Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ , ১০ আশ্বিন ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৮-০৭-২০২০

সিলেট নগরে তুচ্ছ ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতার গুলি

সিলেট নগরে তুচ্ছ ঘটনায় আওয়ামী লীগ নেতার গুলি

সিলেট, ০৮ আগস্ট - সিলেট নগরের ফাজিলচিস্ত আবাসিক এলাকায় তুচ্ছ ঘটনায় গুলি ছুঁড়েছেন স্থানীয় এক ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা। শুক্রবার (৭ আগস্ট) বিকেলে এলাকায় ক্যারম খেলা বসানো নিয়ে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নগরের সুবিদবাজারের ফাজিলচিস্ত এলাকার একটি কলোনি ও ক্যারম খেলা নিয়ে আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। সেই বিরোধের জেরে মহানগরের ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সায়েক খানের সঙ্গে বিতণ্ডা হয় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের ছেলেসহ তার লোকজনের। এক পর্যায়ে সায়েক খান তার ব্যবহৃত আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ফাঁকা গুলি করলে উত্তেজনা দেখা দেয়। খবর পেয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের কোতয়ালী ও বিমানবন্দর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

তবে সায়েক খানের অভিযোগ, স্থানীয় একটি কলোনিতে খেলাধুলা নিয়ে ঝামেলার মীমাংসা করতে গেলে আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের পরিবারের সদস্যরা তার ওপর হামলা চালায়। প্রাণে বাঁচতে তিনি নিজের বৈধ অস্ত্র দিয়ে ফাঁকা গুলি ছোঁড়েন।

আরও পড়ুন: বিয়ানীবাজারে করোনায় নারী কাউন্সিলরের মৃত্যু

সিলেট সিটি করপোরেশনের ৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আফতাব হোসেন খান বলেন, ফাজিলচিস্ত এলাকার একটি কলোনিতে অপরাধমূলক কার্যক্রম চলছে। এতে এলাকার যুবসমাজ বাধা দিয়েছিল। সে জন্য সায়েক খান তার আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে যুবকদের গুলি করেন। এরপর উত্তেজনা দেখা দিলে আমি ঘটনাস্থলে আসি। যারা আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করছে তাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হোক।

এ বিষয়ে সায়েক খান বলেন, একটি কলোনিতে উত্তেজনার খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে যাই। সে সময় আওয়ামী লীগ নেতা মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের ছেলে সাবিয়ানসহ তার পরিবারের সদস্যরা আমার ওপর হামলা চালায়। আমার প্রাইভেটকার ভাঙচুর করে। আমি আত্মরক্ষায় নিজের বৈধ অস্ত্র দিয়ে গুলি করি।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের সাবেক কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, ওই কলোনিতে ক্যারম খেলা নিয়ে বিরোধ দেখা দেয়। এরপর সায়েক খান গুলি করেন এলাকার একটি রাস্তায়। এতে আমার পরিবারের কেউ সম্পৃক্ত নয় বা আমার পরিবারের ওপর কেউ গুলি করেনি।

সিলেট মহানগর পুলিশের বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদৎ হোসেন বলেন, ফাজিলচিস্ত এলাকার একটি কলোনিতে ক্যারম খেলাকে কেন্দ্র করে দুটি পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একটি পক্ষ গুলি ছুঁড়েছে বলে শুনেছি। তবে বিষয়টি মীমাংসা হয়ে গেছে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ০৮ আগস্ট

সিলেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে