Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ৪ আগস্ট, ২০২০ , ২০ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৭-০১-২০২০

কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত, ৩ দিনে ৫ মৃত্যু

কুড়িগ্রামে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত, ৩ দিনে ৫ মৃত্যু

কুড়িগ্রাম, ০১ জুলাই- কুড়িগ্রামের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া বেশির ভাগ নদ-নদীর পানি কমতে শুরু করলেও জেলার সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি এখনও অপরিবর্তিত রয়েছে। এখনও বিপৎসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে ধরলা ও ব্রহ্মপুত্রের পানি। সার্বিক পরিস্থিতিতে বানভাসী মানুষের দুর্ভোগ কোনো মাত্রায়ই কমেনি। একদিকে করোনার প্রাদুর্ভাব, অন্যদিকে বন্যা, একসঙ্গে এ দুই দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হিমশিম খেতে হচ্ছে কুড়িগ্রামবাসীকে। শুকনা খাবার, বিশুদ্ধ পানি, জ্বালানী ও গো-খাদ্যের সংকটে ভুগছেন তারা। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বুধবার (১ জুলাই) সন্ধ্যা ৬টায় ধরলার পানি সেতু পয়েন্টে বিপৎসীমার ৩৯ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপুত্রের পানি চিলমারী পয়েন্টে বিপৎসীমার ৬০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছে।

কুড়িগ্রাম পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আরিফুল ইসলাম জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় ধরলা নদীর  পানি ১৫ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপুত্রের পানি ৮ সেন্টিমিটার হ্রাস পেয়েছে। 

বন্যা কবলিত মানুষদের সরকারি ত্রাণ প্রদান প্রসঙ্গে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা দিলীপ কুমার সাহা বলেন, বন্যা দুর্গত মানুষদের সহায়তার জন্য জেলার ৯টি উপজেলায় ৩০২ মে. টন চাল ও ৩৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এরই মাঝে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষদের মাঝে সে সব বিতরণের কাজ চলছে।

এদিকে গত ৭২ ঘণ্টায় জেলার বন্যাপ্লাবিত বিভিন্ন এলাকায় পানিতে ডুবে ৪ শিশুসহ ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুড়িগ্রাম সিভিল সার্জন ডাক্তার হাবিবুর রহমান। 

বন্যার পানিতে ডুবে নিহতদের ব্যাপারে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, বুধবার দুপুরে কুড়িগ্রাম সদরের মোগলবাসা ইউনিয়নে স্থানীয় অধিবাসী কানাই রায়ের দুই বছর বয়সী মেয়ে কথা রায় ও বিকেলের দিকে চিলমারী উপজেলার নয়ারহাট ইউনিয়নের গয়নারপটল গ্রামের জামাল ব্যাপারী (৫৫) বন্যার পানিতে ডুবে মারা যান। 

এর আগের দিন মঙ্গলবার (৩০ জুন) সকালে উলিপুর উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের জানজায়গির গ্রামের সাইফুল ইসলামের ১৪ মাস বয়সী ছেলেশিশু মোস্তাকিম (১৪ মাস) বন্যার পানিতে ডুবে মারা যায়। এছাড়া সোমবার (২৯ জুন) বিকেলে বাড়ির পাশের দোকানে বিস্কুট কিনতে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যায় নাগেশ্বরী উপজেলার নারায়লপুর ইউনিয়নের মোল্লাপাড়া গ্রামের আমীর হোসেনের ছেলে বেলাল হোসেন (৮)। একই দিনে কলাগাছের ভেলা নিয়ে ঘুরতে গিয়ে পানিতে ডুবে মারা যায় চিলমারী সদর ইউনিয়নের কড়াই বরিশাল গ্রামের জাহেদুল ইসলামের ছেলে শান্ত ইসলাম (৭)।

সূত্র: বাংলানিউজ
এম এন  / ০১ জুলাই

কুড়িগ্রাম

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে