Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১১ নভেম্বর, ২০১৯ , ২৭ কার্তিক ১৪২৬

গড় রেটিং: 4.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১১-১৯-২০১৩

মতিয়া চৌধুরী বিশ্বাস ঘাতকতা করেছেন : বদিউজজ্জামান বাদশা


	মতিয়া চৌধুরী বিশ্বাস ঘাতকতা করেছেন : বদিউজজ্জামান বাদশা
ঢাকা, ১৯ নভেম্বর- কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী তাঁর সংসদীয় আসন নকলা-নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে বিশ্বাস ঘাতকতা করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক, কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের সহ সভাপতি ও নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কৃষিবিদ বদিউজজ্জামান বাদশা।
 
সোমবার সন্ধায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আমজাদ হোসেন সরকারের সভাপতিত্বে পরিষদের মুক্তমঞ্চে অনুষ্ঠিত তৃণমূল আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এ কথা বলেন।
 
তিনি বলেন, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী শেরপুর-২ (নকলা-নালিতাবাড়ী) উপজেলা আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে বিশ্বাস ঘাতকতা করেছেন। নির্বাচনী এলাকার তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামতকে তোয়াক্কা না করে রাতের অন্ধকারে তিনি মনোনয়ন পত্র কিনে জমা দিয়েছেন।
 
বাদশা আরও বলেন, মতিয়া চৌধুরী বিগত তেইশ বছরে এই আসন থেকে ৩ বার সংসদ সদস্য ও ২ বার মন্ত্রী নির্বাচিত হয়েছেন। কিন্তু কখনও এলাকার মানুষের মূল্যায়ন করেননি।এই এলাকা কোন ব্যক্তি তার সঙ্গে দেখা করতে গেলে দুর্ব্যবহার করেছেন, চোখে জল নিয়ে ফিরে আসতে হয়েছে তার কাছ থেকে। ১৯৯১ সালের নির্বাচনই তার শেষ নির্বাচন বলে ঘোষণা দিলেও ৫ম বারের মত এবারও তিনি, বিশ্বাস ঘাতকতা করে রাতের অন্ধকারে মনোনয়নপত্র কিনে জমা দিয়েছেন।
 
কৃষিবিদ বদিউজ্জামান বাদশা এ সময় আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, তৃণমূল মানুষের সঙ্গে সব সময় ছিলাম, থাকবো। তৃণমূল মানুষের মতামত ছাড়া একটি পা ও ফেলবো না।
 
উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আঃ সবুর বলেন, এই সরকারের ৫ বছরে মন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী উপজেলা আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীকে বাদ দিয়ে, এক ব্যক্তি নিয়ে সকল কাজ কর্ম করেছেন, তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোকছেদুর রহমান লেবু। তাই এ বারের র্নিবাচনে ওই এক ব্যক্তির ভোটেই তাকে র্নিবাচিত হতে হবে। তৃণমূল আওয়ামী লীগ তাকে ভোট দেবেনা।
 
তৃণমূলের এ অবমূল্যায়নের চরম প্রতিশোধ নিতেই বাদশাকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত করার কথাও বলেন স্থানীয় এ আওয়ামী লীগ নেতা।
 
এছাড়া সভায় অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি অধ্যক্ষ সিরাজ-উদ-দৌলা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সরকার গোলাম ফারুক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোক্তারুজ্জামান, মোক্তার হোসাইন, আসাদুজ্জামান আসাদ,উপজেলা কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারূল মঞ্জিল, কলসপাড় ইউনিয়নের সভাপতি তমসের আলী, রাজনগর ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, যোগানিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল হাকিম প্রমুখ।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে