Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই, ২০১৯ , ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

গড় রেটিং: 3.6/5 (20 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ১২-১৯-২০১১

সরকারের ভাবমূর্তি বাড়াতে সোয়া কোটি টাকার বিজ্ঞাপন

সরকারের ভাবমূর্তি বাড়াতে সোয়া কোটি টাকার বিজ্ঞাপন
বাংলাদেশের বিরুদ্ধে বিশ্বের নানা প্রান্তে  যে নেতিবাচক প্রচারণা চলছে তা দূর করতে সোমবার লন্ডনের বিখ্যাত দৈনিক দ্যা টাইমস-এ ১২ পৃষ্ঠার ক্রোড়পত্র প্রকাশিত হয়েছে। বিশেষ এই ক্রোড়পত্রের জন্য সরকারকে গুণতে হয়েছে সোয়া কোটি টাকা।

বাংলাদেশের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তৈরি করতে একটি মহলের পরামর্শে সরকার এই ক্রোড়পত্র ছাপানোর উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে।  

‘অ্যাকামপ্লিশমেন্ট বিয়ন্ড এক্সপেকটেশন’ শিরোনামে ট্যাবলয়েড আকৃতির ১২ পৃষ্ঠার এ ক্রোড়পত্র টাইমসের প্রায় ১৮ লাখ কপির সঙ্গেই দেওয়া হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বহিঃপ্রচার অণুবিভাগের মহাপরিচালক শামীম আহসান সোমবার সন্ধ্যায় নিজ দপ্তরে বাংলানিউজকে এ তথ্য জানান।

ক্রোড়পত্রটিতে বাংলাদেশের বিভিন্ন বিষয়ের ওপর ২৭টি নিবন্ধ ও সাক্ষাৎকার প্রকাশিত হয়েছে। এর বাইরেও সেখানে এদেশীয় কয়েকটি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন রয়েছে।  

ক্রোড়পত্রটি প্রকাশের জন্য সরকারের সোয়া কোটি টাকা খরচ হয়েছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আসা তথ্য সম্পর্কে দৃষ্টি আকর্ষণ করে শামীম আহসান বলেন, ‘আপার রিচ লন্ডনে বাংলাদেশ হাইকমিশনের মাধ্যমে সরকারের কাছে এ ধরনের প্রতিবেদন রচনার প্রস্তাব করে। তাতে সহযোগিতা করে বাংলাদেশ।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুধু দেড় লাখ ডলার দিয়েই তো আর এটি প্রকাশিত হয়নি। এজন্য তাদের আরও খরচ হয়েছে, যা তারা নিজেরা বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে যোগাড় করেছে।’

মহাপরিচালক আহসান বলেন, ‘বাংলাদেশ নিজে উদ্যোগী হয়ে এটি প্রকাশ করেনি। আপার রিচ নামের মিডিয়া এজেন্সি নিজেরাই উদ্যোগী হয়ে এধরনের প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তাদের সহযোগিতার কাজটিই করেছে।’   

এদিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রের খবর, বিদেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমে বাংলাদেশ সম্পর্কে ‘ভুল’ তথ্য উপস্থাপনে ত্যক্ত-বিরক্ত হয়ে সরকার নিজেই বিদেশি পত্রিকায় ক্রোড়পত্র প্রকাশের উদ্যোগ গ্রহণ করে।

লন্ডনের আপার রিচ নামের একটি মিডিয়া এজেন্সি টাইমসের হয়ে ক্রোড়পত্রটি প্রকাশ করে। এর তথ্য সংগ্রহের জন্য লন্ডন থেকে প্রতিনিধিও এদেশে পাঠায় আপার রিচ।

মূল প্রতিবেদনে যা রয়েছে:

‘অ্যাকামপ্লিশমেন্ট বিয়ন্ড এক্সপেকটেশন’ শিরোনামে প্রধান প্রতিবেদনটিতে বাংলাদেশের সম্পর্কে অতীতের প্রচারণার বিপরীতে বর্তমান অবস্থা তুলে ধরা হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, ৪০ বছর আগে হেনরি কিসিঞ্জার এদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বললেও এটি এখন আর মোটেই তা নয়। গত বছর যুক্তরাষ্ট্রেরই দৈনিক পত্রিকা ওয়ালস্ট্রিট জার্নাল বাংলাদেশ সম্পর্কে বলেছে, এটি আর এখন তলাবিহীন ঝুড়ি নয়, বরং পাকিস্তানের উচিত বাংলাদেশের কাছে অর্থনৈতিক সংক্রান্ত বিষয়ে কিছু শিখে নেওয়া।

জার্মানির প্রেসিডেন্ট ভুলফের ক’দিন আগে ঢাকা সফরে এসে বাংলাদেশ সম্পর্কে করা মন্তব্য এতে উল্লেখ করা হয়। জার্মান প্রেসিডেন্ট বলেছিলেন, জার্মানি বাংলাদেশের একটি অন্যতম প্রধান সহযোগী।

বাংলাদেশের দারিদ্রের হার ক্রমশ কমে আসছে বলে এতে মন্তব্য করে বলা হয়, ২০০৫ সালে যেখানে দারিদ্র্যের হার ছিল ৪০ শতাংশ, গত অর্থ বছরের শেষে তা এসে দাঁড়ায় ৩১ দশমিক ৫ শতাংশে।

ক্রোড়পত্রটিতে প্রশ্ন করা হয়, বাংলাদেশ কি এমন করেছে যে ৫ বছরে দারিদ্র্যের হার চারভাগের একভাগ কমিয়ে আনলো? এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওয়াশিংটন পোস্টে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারের প্রসঙ্গ এনে বলা হয়, শেখ হাসিনা বলেছেন, আমরা দারিদ্র্যের কারণ খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছি। কৃষকদের সরাসরি ভর্তুকির আওতায় এনে কৃষি ও উৎপাদন বাড়িয়েছি। যুবদের জন্য একটি বিশেষ ব্যাংক করে সেখান থেকে জামানত বিহীন ঋণ দিয়ে তাদের কর্মক্ষম করেছি।  

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে