Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ১১ আগস্ট, ২০২০ , ২৬ শ্রাবণ ১৪২৭

গড় রেটিং: 2.5/5 (4 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-১৭-২০২০

ভারত ও চীনের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়েছিল যে কারণে

ভারত ও চীনের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়েছিল যে কারণে

লাদাখে চীনা সেনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে কমপক্ষে ২৩ ভারতীয় সেনা নিহত ও শতাধিক সেনা আহত হওয়ার পর দুই দেশের মধ্যে সামরিক উত্তেজনা হঠাৎ বহুগুণ বেড়ে গেছে। চীনা পক্ষেও অন্তত ৪৩ সেনা হতাহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ভারত। তবে এ বিষয়ে চীনা কর্তুপক্ষ স্বীকার বা অস্বীকার কোনটাই করেনি।

সোমবার রাতে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত ও চীনের সেনাদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী এই সংঘর্ষ বাধে। তবে হঠাৎ কেন এমন সংঘাতে জড়ালো দু'দেশের সেনাবাহিনী? বুধবার জানা গেল, কিভাবে শুরু হয়েছিল সংঘর্ষ।

সমুদ্রপৃষ্ঠের ১৫ হাজার ফুট উঁচুতে অবস্থিত গালওয়ান নদীর উপত্যকায় চীনারা একটি তাঁবু বানিয়েছিল। গত ৬ জুন দুই দেশের সেনা কর্মকর্তাদের বৈঠকে স্থির হয়, চীন ওই তাঁবু সরিয়ে নেবে। সোমবার বিকালে ভারতীয় সেনা ওই তাঁবু সরিয়ে দিতে চেষ্টা করে। তখন চীনা সেনারা ভারতীয় সেনার কর্নেল বি এল সন্তোষকে আক্রমণ করে। দুই দেশের সেনার হাতেই ছিল ব্যাটন ও কাঁটা লাগানো রড। ভারতীয় সেনা সন্তোষ বাবুকে বাঁচাতে চেষ্টা করলে মারপিট বেধে যায়। দু'পক্ষই আরো সেনা ডেকে পাঠায়। মোট ছ'ঘণ্টা সংঘর্ষ চলে। কয়েকজন সৈনিক নদীতে পড়ে যায়।

মঙ্গলবার সকালে ভারতীয় সেনা জানায়, চীনাদের সঙ্গে সংঘর্ষে এক কর্নেল ও দুই জওয়ান নিহত হয়েছেন। সন্ধ্যায় আরো একটি বিবৃতিতে জানানো হয়, সংঘর্ষে আরও ২০ জন গুরুতর আহত হয়েছিলেন। প্রচণ্ড ঠান্ডার মধ্যে তাঁরা মারা গিয়েছেন।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, 'গালওয়ান উপত্যকায় আমাদের কয়েকজন সেনা মারা গিয়েছেন। তাঁরা চরম সাহস ও আত্মত্যাগের পরিচয় দিয়েছেন। জাতি তাদের এই আত্মত্যাগ ভুলবে না।'

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শংকর বুধবার চীনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই-র সঙ্গে কথা বলেন। তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দেন, চীনারা পরিকল্পিতভাবেই আমাদের সেনাদের ওপরে হামলা চালিয়েছে। এত মানুষের মৃত্যুর জন্য তারাই দায়ী।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও এদিন বলেন, তিনি জাতিকে আশ্বাস দিতে চান, জওয়ানদের আত্মত্যাগ বৃথা যাবে না। ভারত শান্তি চায়। কিন্তু কেউ যদি তাকে উস্কানি দেয়, সে উপযুক্ত জবাব দিতে জানে। চীন থেকে বলা হয়েছে, যারা এই সংঘর্ষের জন্য দায়ী, তাদের শাস্তি দিতে হবে। দুই দেশের নেতারা যা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আমরা তা মেনে চলব।

সূত্র: দ্য ওয়াল

আর/০৮:১৪/১৭ জুন

জানা-অজানা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে