Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৯ , ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 4.4/5 (39 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০৬-২০১৩

রওশন-আনিস-বাবলুর নেতৃত্বে পৃথক জাতীয় পার্টি

দিয়াম তালুকদার



	রওশন-আনিস-বাবলুর নেতৃত্বে পৃথক জাতীয় পার্টি

ঢাকা, ০৬ ডিসেম্বর- নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভায় জাতীয় পার্টির ৪জন মন্ত্রী, দু’জন প্রতিমন্ত্রী ও একজন মন্ত্রী পদমর্যাদার প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা রয়েছেন। এর মধ্যে দু’জন মন্ত্রী ও দু’জন প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগপত্র রয়েছে এরশাদের হাতে। বাকি তিনমন্ত্রী পদত্যাগপত্র দেননি। গুঞ্জন রয়েছে এরা পদত্যাগপত্র দেবেন না। উপরন্তু পৃথক জাতীয় পার্টি গঠন করে নির্বাচনে অংশ নেবেন।

এরশাদের নির্বাচন বর্জন ও নির্বাচনকালীন মন্ত্রিসভা থেকে সরে আসার বিষয়ে ভিন্নমত রয়েছে দলের অন্যতম নেতা রওশন এরশাদ, পানি সম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ও উপদেষ্টা জিয়াউদ্দি বাবলুরও। বাণিজ্যমন্ত্রী জিএম কাদেরেরও ভিন্নমত থাকলেও এরশাদের ছোট ভাই হওয়ায় তিনি কিছু বলতে পারছেন না।

বিদ্যমাত পরিস্থিতিতে এরশাদ নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে ফিরে না এলে জাতীয় পার্টি আরেক দফা ভাঙনের মুখে পড়তে পারে। সে ক্ষেত্রে রওশন এরশাদের নেতৃত্বে একটি বড়ো অংশ নির্বাচনে অংশ নিতে পারে। পরিস্থিতি এমন একটি জায়গায় দাড়িয়েছে, রওশন এরশাদের নেতৃত্বে আলাদা দল দলে এরশাদের জাতীয় পার্টি অনেকটাই হুমকির মুখে পড়বে।

এর আগে এরশাদের এমন হঠাৎ হঠাৎ মত পরিবর্তনের ফলে জাতীয় পার্টি কমপক্ষে চারবার ভাঙনের কবলে পড়েছে। এর মধ্যে নাজিউর রহমান মঞ্জুর বিজেপি ও আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর জেপি রাজনীতিতে শক্ত অবস্থানে রয়েছে। এছাড়া সদ্য গঠিত কাজী জাফরের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টিও শক্ত ভিত গড়তে পারে। তারা বৃহস্পতিবার বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সংসদের বিরোধী দলীয় নেত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন এবং ১৮ দলের আন্দোলনের সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন।

রওশন এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি নির্বাচনে গেলে এই তফসিলেই কমপক্ষে ৫০টি আসনে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ রয়েছে। এ সুযোগ জাতীয় পার্টির অনেক প্রার্থীই হাতছাড়া করতে চাইবে না।

এবার নির্বাচনে অংশ না নিলে আগামী জানুয়ারিতে মঞ্জুর হত্যা মামলার চূড়ান্ত রায়ে এরশাদের জেল হতে পারে। যার ফলে জাতীয় পার্টিকে নেতৃত্ব দেয়ার মতো আর হয়তো কেউ থাকবে না। এরশাদের ভাই বাণিজ্যমন্ত্রী গোলাম মোহাম্মদ কাদেরও এরশাদের এমন হঠাৎ হঠাৎ সিদ্ধান্তে বিব্রত।

তবে এখনই চূড়ান্ত কোন কিছু বলার সময় আসেনি বলে জানিয়েছেন জাতীয় এক পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য। তার মতে, শেষ সময়ে এসে এরশাদের এই ডিগবাজী দলের জন্য ক্ষতি বয়ে আনবে। অনেকটা ক্ষোভের সঙ্গেই বলেন, ওনার তো বয়স হয়েছে। উনি শেষ হয়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দলটিকেও শেষ করে দিতে চাইছেন।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে