Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, বৃহস্পতিবার, ২ এপ্রিল, ২০২০ , ১৮ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১২-২০২০

মোহাম্মদপুরের দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বের বলি সুমন

মোহাম্মদপুরের দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বের বলি সুমন

ঢাকা, ১২ ফেব্রুয়ারি- রাজধানীর মোহাম্মদপুরের চাঞ্চল্যকর সুমন হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গোয়েন্দা পুলিশ বলছে, 'মোহাম্মদপুরে গরু শাহ আলম ও ভাত রাসেল নামের দুই গ্রুপের দীর্ঘদিনের আধিপত্য বিস্তার ও কথাকাটাকাটির জেরে গত ১ ফেব্রুয়ারি ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের দিন খুন করা হয় সুমন শিকদারকে।'

হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার পাঁচজন হলেন- মো. রাসেল (২১), মো. আল-আমিন খান (২২), মো. ইমরান (১৯), মো. শাকিল (২০) ও মো. রাজীব (২০)।

এ বিষয়ে ডিএমপির গোয়েন্দা-পশ্চিম বিভাগের মোহাম্মদপুর জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার আনিছ উদ্দিন জাগো নিউজকে জানান, গত ১১ ফেব্রুয়ারি রাত ১১টা থেকে বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) ভোর পর্যন্ত ঢাকা মহানগরসহ আশপাশ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

তিনি বলেন, 'গত ১ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত সাড়ে ৮টায় মোহাম্মদপুর থানাধীন রহিম ব্যাপারীর ঘাট এলাকায় সুমন শিকদার হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।'

ওই ঘটনায় ২ ফেব্রুয়ারি মোহাম্মদপুর থানায় একটি মামলা করেন নিহতের বাবা। মামলাটি তদন্ত শুরু করে গোয়েন্দা বিভাগ। তদন্তকালে বিভিন্ন তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে অভিযুক্তদের অবস্থান শনাক্ত করে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এ বিষয়ে ডিবি পশ্চিমের উপ-কমিশনার (ডিসি) গোলাম মোস্তফা রাসেল এ প্রতিবেদককে বলেন, 'দুই গ্রুপের দ্বন্দ্বের বলি সুমন শিকদার। গরু শাহ আলমের গ্রুপে চলাফেরা ছিল সুমন শিকদারের। গরু শাহ আলমের গ্রুপের সঙ্গে ভাত রাসেল গ্রুপের আধিপত্য বিস্তারের জেরে দ্বন্দ্ব চলছিল। এর আগে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটিও হয়। সিটি নির্বাচনের দিনেও মোহাম্মদপুরে একটি ভোটকেন্দ্রে সুমন শিকদারের সঙ্গে ভাত রাসেল গ্রুপের লোকদের কথাকাটাকাটি হয়। এরই জেরে হত্যার ঘটনা ঘটে।'

তিনি বলেন, 'ওই ঘটনায় গ্রেফতার পাঁচজনকে মহানগর আদালতে সোপর্দ করা হলে দুজন ১৬৪ ধারায় সুমন শিকদার হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশগ্রহণের কথা স্বীকার করেন। বাকি তিনজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। ওই গ্রুপের মূলনেতা ইমন। তাকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।'

রাজধানীর লালমাটিয়া এফ ব্লকের ৪/২ ভবনের কেয়ারটেকার আনোয়ার আহমেদ শিকদারের ছেলে নিহত সুমন। এ ভবনের নিচতলায় বাবা-মায়ের সঙ্গেই থাকত সে। হত্যার পরদিন সুমনের মা আহাজারি করে বলেছিলেন, 'হার-জিত ওদের, বুক খালি হলো আমার'।

সূত্র: জাগোনিউজ

আর/০৮:১৪/১২ ফেব্রুয়ারি

ঢাকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে