Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ , ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.4/5 (39 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-৩১-২০১৩

ভিনদেশের অদ্ভুতুড়ে সব থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপন

ভিনদেশের অদ্ভুতুড়ে সব থার্টি ফার্স্ট নাইট উদযাপন

থার্টি ফার্স্ট নাইটে আপনি কি করছেন বলুন তো? বছরের শুরুটা আনন্দ এবং উৎসব দিয়ে কাটানোর চেষ্টা করেন সবাই। অনেকেই যাবেন বারবিকিউ, ডিজে পার্টি অথব বন্ধুবান্ধবের সাথে ঘুরাঘুরি করতে। রাত বারোটা বাজলেই শুভেচ্ছা বার্তা পাঠানো শুরু হবে একেক জনকে, কেউ বা পরিবার-পরিজনের সাথে একান্তে সময় কাটাবেন। এগুলো সবই ঠিক আছে। কিন্তু ভাবুন তো, কবরস্থানে গিয়ে নতুন বছরের শুরুটা উদযাপন করতে কেমন লাগবে আপনার? অথবা জানালা দিয়ে আসবাবপত্র ছুড়ে ফেলে উৎসব করাটা? পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে প্রচলিত আছে নতুন বছর উদযাপনের এসব অদ্ভুতুড়ে প্রথা।

সাউথ আমেরিকা
একটা ছোট্ট প্রশ্ন নিয়ে ভাবুন। নতুন বছরের উৎসবে আপনার পরনে কি থাকবে? সবচাইতে দামি শাড়ি অথবা বিদেশি স্যুটটি? অন্তর্বাস হিসেবে কী পরবেন সেটা নিয়ে তো মাথাব্যাথা নেই। কিন্তু সাও পাওলো, লা পায এবং কাছাকাছি এই অঞ্চলগুলোতে নতুন বছর উপলক্ষে মানুষ পরে বেশ রংচঙে সব অন্তর্বাস। নতুন বছরে যদি ভালোবাসা খুঁজে পাওয়ার আকাঙ্ক্ষা থাকে, তবে লাল অন্তর্বাস। আর টাকাপয়সার আকাঙ্ক্ষা থাকলে হলদে অন্তর্বাস।

চিলি, টালকা
চিলির টালকা এলাকার মানুষদের নতুন বছর উদযাপনের রীতিটা বোধ হয় সবচাইতে অদ্ভুত। কারণ তারা শুধু জীবিত মানুষ নয়, তাদের উৎসবে শামিল করে মৃত মানুষদেরও! মৃত আত্মীয় স্বজনদের কবরে গিয়ে তারা রাত পার করে দেয়।

সাউথ আফ্রিকা, জোহানেসবার্গ
নিউ ইয়ারের সময়ে সাউথ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে অবস্থান করাটা বেশ ঝুঁকিপূর্ণ, বিশেষ করে আপনি যদি রাস্তায় হাঁটতে থাকেন। বলা নেই কওয়া নেই, ওপরের কোনও বাড়ির জানালা দিয়ে আচমকা ঢাউস এক টিভি এসে পড়তে পারে আপনার গায়ের ওপর! বছরের শেষ পুরনো ইলেক্ট্রনিকসের জিনিসপাতি এভাবেই ঘর থেকে বিদায় করে তারা।

কলম্বিয়া
এখানকার মানুষেরা ভ্রমন করতে বেশ পছন্দ করে। তাই সারা বছর যেন ভ্রমণের সুযোগ হয়, এই আশায় বছরের শুরুর সময়টা খালি স্যুটকেস হাতে নিয়ে বাড়ির আশেপাশে হেঁটে বেড়ায় তারা।

জাপান
জ্যোতিষশাস্ত্র অনুযায়ী জাপানে পরবর্তী বছর অর্থাৎ ২০১৪ এর প্রতীক হলো ঘোড়া। এ কারণে তারা ঘরার মতো সাজে সজ্জিত হয়ে স্থানীয় মন্দিরে উপস্থিত হবে।

ডেনমার্ক
বছরের শুরুতে এরা পুরনো বাসনপত্র ছুড়ে মারে বন্ধু এবং প্রতিবেশিদের বাড়ির দরজায়। এছাড়াও তারা একসাথে চেয়ারের ওপর দাঁড়িয়ে থাকে আর মাঝরাতে নতুন বছরের প্রথম মুহূর্তে লাফিয়ে পড়ে নিচে, তাদের ধারণা এতে সৌভাগ্য আসে।

স্পেন
ঘড়ির কাঁটা এক এক করে বারো বার বাজে মধ্যরাতে। আর ঘড়ির প্রতিটি শব্দের জন্য একটি করে আঙ্গুর খায় স্পেনের মানুষ। তাদের ধারণা আগামি বছরের ১২ টিমাসের জন্য এই ১২ টি আঙ্গুর সৌভাগ্য বয়ে নিয়ে আসবে।

ফিনল্যান্ড
এখানে নতুন বছর উদযাপনের মাঝে বেশ জটিল একটা ব্যাপার আছে। তারা গলন্ত টিন পানির মাঝে ফেলে ঠাণ্ডা করে। এই টিন যে আকৃতি নেবে, তার ওপরে নির্ভর করবে পরবর্তী বছরের ভাগ্য। এই টিনের আকৃতি রিং বা হৃদয়ের মতো হলে সামনের বছর তার বিয়ে হবে। জাহাজের আকৃতি মানে ভ্রমন আর শূকরের আকৃতি মানে প্রচুর খাদ্য।

স্কটল্যান্ড
বছরের শুরুতে কোনও বাড়ির ভেতরে যদি আপনি প্রথমে প্রবেশ করেন তবে আপনার হাতে থাকা চাই একটি উপহার (সাধারনত হুইস্কি)। এছাড়াও গ্রামগুলোতে প্যারেড হয় যেখানে রাতের বেলা মাথার ওপর উঁচু করে ধরা মশাল দিয়ে পরবর্তী বছরকে শুদ্ধ করে তারা।

এস্তোনিয়া
নতুন বছরের দিনে কয়বার খান আপনি? সাতবার খেতে পারবেন কি? এস্তোনিয়ায় বছরের শুরুর দিন সাতবার খেতে হয়। কারন তারা বিশ্বাস করে এই দিনে সাতবার খেলে সাতজন মানুষের সমান শক্তি আসবে একজনের শরীরেই।

জানা-অজানা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে