Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ৩০ মার্চ, ২০২০ , ১৬ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১১-২০২০

ভোট নিয়ে NRC দিয়েছে বিজেপি, পদ্মশিবিরকে তীব্র আক্রমণ মমতার

ভোট নিয়ে NRC দিয়েছে বিজেপি, পদ্মশিবিরকে তীব্র আক্রমণ মমতার

কলকাতা, ১১ ফেব্রুয়ারি- মঙ্গলবার বাঁকুড়ায় সভা সারলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। সভা থেকে তীব্র ভাবে পদ্ম শিবিরকে আক্রমণ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর বক্তব্য থেকে ছাড় পেল না রাজ্যের প্রাক্তন শাসক দল সিপিএমও।

সভামঞ্চ থেকে গেরুয়া শিবিরকে আক্রমণ করে মমতা বলেন, বিজেপি ভোট নিয়ে সাধারণ মানুষকে এনআরসি দিয়েছে। সিপিএমকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, সিপিএম নিজেদের ভোট লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির হাতে তুলে দিয়েছে। তৃণমূল নেত্রী মঞ্চ থেকে বলেন, সিপিএম নিজেদের সাইনবোর্ড বিজেপির হাতে তুলে দিয়েছে।

একসুরে বিরোধীদের আক্রমণ করে তিনি বলেন, কংগ্রেস, সিপিএম, বিজেপি তৃণমূলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, যতই প্ল্যান করে আঘাত আনা হবে, ততই তৃণমূল কংগ্রেস শক্তিশালী হয়ে উঠবে। বিজেপিকে তীব্র ভাবে বিদ্ধ করে মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন, ‘স্টেট লেস’ হয়ে যাচ্ছে বিজেপি। তিনি দাবি করেন, বিজেপিকে ডুবিয়ে দেবে ‘একুশে বাংলা’। বিস্ফোরক অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘বিজেপি মিথ্যা কথা বলে, ওরা চুরি করে।’

মমতা বন্দোপাধ্যায় জানান, তৃণমূল রাজ্যের ৯ কোটির বেশি মানুষকে ২ টাকা কিলো দরে চাল দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তৃণমূল দুর্বল হলে ওরা আপনার অধিকার কেড়ে নেবে।

পাশাপাশি বাঁকুড়াবাসীর উদ্দেশ্যে মমতা এদিন বলেন, ‘যতদিন আমি বাঁচব, যতদিন তৃণমূল থাকবে ততদিন সাধারণ মানুষের পাশে থাকবে।’ পাশাপাশি দিল্লিতে কেজরিওয়ালের জয় নিয়েও অভিনন্দন জানানোর প্রসঙ্গ তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, নির্বাচনের পর মাত্র ৮ মাসের মধ্যে একাধিক রাজ্য হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে বিজেপির। বড় রাজ্যের মধ্যে এখন শুধুমাত্র কর্ণাটক ও উত্তরপ্রদেশেই বিজেপি রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

রাজ্য সরকারের ভূয়সী প্রশংসা করে মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন, সাধারণ মানুষের পাশে রয়েছে রাজ্য সরকার। তিনি বলেন, সরকারি ভাবে প্রত্যেককে জন্মের সময় ‘সবুজশ্রী’ দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। মানুষ মারা গেলে ‘সমব্যাথী’ প্রকল্পের উল্লেখও করেন তিনি। পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, বাংলার সব মেয়েরাই এখন কন্যাশ্রী। এই মঞ্চেও তিনি বাঁকুড়াবাসীকে মনে করিয়ে দিয়েছেন, কেউ যদি বাড়ি বাড়ি গিয়ে আধার বা প্যান কার্ড দেখতে চায়, তবে সাধারণ মানুষ যেন তা না দেখান। এমনকি মমতা বলেন, তিনি না বলা অবধি যদি কেউ রাজ্য সরকারের লোগো পোশাকে সেঁটেও এই তথ্য জানতে চায়, তবে তা যেন না দেওয়া হয়।

আর/০৮:১৪/১১ ফেব্রুয়ারি

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে