Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ , ১৫ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (22 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-০১-২০১৩

শামীম ওসমানের মনোনয়ন নিয়ে নারায়ণগঞ্জে চরম ক্ষোভ

বিল্লাল হোসেন রবিন



	শামীম ওসমানের মনোনয়ন নিয়ে নারায়ণগঞ্জে চরম ক্ষোভ
নারায়ণগঞ্জ, ০১ ডিসেম্বর- শেষ পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জের আলোচিত আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমানকে দলীয় মনোনয়ন দেয়ায় নারায়ণগঞ্জে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। চরমভাবে ক্ষুব্ধ দলের বড় একটি অংশ। সেই সঙ্গে সাধারণ মানুষও। তবে শামীম ওসমান শিবির উচ্ছ্বসিত। তার সমর্থিত নেতাকর্মীরা উজ্জীবিত হয়ে উঠেছে। 
 
শামীম ওসমানের মনোনয়ন নিয়ে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেত্রী ডা. সেলিনা হায়াত আইভী বলেন, নারায়ণগঞ্জ-৪ ও ৫ আসনে সাধারণ মানুষের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটেনি। বিশেষ করে ৪ আসনে মানুষ আশা করেছিল এমন কাউকে মনোনয়ন দেয়া হবে যাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি আর ভূমিদস্যুতার অভিযোগ থাকবে না। তারপরও আমি মনে করি নেত্রী (শেখ হাসিনা) যাদের যোগ্য মনে করেছেন তাদেরকে মনোনয়ন দিয়েছেন। 
 
এছাড়া, শুক্রবার বিকালে নাসিকের ১৮ নং ওয়ার্ডে একটি মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডা. আইভী বলেন, রাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতায় নারায়ণগঞ্জে যারা খুন, গুম, সন্ত্রাস, নারী নির্যাতন করছে তাদেরকেই সরকার পুরস্কার হিসেবে মনোনয়ন দিচ্ছে। ওই অনুষ্ঠানে তিনি নারায়ণগঞ্জের সকল মা-বোনকে অত্যাচার-জুলুমের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে আমি যখন আপনাদের ডাক দেবো, তখন আপনারা সে ডাকে সাড়া দিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে আসবেন। নারায়ণগঞ্জের সবাই একত্রিত থাকলেই ওই সব জল্লাদকে শায়েস্তা করা সম্ভব হবে।
 
আওয়ামী লীগের সাবেক এমপি এস এম আকরাম বলেছেন, শেখ হাসিনা সন্ত্রাসীদের পছন্দ করেন। তাই শামীম ওসমানকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। 
 
আওয়ামী লীগের এক শীর্ষ নেতা বলেন, ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত শামীম ওসমানের কারণে নারায়ণগঞ্জে প্রকৃত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ছিল কোণঠাসা। তখন ছিল শামীম লীগের তৎপরতা। যেমন শহরে শামীম লীগ নদীর ওই পাড়ে (বন্দর) লাঙ্গল লীগ। এবারও এর পুনরাবৃত্তি হতে যাচ্ছে। ওই নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করে আরও বলেন, ২০০১ সালের নির্বাচনে পরাজিত হয়ে শামীম ওসমান রাতের আঁধারে পালিয়ে গেছে। তাকে ছাড়াই ২০০৮ সালের নির্বাচনে আমরা নারায়ণগঞ্জে ৪টি আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিজয়ী করি। অথচ আজ শামীম ওসমানকে দল মনোনয়ন দিয়েছে। এতে আওয়ামী লীগের ত্যাগী ও নির্যাতিত নেতাকর্মীরা কষ্ট পেয়েছে। 
 
সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের আহ্বায়ক রফিউর রাব্বি বলেন, ওসমান পরিবার নারায়ণগঞ্জে প্রমাণিত খুনি পরিবার। আমরা বলে আসছিলাম, এ পরিবারের কাউকে আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি এবং জাতীয় পার্টি থেকে যেন মনোনয়ন না দেয়া হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগ সর্বস্তরের মানুষের দাবি উপেক্ষা করে শামীম ওসমানকেই মনোনয়ন দিয়েছে। সাধারণ মানুষ আওয়ামী লীগের এ সিদ্ধান্তে নিঃসন্দেহে ক্ষুব্ধ। তাই জনগণের প্রতি আমাদের আহ্বান থাকবে নির্বাচনে এ খুনি পরিবারটির বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়ার। 
 
নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্য সচিব কবি হালিম আজাদ বলেন, গডফাদার ও খুনিকে মনোনয়নপত্র দেয়ায় তা নিঃসন্দেহে নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য দুঃখের ও কষ্টের।
 
ওদিকে নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য মনোনয়ন না পাওয়ায় বর্তমান সংসদ সদস্য সারাহ বেগম কবরী কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।
 
অপরদিকে মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট খোকন সাহা বলেন, শামীম ওসমানকে মনোনয়ন দেয়ায় দলীয় প্রধানের প্রতি আমরা কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। এখন আমাদের কাজ সর্বশক্তি নিয়োগ করে শামীম ওসমানকে জয়যুক্ত করা। 
ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শওকত আলী বলেন, অতীতের সংসদ সদস্য আমাদের যে দুঃখ-কষ্ট দিয়েছে, শামীম ওসমানের মনোনয়ন প্রাপ্তিতে আমাদের আর কোন দুঃখ-কষ্ট নেই। 

নারায়নগঞ্জ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে