Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ৬ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-১৪-২০২০

খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর করোনা পজিটিভ

খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর করোনা পজিটিভ

ঢাকা, ১৪ আগস্ট - খ্যাতিমান চিত্রশিল্পী মুর্তজা বশীর করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন।  ৮৮ বছর বয়সী এ চিত্রশিল্পীকে বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে ভর্তি করার পর করোনা সংক্রমনের পরীক্ষা করা হলে আজ সন্ধ্যায় ফল পজিটিভ এসেছে।

শিল্পী হাসপাতালের মেডিকেল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (এমআইসিইউ) চিকিৎসাধীন আছেন। শিল্পী করোনাভাইরাস আক্রান্ত হলেও তাঁর মানসিক অবস্থা দৃঢ় আছে বলে জানিয়েছেন শিল্পীর পরিবারের সঙ্গে সম্পৃক্ত ফটো সাংবাদিক মোহম্মদ আসাদ।

এর আগে শিল্পীর মেয়ে মুনীরা বশীর গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, শিল্পী হৃদরোগ, ফুসফুস ও কিডনি জটিলতায় ভুগছেন। এর আগেও বিভিন্ন শারীরিক জটিলতা নিয়ে একাধিকবার হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয়েছে। তিনি তার বাবার জন্য দেশবাসীর কাছে দোয়া চেয়েছেন।

তিনি বলেন, বাবা দ্রুত সুস্থ হয়ে যেন আমাদের মাঝে ফিরে আসেন; তার অসমাপ্ত কাজগুলো যেন সম্পন্ন করতে পারেন।

শিল্পীর শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে আজ বিকেলে হাসপাতালের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানা গেছে।

আরও পড়ুন: পাকিস্তান সৃষ্টির আগেই বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন বঙ্গবন্ধু: কৃষিমন্ত্রী

বাংলাদেশে বিমূর্ত বাস্তবতার চিত্রকলার অন্যতম পথিকৃৎ শিল্পী মুর্তজা বশীরের ‘দেয়াল’, ‘শহীদ শিরোনাম’, ‘পাখা’ ছাড়াও বেশকিছু উল্লেখযোগ্য চিত্রমালা রয়েছে। তিনি একজন ভাষা সংগ্রামী। ‘রক্তাক্ত ২১শে’ শিরোনামে ভাষা আন্দোলন নিয়ে ‘লিনোকাট’ মাধ্যমে একটি চিত্রকর্ম রয়েছে। পেইন্টিং ছাড়াও ম্যুরাল, ছাপচিত্রসহ চিত্রকলার বিভিন্ন মাধ্যমে তিনি কাজ করেছেন।

চিত্রকলা ছাড়াও সৃজনশীল অন্যান্য মাধ্যমেও তিনি অবদান রেখেছেন। ‘টাটকার রক্তের ক্ষীণরেখা’ শিরোনামে একটি বইতে নিজের লেখা কবিতার ইংরেজি অনুবাদ প্রকাশ করেছেন। ১৯৭৯ সালে প্রকাশিত হয়েছে তার লেখা উপন্যাস ‘আলট্রামেরিন’। মুদ্রা ও শিলালিপি নিয়েও তিনি গবেষণা করেছেন।

মুর্তজা বশীরকে চিত্রকলায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ১৯৮০ সালে একুশে পদক এবং ২০১৯ সালে স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

বাঙালি মনিষী বহু ভাষাবিদ ড. মুহাম্মদ শহীদুল্লাহর ছেলে মুর্তজা বশীর ১৯৩২ সালের ১৭ অগাস্ট ঢাকার রমনায় জন্মগ্রহণ করেন। পেশাজীবনে তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি হিসেবে স্বৈরাচারি এরশাদ সরকারবিরোধী আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

সূত্র : কালের কণ্ঠ
এন এইচ, ১৪ আগস্ট

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে