Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১০ আগস্ট, ২০২০ , ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-১৮-২০২০

টঙ্গীতে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

টঙ্গীতে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে স্বামী আটক

গাজীপুর, ১৮ জুন- গাজীপুরের টঙ্গীতে যৌতুকের দাবীতে স্ত্রী টুম্পাকে হত্যার অভিযোগে স্বামী সাকিব মৃধাকে আটক করেছে পুলিশ। এদিকে টুম্পা হত্যার বিচারের দাবিতে টঙ্গী কলেজ গেট এলাকায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করেছে এলাকাবাসী। 

স্বজনরা জানায়, টঙ্গী পূর্ব থানার ইসলামপুর (দত্তপাড়া) আলম মার্কেট এলাকার মাইনুল ইসলাম টিটুর মেয়ে তানজিনা ইসলাম টুম্পার (১৭)। যৌতুকের দাবিতে স্বামী ও তার পরিবারের সদস্যরা টুম্পারকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। যৌতুকের জন্য প্রায়ই টুম্পার ওপর নির্যাতন চলতো। মেয়ের সুখের কথা ভেবে স্বামী সাকিব মৃধাকে এ পর্যন্ত প্রায় ৪ লাখ টাকার ফার্নিচার, একটি মোটরসাইকেল মিলিয়ে প্রায় ১৫ লাখ টাকার যৌতুক দেওয়া হয়েছে। 

এরপরও কিছুদিন আগে ব্যবসা করার অজুহাত দেখিয়ে বাবার কাছ থেকে যৌতুক এনে দিতে টুম্পাকে চাপ দেয় সাকিব ও তার বাবা-মা। রাজি না হওয়ায় তার ওপর প্রায়ই নির্যাতন চালানো হতো। নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে সম্প্রতি টুম্পা বাবার বাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেয়। জীবনের নিরাপত্তাহীনতার আশঙ্কার কথা জানিয়ে টুম্পা পরবর্তীতে স্বামীর বাড়িতে আর না পাঠাতে বাবা-মাকে অনুরোধ করে। কয়েকদিন আগে টুম্পাকে জোরপূর্বক ছিনিয়ে নিতে স্বামী সাকিব দলবল নিয়ে শ্বশুর বাড়িতে হামলা করে। এ ঘটনায় থানায় জিডি করেন টুম্পার নানা আবু হানিফ। কিন্তু অবশেষে স্থানীয় প্রভাব খাটিয়ে একধরনের জোড় করেই টুম্পাকে শ্বশুর বাড়িতে নেওয়া হয়। সেখানে যাওয়ার কয়েক দিন পর গত মঙ্গলবার গত্যার ঘটনা ঘটে।

এদিকে স্বামী সাকিবের ফাঁসির দাবিতে স্থানীয় এলাকাবাসী বৃহস্পতিবার দুপুরে দত্তপাড়া এলাকা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে ঢাকা ময়নমনসিংহ মহাসড়কের কলেজ গেইট এলাকায় এসে এক প্রতিবাদ সভায় মিলিত হয়। প্রতিবাদ সভায় স্থানীয় এলাকাবাসী বক্তব্য রাখেন।

এ সময় বক্তারা বলেন, দুই বছর আগে একই এলাকার (আলম মার্কেট) সাইদ মৃধার ছেলে সাকিব মৃধার সাথে টুম্পার বিয়ে হয়। বয়স কম ও স্কুলে লেখাপড়া করায় তাদের পরিবার বিয়েতে রাজি ছিল না। কিন্তু স্থানীয় প্রভাব খাটিয়ে এক ধরণের জোর করেই টুম্পাকে সাকিবের সাথে বিবাহ দিতে বাধ্য করা হয়।

বিয়ের আগে কথা ছিল, টুম্পা পরীক্ষায় পাস করলে তাকে লেখাপড়ার সুযোগ দিতে হবে। টুম্পা এ বছর ৪.৮৯ পয়েণ্ট পেয়ে কৃতিত্বের সাথে এসএসসি পাস করার পর কলেজে ভর্তির জন্য তার স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়িকে অনুরোধ জানায়। কিন্তু তারা কলেজে ভর্তি হতে টুম্পাকে নিষেধ করে এবং সাকিবের ব্যবসার কথা বলে যৌতুকের জন্য তাকে চাপ দিতে থাকে। গত মঙ্গলবার সকালে শ্বশুর বাড়ি থেকে ফোনে জানানো হয় টুম্পা ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।

টুম্পার নানা আবু হানিফ অভিযোগ করে বলেন, টুম্পাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে। টুম্পাকে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায়নি। এমনকি পুলিশকেও খবর দেওয়া হয়নি। আমরা টুম্পার শ্বশুর বাড়িতে যাওয়ার আগেই লাশ হাসপাতালে নিয়ে যায় সাকিব ও তার স্বজনরা।

টুম্পার লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুতকারী টঙ্গী পূর্ব থানার এসআই সেলিম জানান, নিহতের গলায় ফাঁসির দাগ ছাড়া শরীরে আর কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। টুম্পার স্বামী সাকিবকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় টুম্পার স্বামী সাবিক মৃধা, শাশুড়ি তাসলিমা, শ্বশুড় সাইদ মৃধাকে আসামি করে টঙ্গী পূর্ব থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সূত্র: কালের কন্ঠ

আর/০৮:১৪/১৮ জুন

গাজীপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে