Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 2.7/5 (9 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-০৭-২০১৪

‘অবৈধ’ সরকার, তবু আলোচনায় রাজি খালেদা

‘অবৈধ’ সরকার, তবু আলোচনায় রাজি খালেদা

ঢাকা, ০৭ জানুয়ারি- নবনির্বাচিত সরকারকে ‘অবৈধ’ মনে করা সত্ত্বেও ‘গণতন্ত্রের স্বার্থে’ তাদের সঙ্গেই আলোচনায় বসার জন্য প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

সোমবার বিবিসি বাংলাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি নিজের এই অবস্থান প্রকাশের পাশাপাশি সরকারবিরোধী আন্দোলন অব্যাহত রাখার কথাও বলেন।

রোববার নির্বাচনের পরপরই বিএনপির জ্যেষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডনে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছিলেন, “এই সরকার অবৈধ, নির্বাচনে কারচুপির মাধ্যমে ক্ষমতায় এসেছে। এদের সঙ্গে কোন আলোচনা নয়। ”  

তারেক জিয়ার ‘আলোচনায় না বসার’ প্রসঙ্গ টেনে বিবিসি বাংলার পক্ষ থেকে খালেদা জিয়াকে প্রশ্ন করা হলে, সরকারের সঙ্গে আলোচনার ‘ইচ্ছার’ কথা জানান তিনি।

তিনি বলেন, “এই অবস্থা থেকে বেরোতে দেশের মানুষ ও গণতন্ত্রের স্বার্থে কারো কারো সাথে আলোচনা তো চালাতেই হবে। বাতাসের সঙ্গে তো আর আলোচনা চালানো যায় না। কাজেই আমাদের সরকারের সঙ্গেই আলোচনা চালাতে হবে।”  

তিনি বলেন, আলোচনার আগে তার দলের নেতাকর্মীদের মুক্তি দিতে হবে, তাদের কার্যালয় খুলে দিতে হবে এবং তাকে বাড়ি থেকে বের হতে দিতে হবে।

এর আগে এক বিবৃতিতে বিএনপি চেয়ারপারসন নির্বাচন বাতিল করে সমঝোতায় আসতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
ওই বিবৃতির আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপির সঙ্গে সংলাপের প্রস্তাব রেখে তাদের জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গ ছাড়ার শর্ত দেন।

এ বিষয়ে বিবিসি বাংলার প্রশ্নে খালেদা বলেন, “জামায়াতকে নিয়ে তো আওয়ামী লীগও সরকারে গেছে।

“বিএনপি তাদের রাজনীতির বিষয়ে স্বাধীনভাবে সিদ্ধান্ত নেবে এবং কারো দ্বারা নির্দেশিত হবে না।”

খালেদা জিয়া বলেন,বিএনপি তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

চলমান সহিংসতার জন্য বিএনপি নয় বরং সরকারই দায়ী বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে