Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ২৫ মে, ২০২০ , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-২৮-২০২০

চীনের মতো আসামেও স্টেডিয়ামে কোয়ারেন্টিন

চীনের মতো আসামেও স্টেডিয়ামে কোয়ারেন্টিন

দিসপুর, ২৮ মার্চ- চীনের উহানের মতো করোনা আক্রান্তদের জন্য স্টেডিয়ামে কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র তৈরি হচ্ছে আসামেও।

আক্রান্তদের আলাদা রাখা ও চিকিৎসা দেয়ার জন্য রাজ্যের সরুসোজাই স্পোর্টস কমপ্লেক্সে তৈরি করা হচ্ছে ৭০০ বেডের বিরাট এক কোয়ারেন্টিন কেন্দ্র। চলতি সপ্তাহেই স্টেডিয়ামটি বিরাট এক অস্থায়ী হাসপাতালে পরিণত হবে।

বৃহস্পতিবার স্টেডিয়ামটি পরিদর্শন শেষে দেয়া এক টুইট বিবৃতিতে এ কথা জানান রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। আসামের আরও একটি স্টেডিয়ামকেও কোয়ারেন্টিন হাসপাতাল হিসেবে ব্যবহারের প্রস্তাব দিয়েছে রাজ্যের ক্রিকেট বোর্ড। খবর এনডিটিভির।

টুইটে হিমন্ত লেখেন, একটি বিশাল কোয়ারেন্টিই কেন্দ্র তৈরি করা হচ্ছে গুয়াহাটির সরুসোজাই স্পোর্টস কমপ্লেক্সে। একসঙ্গে ৭০০ জনকে রাখার ক্ষমতা রয়েছে এই কেন্দ্রের। সকালে সেখানকার প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে পরিদর্শনে গিয়েছিলাম। এক সপ্তাহের মধ্যে এটি প্রস্তুত হয়ে যাবে।

টুইটের সঙ্গে ছবিও শেয়ার করেছেন বিশ্বশর্মা। সেখানে দেখা যাচ্ছে, মাস্ক পরিহিত কর্মীরা বাঁশের কাঠামোর সঙ্গে দড়ি বেঁধে তৈরি করছেন কেন্দ্রটি। দীর্ঘ এ কেন্দ্রটি ইউ শেপের এয়ারক্র্যাফট হ্যাঙ্গারের মতো দেখতে।

অর্থাৎ বিমান রাখার বিরাট কেন্দ্রের মতোই বড় হবে কেন্দ টি। রোগীদের চিকিৎসায় আসাম মেডিকেল কলেজের শেষ বর্ষের ৭০০ ছাত্রকে ও ২০০০ নার্স প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

শুধু আসামই নয়, পিছিয়ে নেই ওড়িষাও। করোনার সংক্রমণকে ‘স্টেজ থ্রি’ পর্যন্ত পৌঁছতে না দেয়ার পদক্ষেপ চলছে ভারতের এই রাজ্যেও। ভারতে প্রথম রাজ্য হিসেবে চীনের মতোই দ্রুততম গতিতে হাসপাতাল নির্মাণের কাজ শুরু করেছে ওড়িষা।

ইতোমধ্যে এক হাজার শয্যার একটি অস্থায়ী হাসপাতাল নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যসরকার। ওড়িষা সরকার নিশ্চিত করেছে, আগামী ১৪ দিনের মধ্যেই এই হাসপাতাল পুরোপুরি তৈরি হয়ে যাবে।

শুধু তা-ই নয়, এতগুলো বেডে যাতে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক রোগীকে ভর্তি করে দ্রুত পরিষেবা দেয়া যায়, সে চেষ্টাও করবে সরকার।

হাসপাতাল গড়ার এই উদ্যোগে সরকারের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে রাজ্যের সবক’টি মেডিকেল কলেজ। অনেকেই বলছেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের মোকাবেলায় নতুন পথ দেখাচ্ছে ওড়িষা।

বিশেষজ্ঞরা বারবার সতর্ক করে বলছেন, একবার যদি সামাজিক সংক্রমণ শুরু হয়ে যায় করোনাভাইরাসের, তাহলেই এই অসুখ পৌঁছে যাবে স্টেজ থ্রি-তে। তাহলে ভারতকে মহামারী থেকে রক্ষা করা যাবে না।

আর/০৮:১৪/২৮ মার্চ

আসাম

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে