Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শুক্রবার, ১০ জুলাই, ২০২০ , ২৫ আষাঢ় ১৪২৭

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৬-০৪-২০২০

আনসারে আক্রান্তের চেয়ে সুস্থতার হার বেশি

আনসারে আক্রান্তের চেয়ে সুস্থতার হার বেশি

ঢাকা, ০৪ জুন- বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে দেশ ও মানুষের সেবা দিতে গিয়ে বৃহস্পতিবার (৪ জুন) বিকেল ৫টা পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ৩৭২ সদস্য। নতুন করে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও চার আনসার সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন।

তবে সুস্থতার সংখ্যাও বেড়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২২ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন মোট ১৮৩ সদস্য।

বৃহস্পতিবার রাতে বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদর দফতর থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এ বিষয়ে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপ-পরিচালক (যোগাযোগ) মেহেনাজ তাবাসসুম রেবিন জানান, এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে বাহিনীর দুই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ৩৭২ সদস্য আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৬ জন এবং ঢাকার বাইরে আক্রান্ত ৭৬ জন।

আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন বাহিনীর উপ-মহাপরিচালক একজন, উপ-পরিচালক (চিকিৎসা) একজন, ১০৫ জন ব্যাটালিয়ন আনসার, ২৫৮ জন অঙ্গীভূত আনসার, একজন বিশেষ আনসার, একজন সিগন্যাল অপারেটর, একজন নার্সিং সহকারী, দুজন মহিলা আনসার, একজন ভিডিপি সদস্য এবং একজন আনসার কমান্ডার। ৪ জুন বিকেল ৫টা পর্যন্ত আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর করোনা আক্রান্তদের মধ্যে সুস্থতার হার ৪৯.০৩ শতাংশ।

আক্রান্তদের মধ্যে ৮১ জন ব্যাটালিয়ন আনসার জাতীয় সংসদ ভবনে এবং ১৮৪ জন অঙ্গীভূত সাধারণ আনসার ঢাকা মহানগর পুলিশের সঙ্গে কর্মরত ছিলেন। বাকিদের কেউ সদরদফতর এবং কেউ বিভিন্ন জেলায় কর্মরত ছিলেন।

আক্রান্তদের মধ্য থেকে সুস্থতা বিশ্লেষণে দেখা যায়, ব্যাটালিয়ন আনসার সুস্থ হয়েছেন ৭৬ জন, অঙ্গীভূত সাধারণ আনসার ১০৩ জন, নার্সিং সহকারী একজন, সিগন্যাল অপারেটর একজন, ভিডিপি সদস্য একজন এবং মহিলা আনসার সুস্থ হয়েছেন একজন। করোনাযুদ্ধে জয়ী বাহিনীর এসব সদস্য সুস্থ হয়ে যার যার কর্মস্থলে যোগদান করে দেশমাতৃকার সেবায় কাজ করে যাচ্ছেন।

আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর করোনা আক্রান্তদের মধ্যে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৩ জন। প্রাতিষ্ঠানিক ও বিভিন্ন আবাসিক হোটেল কোয়ারেন্টাইনে ৫৫২ জন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, কুয়েত মৈত্রী হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতাল এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা উপসর্গ নিয়ে বাহিনীর ১৭৭ সদস্য চিকিৎসাধীন।

করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত বাহিনীর আব্দুল মজিদ নামে এক সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন। তিনি পিসি অঙ্গীভূত আনসার (আইডি নং-১৩১৮৯), বাড়ি বগুড়ায়। মৃত্যুর আগে তিনি গুলশান বিভাগের ভাটারা থানায় কর্মরত ছিলেন। গত ১১ মে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি করোনার উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/৪ জুন

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে