Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে, ২০২০ , ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (43 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১০-০১-২০১১

মুক্তি পেল ১৮০০ সাবেক তামিল গেরিলা

মুক্তি পেল ১৮০০ সাবেক তামিল গেরিলা
শ্রীলঙ্কা সরকার গতকাল শুক্রবার প্রায় এক হাজার ৮০০ জন সাবেক তামিল গেরিলাকে মুক্তি দিয়েছে। মানবাধিকার সংগঠন ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের চাপের মুখে দুই বছরেরও বেশি সময় পর সরকার বিচ্ছিন্নতাবাদী লিবারেশন টাইগারস অব তামিল ইলম (এলটিটিই)-এর সাবেক এসব সদস্যকে মুক্তি দিল। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০০৯ সালের মে মাসে গৃহযুদ্ধ অবসানের পর প্রায় ১২ হাজার তামিল বিদ্রোহী সরকারের কাছে আত্মসমর্পণ করে। তাদের সেনা পরিচালিত পুনর্বাসন কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। এ কেন্দ্রে তাদের বৃত্তিমূলক প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। সেনা সূত্রে জানা গেছে, পুনর্বাসন কেন্দ্রে এখনো এক হাজার সাবেক গেরিলা রয়ে গেছে।
গৃহযুদ্ধ অবসানের পর পুনর্বাসনকে কেন্দ্র থেকে তামিলদের ছেড়ে দেওয়ার জন্য অনেক দিন থেকেই মানবাধিকার সংগঠন এবং বিশ্ব সম্প্রদায় চাপ দিয়ে আসছিল শ্রীলঙ্কা সরকারের ওপর। এরই পরিপ্রেক্ষিতে শ্রীলঙ্কা সরকার এ পদক্ষেপ নিল।
বন্দিদের মুক্তি উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসের কার্যালয় চত্বরে গতকাল এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ অনুষ্ঠানে পরিবারের কাছে সাবেক গেরিলাদের হস্তান্তর করেন প্রেসিডেন্ট।
রাজাপাকসে তাঁর ভাষণে বলেন, পুনর্বাসন কেন্দ্রে আন্তর্জাতিক মানদণ্ড অনুযায়ী বন্দিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। তাদের রাজমিস্ত্রি, কাঠমিস্ত্রি, দর্জি ও কৃষিকাজের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। সাবেক গেরিলাদের উদ্দেশে রাজাপাকসে বলেন, 'সমাজে বসবাসযোগ্য করার জন্য আমরা আপনাদের প্রশিক্ষণ দিয়েছি। এখন থেকে আপনারা মুক্ত, যেখানে খুশি যেতে পারবেন এবং কাজের স্বাধীনতাও আছে। তবে আমি মনে করি আপনারা শান্তি ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির জন্য কাজ করবেন। তিক্ত অতীত ভুলে সমৃদ্ধ আগামীর পথে এগিয়ে যাবেন।' সরকার সাবেক এ গেরিলাদের জন্য কর্মক্ষেত্রে সৃষ্টির সুযোগ করে দেওয়ার চেষ্টা করছে বলেও জানান রাজাপাকসে। ৬০ বছরের সুব্রামানিয়াম রাসালিঙ্গম ছেলে সুধাকরণকে ফিরে পেয়ে আনন্দিত। প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বলেন, 'একমাত্র সন্তানকে ফিরে পেয়ে আমি খুব খুশি। এত খুশি যে ভাষায় প্রকাশ করতে পারছি না।'
কান্দাস্বামী নাগারুপন তামিল গেরিলাদের জন্য লড়াই করেছেন এক বছর। গতকাল মুক্তি পাওয়া তামিলদের মধ্যে তিনিও ছিলেন। বললেন, 'তামিল গেরিলারা জোর করে আমাকে দলে ভিড়িয়েছিল। পরিবারের কাছে ফিরে যেতে পেরে আমি আনন্দিত। পুনর্বাসন কেন্দ্রে আমি রাজমিস্ত্রির কাজ শিখেছি। বাড়ি ফিরে গিয়ে কাজ জুটিয়ে নিতে পারব বলে আশা করি।'
উল্লেখ্য, ২৫ বছর ধরে চলা গৃহযুদ্ধে ৮০ হাজার থেকে এক লাখ মানুষ নিহত হয়েছে। জাতিসংঘের হিসাব অনুযায়ী, গৃহযুদ্ধে শেষ পাঁচ মাসে সাত হাজার লোক নিহত হয় এবং এ সময় সরকারি বাহিনী ও গেরিলা, উভয়পক্ষই যুদ্ধাপরাধ করে। যদিও সরকার এ অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে।

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে