Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০ , ১৪ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১৯-২০২০

যাত্রী হিসেবে প্রাইভেটকারে তুলে সর্বস্ব লুট করেন তারা

যাত্রী হিসেবে প্রাইভেটকারে তুলে সর্বস্ব লুট করেন তারা

ঢাকা, ১৯ ফেব্রুয়ারি- প্রাইভেটকারে যাত্রী উঠিয়ে ছিনতাই ও হত্যাকাণ্ডের পৃথক ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুজনকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা ছিনতাই ও হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সাভার মডেল থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকার পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার এ তথ্য জানান।

গ্রেফতাররা হলেন চাঁদপুরের মতলব উত্তর থানার সরদারকান্দি গ্রামের মুকিত খানের ছেলে মো. শাহিন খান (৩৪) এবং মাদারীপুরের কালকিনি থানার পূর্বমাইজপাড়া গ্রামের ইস্কান্দার আলীর ছেলে মো. মুর্তুজা (৩৪)।

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, গত ৯ ফেব্রুয়ারি মানিকগঞ্জে কর্মরত পুলিশ কনস্টেবল লিটন মাহাতোকে কৌশলে প্রাইভেটকারে উঠিয়ে হাত-পা বেঁধে হত্যা করার ভয় দেখিয়ে পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে বিকাশের মাধ্যমে এক লাখ ২৫ হাজার টাকা মুক্তিপণ আদায় করে ছিনতাইকারী চক্রের চার সদস্য। এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি মামলা করা হলে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা ছিনতাইকারীদের গ্রেফতারে কাজ শুরু করেন। এরই ধারাবাহিকতায় গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল গত সোমবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর মিরপুর-২ পোস্ট অফিসের সামনে থেকে ছিনতাইয়ে ব্যবহৃত প্রাইভেটকারসহ মো. মুর্তুজাকে গ্রেফতার করে। একইদিন রাত সাড়ে ১১টার দিকে গোয়েন্দা পুলিশের অন্য একটি অভিযানিক দল চাঁদপুরের সরদারকান্দি গ্রাম থেকে মো. শাহীন খানকে গ্রেফতার করে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতাররা জানান, তারা গত ১৮ অক্টোবর মানিকগঞ্জের বাসিন্দা নিরাপত্তা কর্মী আলাউদ্দিনকে (৪৫) যাত্রী হিসেবে প্রাইভেটকারে উঠিয়ে টাকা-পয়সা না দেয়ায় মারধর ও হত্যা করে ধামরাইয়ের জয়পুরা এলাকার পাল সিএনজি পাম্পের পার্শ্ববর্তী ইঞ্জিনিয়ার আবু তাহেরের বাড়ির কাছে ফেলে দেন। একইভাবে মো. আবু নাঈম (৫৪) ও তার চাচাতে ভাই বেলায়েত হোসেনকে প্রাইভেটকারে উঠিয়ে হাত-পা বেঁধে এটিএম কার্ডের পিন নম্বর নিয়ে এক লাখ ৩০ হাজার টাকা এবং বেলায়েতের মোবাইলের বিকাশ অ্যাকাউন্ট থেকে ২৫ হাজার টাকা ও দুটি মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়।

পুলিশ সুপার আরও বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এই চক্রটি কৌশলে প্রাইভেটকারে যাত্রী উঠিয়ে ছিনতাই, মুক্তিপণ আদায়সহ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটিয়ে আসছে। বিষয়টি জানার পর চক্রটিকে ধরতে ঢাকা জেলা উত্তর গোয়েন্দা পুলিশকে দায়িত্ব দেয়া হয়। তারা তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার করে চক্রটির দুই সদস্যকে গ্রেফতার করেছে। এছাড়াও ঘটনার সঙ্গে জড়িত আরও দুই সদস্যকে শনাক্ত করা হয়েছে। তাদেরকে গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সূত্র:  জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/১৯ ফেব্রুয়ারি

অপরাধ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে