ক নবকুমার কর্মকার, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জিহাদ আল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আবু ইউসুফ, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হাসান মুকুল বক্তব্য দেন।

রোডমার্চের বহর বঙ্গবন্ধু সেতু পার হওয়ার পরই সিরাজগঞ্জের মানুষ গণজারগণ মঞ্চের নেতাকর্মীদের স্বাগত জানান। সিরাজগঞ্জ শহর থেকে অনেকে রোডমার্চের বহরকে এগিয়ে নিতে আসেন।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে