Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বুধবার, ৮ এপ্রিল, ২০২০ , ২৫ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১৭-২০২০

অবশেষে নির্ভয়ার ধর্ষক-হত্যাকারীদের ফাঁসি ৩ মার্চ

অবশেষে নির্ভয়ার ধর্ষক-হত্যাকারীদের ফাঁসি ৩ মার্চ

নয়াদিল্লী, ১৮ ফেব্রুয়ারি - দুই দুইবার দিনক্ষণ নির্ধারণ করেও আইনি জটিলতায় ভারতে নির্ভয়া ধর্ষণ-হত্যাকাণ্ডের দণ্ডিত চার আসামীর ফাঁসি কার্যকর হয়নি। এবার নতুন করে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করলো দিল্লির পাতিয়ালা হাউস কোর্ট। বিচারকের নির্দেশ, আগামী ৩ মার্চ সকাল ৬টায় তিহার কারাগারে চার আসামীর ফাঁসি কার্যকর করতে হবে।

কিন্তু আইনজীবী মহলের এই দিনক্ষণ নিয়েও নিশ্চিত নন। কারণ, পবন গুপ্তের হাতে এখনও দুটি আইনি বিকল্প রয়েছে। আবার সব আইনি প্রক্রিয়ার পরও ১৪ দিন সময় দিতে হয় ফাঁসির জন্য। সেই হিসেবে পবনের আইনি প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে দুই দিনের মধ্যে। পবন এই দুদিনের মধ্যে আবেদন করবেন কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে।

২০১২ সালে দিল্লিতে প্যারামেডিক্যাল ছাত্রী নির্ভয়াকে চলন্ত বাসে গণধর্ষণ ও নৃশংস অত্যাচারের পর খুনের ঘটনায় চার দণ্ডিত মুকেশ সিং, বিনয় শর্মা, অক্ষয় ঠাকুর ও পবন গুপ্তর ফাঁসির আদেশ দেয় নিম্ন আদালত।

তারপর থেকেই দীর্ঘ আইনি লড়াই চলছে। পবন গুপ্ত ছাড়া তিনজন তাদের সমস্ত আইনি বিকল্প শেষ করে ফেলেছেন। সর্বশেষ প্রাণ ভিক্ষার আর্জিও খারিজ করে দেন দেশটির রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

সোমবার আদালতে এই বিষয়টি উল্লেখ করে তিহার জেল কর্তৃপক্ষ। পবন গুপ্তের হাতে এখনো রায় সংশোধনের আর্জি (কিউরেটিভ পিটিশন) এবং রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদন জানানোর মতো বিকল্প থাকলেও তারও কোনো আবেদন কোথাও আটকে নেই বলেও জানান জেল কর্তৃপক্ষের আইনজীবীরা।

জেল কর্তৃপক্ষের আইনজীবীদের এমন কথার পরই বিচারক তৃতীয় বারের জন্য মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেন। এর দণ্ডিতদের ফাঁসির দিনক্ষণ নির্ধারিত করে দুবার মৃত্যু পরোয়ানা জারি করেছে পাতিয়ালা হাউস কোর্ট। প্রথম পরোয়ানায় ফাঁসি কার্যকরের তারিখ ছিল ২২ জানুয়ারি। তার পর দ্বিতীয় পরোয়ানায় সেই তারিখ ছিল ১ ফেব্রুয়ারি।

কিন্তু এরমধ্যে সব আইনি প্রক্রিয়া শেষ না হওয়ায় গত ৩১ জানুয়ারি পাতিয়ালা হাউস কোর্ট পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ফাঁসি কার্যকরের ওপর স্থগিতাদেশ দেন। সেই স্থগিতাদেশ তুলে নতুন মৃত্যু পরোয়ানা জারির আর্জি জানিয়ে হাইকোর্টে যায় যায় কেন্দ্র ও দিল্লি রাজ্য সরকার।

দিল্লি হাইকোর্ট গত পাঁচ ফেব্রুয়ারি জানিয়ে দেন, সাত দিনের মধ্যে অপরাধীদের সব আইনি প্রক্রিয়া শেষ করতে হবে। তারপরও মৃত্যু পরোয়ানার আবেদন নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যায় সরকার পক্ষ।

গত মঙ্গলবার হাইকোর্টের দেওয়া সময়সীমা শেষের পর শীর্ষ আদালত জানায়, নিম্ন আদালতে এবার মৃত্যু পরোয়ানা জারি করতে আর কোনো বাধা নেই। সুপ্রিম কোর্টের কথামতো পাতিয়ালা হাউস কোর্টে মৃত্যু পরোয়ানার আর্জি জানায় সরকার পক্ষ। তারপরই আজ সোমবার এমন রায় দিলেন আদালত।

অনলাইন প্রতিবেদন অনুযায়ী, আজ রায় ঘোষণার পরে নির্ভয়ার মা এ নিয়ে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘নতুন করে মৃত্যু পরোয়ানা জারি করায় আমি খুশি। তবে ৩ মার্চ ফাঁসি কার্যকর হলে আরও খুশি হব। নির্ভয়ার বাবা বলেন, ‘ফাঁসির রায় কার্যকর হলে দেশে অপরাধের সংখ্যা কমবে।’

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৮ ফেব্রুয়ারি

দক্ষিণ এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে