Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ৮ আগস্ট, ২০২০ , ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.5/5 (4 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০৮-২০২০

কেন বিশ্বকাপে ভারতের সঙ্গে পারে না পাকিস্তান?

কেন বিশ্বকাপে ভারতের সঙ্গে পারে না পাকিস্তান?

মুম্বাই, ০৮ জুলাই- বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কাছে এক বিশাল রহস্যের নাম ভারত। বিশ্বকাপে (ওয়ানডে কিংবা টি-টোয়েন্টি) যতবারই দেখা হয়েছে দু’দেশের, ততবারেই ভারত বিশাল একটি ধাঁধাঁ হয়েই ছিল পাকিস্তানের কাছে। সর্বশেষ ইংল্যান্ড বিশ্বকাপেও ভারতের কাছে হারতে হয়েছে পাকিস্তান। অথচ, এই পাকিস্তানই দুই বছর আগে ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির শিরোপা জিতে এসেছে। কিন্তু বিশ্বকাপ এলেই চিত্রটা বদলে যায় প্রতিবারই।

কেন বিশ্বকাপে পাকিস্তান কখনোই পারে না ভারতের বিপক্ষে? কেন, পাকিস্তান বিশ্বকাপের ময়দানে ভারতকে সামনে পেলেই চুপসে যায়? এর ব্যাখ্যা অনেক খোঁজা হয়েছে, কিন্তু কেউই সদুত্তর দিতে পারেননি। এবারও এর উত্তর নিয়ে নিজের মত করে একটা ব্যাখ্যা দাঁড় করানোর চেষ্টা করলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াকার ইউনুস।

কী কারণে বিশ্বকাপে ভারতের সামনে পড়লেই হেরে যায় পাকিস্তান? এ প্রশ্নটাই করা হয়েছিল ওয়াকার ইউনুসকে। প্রশ্নের জবাবে সাবেক এই পেসার বলেন, ‘বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত জিততে পারেনি পাকিস্তান। অন্য ফরম্যাটে আমরা ভাল খেলেছি ওদের বিরুদ্ধে, কিন্তু বিশ্বকাপ এলেই আমাদের বারবার হার মানতে হয় ভারতের কাছে। আমার মনে হয় ওই নির্দিষ্ট দিনে ভারত অনেক ভাল খেলেছে আমাদের চেয়ে।’

১৯৯৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে অজয় জাদেজা স্লগ ওভারে নির্দয় ছিলেন ওয়াকারের উপরে। ২০০৩ বিশ্বকাপে শচিন টেন্ডুলকারের দুরন্ত ইনিংস ভারতকে জয় এনে দেয়। দুটো বিশ্বকাপেই ওয়াকার ছিলেন পাকিস্তান দলে। এরপরও দুই দেশের দেখা হয়েছে বিশ্বকাপে। ফলাফল ভারতের দিকেই।

ওয়াকার বলছেন, ‘ব্যাঙ্গালুরু (১৯৯৬) ও প্রিটোরিয়ার (২০০৩ বিশ্বকাপ) ম্যাচে আমি খেলেছিলাম। ওই দুটো ম্যাচ আমরাও জিততে পারতাম। আমরাও ম্যাচের মধ্যেই ছিলাম; কিন্তু ম্যাচগুলো আমরা ছুড়ে দিয়ে এসেছিলাম। নির্দিষ্ট করে কোনো কারণের কথা হয়তো বলা সম্ভব নয়, তবে আমার মনে হয় বিশ্বকাপ বলে চাপটা নেওয়া সম্ভব হয়নি।’

চেতন শর্মাকে শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে জাভেদ মিয়াঁদাদের ম্যাচ জেতানোর পর থেকে শারজায় দুই দেশের সাক্ষাৎ হলেই শেষ হাসি তোলা থাকত পাকিস্তানের জন্যই। ভারতের মনের মধ্যে গেঁথে গিয়েছিল মিয়াঁদাদের সেই ছক্কা। তাই শারজায় বারবার হারতে হত ভারতকে। বিশ্বকাপেও কি তেমনই কোনো মনস্তাত্বিক চাপ অনুভব করেন পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা?

ওয়াকার বলছেন, ‘বিশ্বকাপে বারবার হারাটা হয়তো মনস্তাত্বিক চাপের কারণ হয়ে গিয়েছিল। তবে নির্দিষ্টভাবে হারের কোনও কারণ বলা কঠিন। নির্দিষ্ট দিনে ভারত অনেক ইতিবাচক এবং স্মার্ট ক্রিকেট খেলায় ম্যাচ জিতেছে।’

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/৮ জুলাই

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে