Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, শনিবার, ২৫ জানুয়ারি, ২০২০ , ১২ মাঘ ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-২৯-২০১৩

১৭ ঘণ্টা পর স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের আগুন নিয়ন্ত্রণে, তদন্ত কমিটি গঠন


	১৭ ঘণ্টা পর স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের আগুন নিয়ন্ত্রণে, তদন্ত কমিটি গঠন
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর- প্রায় ১৭ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে গাজীপুরের কোনাবাড়ির স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। এ ঘটনায় গঠন করা হয়েছে ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি।
 
বিকেল ৪টার দিকে ঘটনাস্থলে উপস্থিত ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক মেজর এ কে এম সাকিল নেওয়াজ বলেন, আগুন ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণে এসেছে। আগুন আর বাড়ার সম্ভাবনা নেই।এসময় তিনি অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনাকে তিনি নাশকতা বলে মন্তব্য করেন।
 
এদিকে ভয়াবহ এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা তদন্তে গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. মোহসীনকে প্রধান করে ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। আগামী ৭ দিনের মধ্যে ওই কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়।
 
আগুনের খবর পেয়ে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সরকারের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা, বিজিএমইএ প্রতিনিধি দলসহ বিভিন্ন পর্যায়ের লোকজন ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে যান।
 
সকাল সোয়া ৮টায় স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের প্রধান কার্যালয়ের জেনারেল ম্যানেজার রেজাউল করিম সাংবাদিকদের বলেন, অগ্নিকাণ্ডটি নাশকতামূলকভাবে ঘটানো হয়েছে। কে বা কারা করেছে তা এখনও বলা যাবে না।
 
প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টায় কোনাবাড়ি বিসিকের স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনে স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপের একটি ১০ তলা ভবন ও দুটি ৬তলা ভবন সম্পূর্ণ পুড়ে যায়। দীর্ঘ ১৬ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে ফায়ার সার্ভিস আগুন নিয়ন্ত্রণে এনেছে বলে দাবি করলেও ১০ তলা ভবনে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। অগ্নিকাণ্ডে কারখানার প্রবেশ পথে নিরাপত্তারক্ষীদের অফিস ও ভেতরের রাস্তায় প্রায় ১৮টি কাভার্ডভ্যান ও অন্যান্য ১৩টি গাড়িসহ মোট ৩১টি গাড়ি পুড়ে যায়। কারখানার ভেতরে গিয়ে পাওয়া যায় শুধু পোড়া গন্ধ। অগ্নিদ্বগ্ধ ভবনগুলোতে মূল্যবান জিনিসপত্র পোড়ে ছাই হয়ে যায়।
 
কর্তৃপক্ষ বলছেন, গার্মেন্ট, ট্রেক্সটাইল, প্যাকেজিংসহ মোট ৮টি ইউনিটে কর্মরত শ্রমিকের সংখ্যা প্রায় ১৮ হাজার। এই বিপুল সংখ্যক শ্রমিকের কর্মসংস্থান স্ট্যান্ডার্ড গ্রুপ এখন শুধুই স্মৃতি। কবে নাগাদ এই প্রতিষ্ঠান চালু হতে পারে, ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কত, তাও এখন সঠিকভাবে বলতে পারছেন না কেউ।
 
এদিকে দীর্ঘ সময় আগুন জ্বলতে থাকায় কোনাবাড়ি ঘটনাস্থলের এলাকায় বসবাসকারীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করে। ঘটনাস্থলে হাজার হাজার মানুষ চারিদিকে দাঁড়িয়ে আগুনের লেলিহান দৃশ্য দেখেন।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে