Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১৪ আগস্ট, ২০২০ , ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-১৩-২০২০

মার্কিন শীর্ষ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে চীনের নিষেধাজ্ঞা

মার্কিন শীর্ষ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে চীনের নিষেধাজ্ঞা

বেইজিং, ১৩ জুলাই- জিনজিয়াং প্রদেশে সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিমদের মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে চীনের বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আরোপিত নিষেধাজ্ঞার পাল্টা ব্যবস্থা নিয়েছে বেইজিং। সোমবার চীনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে বেইজিং।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, চীনের এই নিষেধাজ্ঞার তালিকায় আছেন যুক্তরাষ্ট্রের রিপাবলিকান দলীয় দুই সিনেটর টেড ক্রুজ ও মার্কো রুবিও। যারা চীনের কট্টর সমালোচক হিসেবে পরিচিত। তবে এই নিষেধাজ্ঞা ধরন এখনও পরিষ্কার নয়।

জিনজিয়াং প্রদেশের সংখ্যালঘু উইঘুর মুসলিম এবং অন্যান্যদের বন্দিশিবিরে আটকে রাখার অভিযোগ রয়েছে চীনের বিরুদ্ধে। যদিও চীন বরাবরই এই অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

করোনাভাইরাস মহামারি, দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য-সহ হংকংয়ে আরোপিত জাতীয় নিরাপত্তা আইন নিয়ে চীনের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক গত কয়েকমাস ধরে অবনতি ঘটেছে। বিশ্বের শীর্ষ অর্থনীতির এ দুই দেশ সর্বশেষ এই পাল্টাপাল্টি নিষেধাজ্ঞা আরোপ করল।

চীনের আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কবলে যারা পড়েছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন মার্কিন রিপাবলিকান দলীয় দুই সিনেটর টেড ক্রুজ ও মার্কো রুবিও, যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেশনাল-এক্সিকিউটিভ কমিশনের ক্রিস স্মিথ ও ইন্টারন্যাশনাল রিলিজিয়াস ফ্রিডমের অ্যাম্বাসেডর স্যাম ব্রাউনব্যাক।

জিনজিয়াংয়ে উইঘুর নিপীড়নের ঘটনায় চীনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপের মূল ক্রীড়ানক হিসেবে সিনেটর রুবিও ও ক্রুজকে দেখে বেইজিং। এছাড়া করোনাভাইরাস মহামারি, হংকং সঙ্কট ও জিনজিয়াং ইস্যুতে চীনের সমালোচনা করতে দেখা যায় স্মিথকে।

সোমবার নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়ে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র হুয়া চুনিং বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা চীনের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে গুরুতর হস্তক্ষেপের শামিল, আন্তর্জাতিক সম্পর্কের মূল নিয়ম-নীতির গুরুতর লঙ্ঘন। এই নিষেধাজ্ঞা চীন-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের মারাত্মক ক্ষতি করছে।

তিনি বলেন, পরবর্তী পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে আরও প্রতিক্রিয়া জানাবে চীন। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনও তথ্য দেননি চীনা এই কর্মকর্তা।

জাতিসংঘের বিশেষজ্ঞ এবং কর্মকর্তারা বলেছেন, জিনজিয়াংয়ের বন্দি শিবিরে অন্তত ১০ লাখ জাতিগত উইঘুর ও অন্যান্য মুসলিমদের আটকে রেখেছে চীন। তবে চীন জিনজিয়াংয়ের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে সন্ত্রাসবাদ ও চরমপন্থা দূর করতে উইঘুরদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয় বলে দাবি করে আসছে।

এর আগে, চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির জিনজিয়াং শাখার কর্মকর্তাসহ জ্যেষ্ঠ চার কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। এতে যুক্তরাষ্ট্রে তাদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত, ভ্রমণ নিষিদ্ধ এবং মার্কিনিদের সঙ্গে তাদের ব্যবসায় নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়।

সূত্র: বিবিসি, রয়টার্স

আর/০৮:১৪/১৩ জুলাই

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে