Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.6/5 (22 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-১৪-২০১৪

এপ্রিলে উপজেলা নির্বাচন: চাপে পড়বে বিএনপি

এপ্রিলে উপজেলা নির্বাচন: চাপে পড়বে বিএনপি

ঢাকা, ১৪ জানুয়ারি- নানা আলোচনা-সমালোচনা, আন্দোলন-সহিংসতার মধ্য দিয়ে শেষ হলো দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনে অংশ না নেয়া বিএনপি আন্দোলন ঠেকাতে এবার উপজেলা পরিষদসহ স্থানীয় সরকারের নির্বাচন করতে যাচ্ছে সরকার। এ উপলক্ষে প্রস্তুতি নেয়া শুরু করেছে ইসি।

এপ্রিলে এ নির্বাচন অনুষ্ঠানে টার্গেট করে ৪৮৯ কোটি টাকার সম্ভাব্য বাজেট নির্ধারণ করা হয়েছে। শিগগির উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে কমিশনে চিঠি পাঠানো হবে। উপজেলা নির্বাচনের পর পর্যায়ক্রমে পৌরসভা ও ইউপি নির্বাচনেরও প্রস্তুতি রয়েছে ইসির। বিএনপি দশম নির্বাচন বর্জন করলেও স্থানীয় নির্বাচনে দলের প্রার্থীদের ঠেকাতে পারবে না বলে মনে করছে সরকার। তা ছাড়া তৃণমূলের নেতাকর্মীরা নির্বাচনে ব্যস্ত থাকলে আন্দোলনের গতিপথও ভিন্ন খাতে চলে যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আন্দোলন শক্তিশালী করার পথে নির্বাচনকে দাঁড় করানো হচ্ছে প্রধান প্রতিবন্ধক হিসেবে। ৪৮৭টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন। মার্চের শুরুতেই তফসিল ঘোষণা করে এপ্রিলের দ্বিতীয় সপ্তাহে ভোট গ্রহণের টার্গেট নিয়ে এগুচ্ছে ইসি। ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহ থেকে নির্বাচনী কর্মকর্তাদের প্রশিক্ষণ শুরু হবে। পাশাপাশি সংসদ নির্বাচনে হালনাগাদকৃত ভোটার তালিকা দিয়েই এ নির্বাচন সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

চলতি মাসেই স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে বিষয়টি অবহিত করা হবে বলে ইসি সূত্রে জানা গেছে।

ইসি কর্মকর্তারা জানান, নতুন সরকার গঠনের পরপরই উপজেলা নির্বাচনের আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু করা হয়েছে। পরিকল্পনা অনুযায়ী, এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহকে মাথায় রেখে সব কাজ সম্পন্ন করা হচ্ছে।

নির্বাচন কমিশনার মো. শাহ নেওয়াজ বলেন, জাতীয় নির্বাচনের কাজ শেষে উপজেলা নির্বাচন যত দ্রুত সম্ভব করে ফেলা হবে। আইন অনুযায়ী মের প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই উপজেলা নির্বাচন করতে হবে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব আবু আলম মো. শহীদ খান বলেন, উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের বিষয়ে শিগগিরই নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দেয়া হবে।

২০০৯ সালের ২২ জানুয়ারি সারা দেশের ৪৮১টি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন হয়। বর্তমানে ৪৮৭টি উপজেলা রয়েছে। আইন অনুসারে উপজেলা পরিষদের মেয়াদ শেষ হওয়ার পূর্ববর্তী ১৮০ দিনের মধ্যে নির্বাচন করতে হবে। এ ক্ষেত্রে নির্বাচিত উপজেলা পরিষদের মেয়াদ হবে প্রথম বৈঠক থেকে পাঁচ বছর। সে মোতাবেক ২০১৪ সালের মের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এসব উপজেলা নির্বাচন করতে হবে। আইনানুযায়ী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানরা (পুরুষ-মহিলা) সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হলেও ২০০৯ সালে সংরক্ষিত মহিলা সদস্যদের নির্বাচন আইনি জটিলতায় আটকে যায়। এখন পর্যন্ত সে পদে নির্বাচন হয়নি। সম্প্রতি কমিশন এসব পদে নির্বাচনের জন্য আইন সংশোধন করেছে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে