Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২ জুন, ২০২০ , ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০৩-০৭-২০২০

রামগঞ্জে বিএনপি নেতা শ্রমিক লীগের সভাপতি!

রামগঞ্জে বিএনপি নেতা শ্রমিক লীগের সভাপতি!

লক্ষ্মীপুর, ০৭ মার্চ- লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলা বিএনপি নেতা বিল্লাল হোসেন মিজিকে ইছাপুর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি মনোনীত করা হয়েছে। সম্প্রতি উপজেলা শ্রমিক লীগের একাংশের সভাপতি দাবি করা নজরুল ইসলাম লেদু মাল ও সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন লিটন হাজারি এ কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকসহ স্থানীয়ভাবে ব্যাপক সমালোচনা চলছে।

তবে জেলা শ্রমিক লীগের দায়িত্বশীল নেতারা বলছেন, নজরুলদের কমিটি ভুয়া। তারা হঠাৎ কথিত কমিটির নেতা বনে গিয়ে ভুয়া পরিচয় দিচ্ছেন। রামগঞ্জে শ্রমিক লীগের বৈধ আহ্বায়ক কমিটি রয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, বিল্লাল উপজেলার ইছাপুর ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি ও উপজেলা কমিটির সদস্য ছিলেন। তিনি বিএনপির মিছিল-সমাবেশে নিয়মিত অংশ নেন।

দলীয় সূত্র জানায়, গত বছরের ৪ নভেম্বর লিটন ভূঁইয়া গাজীকে আহ্বায়ক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট রামগঞ্জ উপজেলা শ্রমিক লীগের নতুন কমিটি দেয়া হয়। জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক মামুনুর রশিদ ও যুগ্ম-আহ্বায়ক ইউসুফ পাটোয়ারী এ কমিটির অনুমোদন দেন।

কিন্তু কয়েকদিন পরই পূর্বের তারিখ দিয়ে লক্ষ্মীপুর-৪ আসনের এমপি আনোয়ার খানের অনুসারী হিসেবে পরিচিত নজরুল ইসলাম লেদু মালকে সভাপতি ও আনোয়ার হোসন লিটন হাজারিকে সাধারণ সম্পাদক করে একটি কমিটি প্রকাশ হয়। তবে কেন্দ্র এবং জেলা শ্রমিক লীগের দায়িত্বশীল কোনো নেতা এ কমিটির অনুমতি দেননি।

জেলা শ্রমিক লীগের আগের কমিটির নেতারা আগের তারিখ দিয়ে সভাপতি-সম্পাদক করে কমিটি দিয়েছেন বলে প্রচারণা চালানো হচ্ছে। তবে ৪ নভেম্বরের আগে তাদের এ কমিটির আত্মপ্রকাশ ঘটেনি।

জানতে চাইলে রামগঞ্জ উপজেলা শ্রমিক লীগের একাংশের সভাপতি দাবি করা নজরুল ইসলাম লেদু মাল বলেন, বিল্লাল বিএনপি নেতা ছিলেন। এমপি আনোয়ার খানের এক সভায় তিনি বিএনপি থেকে আওয়ামী লীগে যোগ দিয়েছেন। পরে তাকে ইছাপুর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি করা হয়। এ নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হলে ওই কমিটি স্থগিত করা হয়।

এ ব্যাপারে জেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক মামুনুর রশিদ বলেন, নজরুল ও আনোয়ারকে নিয়ে কোনো কমিটি দেয়া হয়নি। তারা ভুয়া। ওই কমিটিতে কে বা কারা স্বাক্ষর করেছেন তাও জানেন না জেলার নেতারা। এখন আবার তারা বিএনপি নেতাদেরকে দিয়ে কমিটি গঠন করছেন। এ ব্যাপারে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন, সংগঠনকে গতিশীল করার জন্য সাংগঠনিক নিয়ম অনুযায়ী উপজেলা শাখার আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/০৭ মার্চ

লক্ষীপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে