Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ২২ মে, ২০১৯ , ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.1/5 (107 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-২৮-২০১১

সিডনিতে স্মরণ: মন থেকে বিচ্ছিন্ন করা যায়নি রাজ্জাককে

ফজলুল বারী, সিডনি থেকে


সিডনিতে স্মরণ: মন থেকে বিচ্ছিন্ন করা যায়নি রাজ্জাককে
‘আব্দুর রাজ্জাককে ডামুড্যার মানুষ বললে তিনি কষ্ট পেতেন। তিনি নিজেকে আপাদমস্তক বাংলাদেশের মানুষ মনে করতেন। তার মৃত্যুর পর প্রমাণিত হয়েছে, তিনি বাংলাদেশের মানুষের কতো আপন ছিলেন। বাংলাদেশের মানুষ কেঁদেছে, কাঁদছে তার জন্যে।’

‘তার প্রতি যারা অবিচার করেছেন তারা কেউ জিততে পারেননি। বাংলাদেশের মানুষের মন থেকে তাকে বিচ্ছিন্ন করতে পারেননি। বাংলাদেশের মানুষের মন থেকে তাকে বিচ্ছিন্ন করা সম্ভব হবে না কোনো দিন’।

এভাবেই মুক্তিযুদ্ধের নেতা আব্দুর রাজ্জাককে অশ্রু সজল স্মরণ করেছেন সিডনি প্রবাসী শরীয়তপুরবাসী। মঙ্গলবার সিডনির ম্যাকুয়ারি ফিল্ডসে অনুষ্ঠিত এই স্মরণসভায় নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে মিজানুর রহমান তরুন, শেখ শামীমুল হক, ব্যারিস্টার সিরাজুল হক, ড. নিজাম উদ্দিন আহমদ, ড. খায়রুল চৌধুরী, ড. মোশাররফ হোসেন, হারুনুর রশীদ আজাদ, নাজমুন আহসান শেখ, হাবিবুর রহমান, জাহাঙ্গীর হোসেন, শাহাদাত হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। রফিক উদ্দিন আহমদ সভা পরিচালনা করেন।
সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত অনুসারীদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক ছিলেন শ্রেষ্ঠতম। বঙ্গবন্ধু তাকে নিজের হাতে তৈরি করেন। সে কারণে তোফায়েল আহমদের সিনিয়র হওয়া সত্ত্বেও সত্তুরের নির্বাচনে তাকে প্রাদেশিক পরিষদ আর তোফায়েল আহমদকে জাতীয় পরিষদের সদস্য করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধের সময় এই ছাত্রলীগ-যুব নেতাদের সবার গড় বয়স ছিল ২৫ থেকে ৩০ এর মধ্যে। তারাই অকুতোভয় নেতৃ্ত্ব দিয়েছেন স্বাধীনতা যুদ্ধে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর মোশতাক চক্র অনেক নির্যাতন করেও এদের কাবু করতে পারেনি।

বঙ্গবন্ধু যখন যে দায়িত্ব দিয়েছেন, আব্দুর রাজ্জাক তা বিশ্বস্ততার সঙ্গে পালন করেছেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর সংগঠন ধরে রাখার সংগ্রামেও সামনে থেকে নেতৃ্ত্ব দিয়েছেন।

১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ফিরলে রাজ্জাকের নেতৃ্ত্বেই গঙ্গার পানিবন্টন চুক্তি সম্ভব হয়। কিন্তু শেষ জীবনে তিনি হয়েছেন নিদারুণ অবহেলা আর বঞ্চনার শিকার। তার মৃত্যুর পর মানুষের ভালোবাসার যে প্রকাশ ঘটেছে তাতে ঘুচে গেছে সব যন্ত্রণা সব কষ্ট। তিনি এখন সব কিছুর উর্ধ্বে। মুক্তিযুদ্ধে তার অবদানই তাকে দেশের মানুষের মাঝে তাকে বাঁচিয়ে রাখবে।

মিলাদ মাহফিল, মরহুম নেতার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনায় মোনাজাতের মাধ্যমে সভা শেষ হয়।

অষ্ট্রেলিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে