Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

ইউনিজয়
ফনেটিক
English
টরন্টো, সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ , ৪ ফাল্গুন ১৪২৬

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

আপডেট : ০১-২৩-২০২০

চাহিদাপত্র পেয়েছেন এমন গ্রাহকদের গ্যাস সংযোগ দেয়ার দাবি

চাহিদাপত্র পেয়েছেন এমন গ্রাহকদের গ্যাস সংযোগ দেয়ার দাবি

ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি - রাজধানীতে যেসব গ্রাহক ইতোপূর্বে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে টাকা-পয়সা জমা দিয়ে চাহিদাপত্র পেয়েছেন তাদের অবিলম্বে গ্যাস সংযোগ দেয়ার দাবি জানিয়েছেন জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ সভাপতি এম এ জলিল। তিনি বলেন, ২০১৮ সালের ৯ মে সরকারের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু গ্রাহকদের গ্যাস সংযোগের সরকারি সিদ্ধান্তের কথা জানালেও এত সময় পরও তা বাস্তবায়ন না করে গ্রাহকদের সাথে প্রতারণা করছেন।

বৃহস্পতিবার নয়াপল্টনের একটি মিলনায়তনে আয়োজিত এক সভায় সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। জলিল বলেন, বৈধ চাহিদাপত্র নিয়ে সংযোগের অপেক্ষায় আছেন প্রায় দেড় লাখ গ্রাহক। তিতাস গ্যাস কোম্পানির গ্রাহক ২৭ লাখ; চাহিদাপত্র আছে তবে সংযোগ পায়নি এমন গ্রাহকের সংখ্যা ৮০ হাজার। এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ ছাড়া এ সমস্যার সমাধান হবে বলে মনে করেন না গ্রাহকরা। তাই তারা অবিলম্বে এ সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

সংগঠনের সভাপতি এম এ জলিলের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমার সাহা, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ নেতা আ স ম মোস্তফা কামাল, বাংলাদেশ জাসদ নেতা মো. শাহাবুদ্দিন, রাজনীতিক মো. শহীদুননবী ডাবলু, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সমির রঞ্জন দাস, সরকারী অর্থ জমা দিয়ে চাহিদাপত্র পেয়েছেন এমন গ্রাহকদের মধ্যে জামাল হোসেন, মোস্তফা কামাল, ডা. হাসমত প্রমুখ।

বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, বাসাবাড়িতে গ্যাস সংযোগ দেয়া নিয়ে এক প্রকার লুকোচুরি করছে সেবাদানকারী সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো। বাসাবাড়িতে নতুন করে গ্যাস সংযোগ দেয়া হবে না- সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও পেট্রোবাংলার এমন মৌখিক নির্দেশেই বন্ধ রাখা হয় নতুন গ্যাস সংযোগ প্রদান। অথচ খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বাসাবাড়িতে নতুন করে গ্যাস সংযোগ দেয়া হবে না এ মর্মে জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয় বা পেট্রোবাংলার তরফে দেয়া হয়নি কোনো লিখিত নির্দেশনা। জারি করা হয়নি কোনো প্রজ্ঞাপন। অন্য দিকে সংযোগ পেতে আগ্রহী গ্রাহকদের গ্যাসের ঘাটতি রয়েছে বলে নতুন সংযোগ দেয়া হচ্ছে না।

তিনি বলেন, রাজধানীর আশপাশে বিভিন্ন এলাকায় অবৈধ গ্রাহক বা সংযোগ আছে প্রায় ৫ লাখ। এসব গ্রাহকরা নিয়মিত গ্যাস ব্যবহার করলেও সরকার বিল পাচ্ছে না। এবার এসব গ্রাহকও বৈধতার দাবি তুলতে পারেন। অথচ চাহিদাপত্র থাকা গ্রাহকদের গ্যাস সংযোগ প্রদান করা হবে সরকারের এমন সিদ্ধান্ত থাকার পরও তা বাস্তবায়ন হচ্ছে না। যা নাগরিকদের হতাশ ও ক্ষুব্ধ করছে।

সূত্র : জাগো নিউজ
এন এইচ, ২৩ জানুয়ারি

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে