Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২ জুন, ২০২০ , ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১৩-২০২০

ফরিদগঞ্জে হামলা-ভাঙচুর, ইউপি চেয়ারম্যানসহ আহত ১৫

ফরিদগঞ্জে হামলা-ভাঙচুর, ইউপি চেয়ারম্যানসহ আহত ১৫

চাঁদপুর, ১৪ ফেব্রুয়ারি - চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে বালিথুবা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মহসীনের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টার দিকে ফরিদগঞ্জ বাজারে এ ঘটনা ঘটে। একই সময় বাজারে ও বাসস্ট্যান্ডে যানবাহন ও দোকানপাটে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে জনসাধারণের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এর আগে দুপুরে চাঁদপুর ডিসি অফিসের সামনে ফরিদগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটে বলে যুবলীগ নেতৃবৃন্দ এক সংবাদ সম্মেলনে দাবি করেছেন। এ প্রতিবেদন লেখার সময়ে (রাত ৮টায়) চেয়ারম্যান হারুনকে ঢাকা পাঠানো হয়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে। উদ্ভুত ঘটনায় ফরিদগঞ্জ বাজারে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। যেকোনো সময়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কায় ব্যবসায়ীরা জানমালের নিরাপত্তা দাবি করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, উপজেলার ২ নম্বর বালিথুবা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুন অর রশিদ ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মহসীন এলাকার দিকে যাচ্ছিলেন। পথে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্রে সজ্জিত একদল যুবক ফরিদগঞ্জ বাজারে তাদের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়। এতে হারুন গুরুতর আহত হন। তার দুটি আঙুল ঝরে গেছে এবং মাথায় গুরুতর জখম হয়েছে। তার সঙ্গী মহসীনও গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে প্রথমে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

মাথায় হেলমেট পরা হামলাকারীরা বাজারে ও বাসস্ট্যান্ডে দোকানপাট ও যানবাহন ভাঙচুর করেছে। তারা দেশীয় ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে বাজারে ও বাসস্ট্যান্ডে প্রকাশ্যে মহড়া দিয়েছে।

এদিকে সন্ধ্যায় ফরিদগঞ্জ উপজেলা যুবলীগ এক সংবাদ সম্মেলন করেছে। এতে লিখিত বক্তব্য রাখেন যুগ্ম আহ্বায়ক হেলাল উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ষড়যন্ত্রমূলক ও মিথ্যা মালায় কোর্টে হাজির হতে সকালে কোর্টে যান যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ৪৮ নেতাকর্মী। কোর্ট থেকে বের হয়ে বাড়ি ফেরার জন্য গাড়িতে উঠতে সকলে প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ওই সময়ে একদল চিহ্নিত দলীয় নেতাকর্মী অতর্কিত আমাদের ওপর অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে। এতে যুবলীগ আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান, সদস্য আলাউদ্দিন ভুইয়া, ওয়াশিম আকরাম, গাজী আলী নেওয়াজ, আব্দুল আজিজ, পুতুল সরকার, সোহেল মিয়া, কবির হোসেন, মাজহারুল ইসলাম নীরু ও আমিসহ ১০-১২ জন আহত হই। আমরা জীবন বাঁচাতে কোনো রকমে সেখান থেকে এসে ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেই।

যুবলীগ নেতা, স্বরাষ্ট্র ও আইনমন্ত্রী, চাঁদপুরের জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেন, আমরা কি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে কোর্টে হাজির হওয়ার ও জানমালের নিরাপত্তা পাব না।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য শেষে, ফরিদগঞ্জে বাজারের দোকানপাট ও যানবাহনে হামলার কারণ কী? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে হেলাল উদ্দিন আহমেদ বলেন, ওই হামলা কারা করেছে আমরা জানি না।

তবে তিনি দোকানপাট ও যানবাহনে হামলার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, প্রয়োজনে আমরা ক্ষতিপূরণ দেব।

ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব ছুটিতে আছেন বলে সূত্র জানিয়েছেন। তবে থানার মুঠোফোনে কল দিলে কেউ রিসিভ করেননি।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১৪ ফেব্রুয়ারি

চাঁদপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে