Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০২০ , ১৪ চৈত্র ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০২-১০-২০২০

জোড়া লাগানো দুই শিশুকে বাঁচানো গেল না

জোড়া লাগানো দুই শিশুকে বাঁচানো গেল না

সিলেট, ১১ ফেব্রুয়ারি - এক লিভার নিয়ে জন্ম নেয়া জোড়া লাগানো দুই শিশুকে বাঁচানো গেল না। পরিবার আর চিকিৎসকদের সব চেষ্টা ব্যর্থ করে পরপারে পাড়ি জমিয়েছে তারা।

গত ২৫ জানুয়ারি সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জন্ম হয়েছিল তাদের। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শিশু দুটিকে আলাদা করার জন্য পাঠানো হয়েছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশু দুটি রোববার রাতে মারা যায়।

সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) রাতে এ তথ্য জানিয়েছেন শিশু দুটির বাবা মামুনুর রশিদ। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার রাতে তাদের মৃত্যু হয়।

গত ২৫ জানুয়ারি সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ফতেহপুর গ্রামের হাফেজ মামুনুর রশিদের স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে ভর্তি করা হয় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। ওই দিন দুপুরে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে জোড়া লাগানো দুটি কন্যা শিশুর জন্ম দেন ফাতেমা।

জন্মের পর থেকে শিশু দুটিকে রাখা হয় হাসপাতালের শিশু সার্জারি ওয়ার্ডের ইনকিউবেটরে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা নিশ্চিত হন শিশু দুটির সকল অঙ্গপ্রত্যঙ্গ স্বাভাবিক ও আলাদা রয়েছে। শুধুমাত্র দুই শিশুর লিভার একটি। এক লিভার নিয়েই জন্ম নিয়েছে তারা।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের শিশু সার্জারি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক মো. নূরুল আলম বলেন, শিশু দুটির কিডনি, হার্ট ও ফুসফুস আলাদা ছিল। শুধুমাত্র লিভার ছিল একটি।

জানা গেছে, শিশু দুটির নাম রাখা হয় হান্নানা ও রুহামা। ‘নিওনেটাল ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট-এনআইসিইউ’ না থাকায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জোড়া লাগা শিশু দুটিকে আলাদা করা সম্ভব হয়নি।

গত ২ ফেব্রুয়ারি তাদেরকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার তাদের মৃত্যু হয়।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ১১ ফেব্রুয়ারি

সিলেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে